क्षेत्रीय

Blog single photo

তবলিগ-ই জামাতে যোগদানকারী ত্রিপুরার দুই নাগরিক করোনা-আক্রান্ত, চিকিৎসাধীন বিকানিরে

03/04/2020

আগরতলা, ৩ এপ্রিল (হি.স.) : দিল্লির হজরত নিজাম‌উদ্দিন মরকজে তবলিগ-ই জামাতে অংশগ্রহণকারী ত্রিপুরার ১১ জন নাগরিকের মধ্যে ২ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁরা ত্রিপুরায় ফেরেননি। বর্তমানে রাজস্থানের বিকানিরে রয়েছেন এবং সেখানেই তাঁদের চিকিৎসা চলছে। রাজস্থান সরকার ত্রিপুরা সরকারকে এই খবর দিয়েছে। শুক্রবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে ত্রিপুরার স্বাস্থ্যসচিব ডা. দেবাশিস বসু এ-কথা জানিয়েছেন। সাথে তিনি যোগ করেন, দিল্লির হজরত নিজাম‌উদ্দিন মরকজে তবলিগ-ই জামাত-ফেরত ত্রিপুরার নাগরিক ৩৬ জনকে এখন পর্যন্ত চিহ্নিত করা হয়েছে। তাঁদের পরিবার-সহ সকলের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। 

তিনি বলেন, ত্রিপুরার বক্সনগরের ১১ জন বাসিন্দা দিল্লির হজরত নিজাম‌উদ্দিন মরকজে তবলিগ-ই জামাতে অংশগ্রহণ করেছিলেন। তাঁরা সেখান থেকে বিকানির ঘুরতে যান এবং সেখানেই ২ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বলে চিহ্নিত হয়েছেন। এ-বিষয়ে স্টেট সার্ভেইলেন্স অফিসার ডা. দ্বীপ দেববর্মা বলেন, গত ৫ মার্চ ওই ১১ জন দিল্লি গিয়েছিলেন। ৮ মার্চ পর্যন্ত দিল্লির হজরত নিজাম‌উদ্দিন মরকজে তবলিগ-ই জামাতে ছিলেন তাঁরা। 

৮ মার্চ রাতে তাঁরা দিল্লি থেকে বিকানিরের ট্রেন ধরেন। ডা. দেববর্মার কথায়, অসমের করিমগঞ্জ জেলাধীন বদরপুরের করোনা-আক্রান্ত প্রথম রোগীর সংস্পর্শে ছিলেন তাঁরা। বিকানিরে মসজিদের পাশে ৩টি বাড়িতে তাঁরা আশ্রয় নিয়েছিলেন। রাজস্থান সরকার তাঁদের চিহ্নিত করেছে। তিনি বলেন, ৪/৫ দিন আগেই তাঁদের চিহ্নিত করেছে রাজস্থান সরকার। এখন আমাদের কাছে খবর এসেছে। তাদেরকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছে রাজস্থান সরকার। তবে, ত্রিপুরার ১১ জন নাগরিকের মধ্যে দুজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এমন কোনও নথি এখনও রাজস্থান সরকার ত্রিপুরা সরকারের কাছে পাঠায়নি, বলেন তিনি। 

ডা. দ্বীপ দেববর্মার কথায়, দিল্লির হজরত নিজাম‌উদ্দিন মরকজে তবলিগ-ই জামাত-ফেরত এখন পর্যন্ত ৩৬ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের পরিবার-সহ সকলকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রাখা হয়েছে। এছাড়া, মুম্বাইয়ের বাসিন্দা ৪ জনের খোঁজ মিলেছে। তাঁরা ১৫ মার্চ ত্রিপুরায় এসেছিলেন। আগরতলায় একটি বাড়িতে তাঁরা অবস্থান করছিলেন। তাঁদের মধ্যে কোনও লক্ষণ পাওয়া যায়নি। কিন্তু আগামীকাল তাঁদের নমুনা পরীক্ষা করা হবে। 

এদিকে, ত্রিপুরায় ৯,৮২৪ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। তাঁদের মধ্যে ১৪ দিনের পর্যবেক্ষণ সময়সীমা অতিক্রম করেছেন ৩,২০৪ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রয়েছেন ১৩৪ জন এবং বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৬,৪৮৬ জন। এছাড়া, নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৬১ জনের এবং তাঁদের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। 

হিন্দুস্থান সমাচার / সন্দীপ / এসকেডি


 
Top