क्षेत्रीय

Blog single photo

১২ দফা দাবি নিয়ে এবিভিপি-র অবস্থান, রাজ্যপাল-মুখ্যমন্ত্রীকে স্মারকলিপি

03/06/2020

কলকাতা, ৩ জুন (হি. স.) : শিক্ষা সংক্রান্ত ১২ দফা দাবি নিয়ে  বুধবার অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ (এবিভিপি) দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলা জুড়ে সমাবেশ করে। তাদের একদল প্রতিনিধি রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরকে একটি স্মারকলিপিও দেন। এর প্রতিলিপি দেওয়া হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী, কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকয়ও ইউজিসি-কে। 

এবিভিপি-র দক্ষিণবঙ্গ প্রান্ত রাজ্য সম্পাদক সুরঞ্জন সরকার বিবৃতিতে জানান, “আমরা আশা করি এই সংকটকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের যে সমস্যাগুলি দেখা গিয়েছে রাজ্য সরকার সেগুলির সমাধানের চেষ্টা করবে। 

স্মারকলিপিতে লিখেছেন, নিম্নলিখিত পরামর্শগুলি রাজ্যের বিশেষ করে শিক্ষামূলক ক্ষেত্রে সাধারণভাবে শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবে—
১) ইউজিসি-র নির্দেশিকা অনুসারে সঠিক মূল্যায়নের মাধ্যমে চূড়ান্ত বর্ষের শিক্ষার্থীদের পদোন্নতি। 
২) সব ধরণের ফি'স এক বছরের জন্য মকুব।
৩) এক বছরের হোস্টেলের ফি'স মকুব। 
৪) সকল বেসরকারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভর্তি ফি ও টিউশন ফি'স হ্রাস।
৫) সকল ধরণের বৃত্তি, উপবৃত্তি এবং ফেলোশিপ অবিলম্বে শিক্ষার্থীদের প্রদান।
৬) পরীক্ষার্থী ,সমস্ত শিক্ষক এবং নন-টিচিং স্টাফদের পরীক্ষার সময় সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত।
৭) বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে অবশ্যই নিজস্ব উদ্যোগে প্লেসমেন্টের ব্যবস্থা।
৮) পিএইচডি এবং এমফিল শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে প্রয়োজনবোধে সময়সীমা বাড়ানো। 
৯) সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে ছাত্রছাত্রীদের জন্য স্যানিটাইজার, মাস্ক এবং হ্যান্ডগ্লাভস প্রদান।
১০) শ্রেণিকক্ষে এবং অন্যান্য বিভিন্ন জায়গায় শিক্ষার্থীদের বসার ব্যবস্থায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা।
১১) যোগব্যায়াম, বিপর্যয় পরিচালন, ফলিত শারীরবিদ্যা, প্রতিরক্ষা গবেষণা, মহাসাগর বিজ্ঞান, অ্যারোনটিক বিজ্ঞান, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ ইত্যাদি বিষয়কে উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষাদানে অগ্রণী ভূমিকা ভূমিকা দেওয়া। 
১২) এনএসকিউএফ স্কিমের অধীনে দক্ষতাভিত্তিক বৃত্তিমূলক কোর্সগুলিকে সকল উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বাধ্যতামূলক করা উচিত যেখানে শতভাগ কাজের গ্যারান্টি নিশ্চিত করা।

এই সঙ্গে বিবৃতিতে লেখা হয়েছে, “বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশ্বব্যাপী মারণভাইরাস করোনার মহামারী সম্পর্কে আমরা সবাই অবগত।  তাই এখন জাতীয় কল্যাণে যৌথভাবে কাজ করার সময় এসেছে। কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের যৌথ উদ্যোগের ফলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে ভাইরাস ছড়ানোর মোকাবিলায় যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে
তার প্রশংসা এবিভিপি করে। তবে এখনও অনেক কিছুই রাজ্য সরকার সমাধান করতে পারে। এবিভিপি এমন একটি সংগঠন যা প্রতিনিয়ত দেশের শিক্ষাব্যবস্থার উন্নতি এবং শিক্ষার্থীদের কল্যাণে কাজ করে চলেছে।“হিন্দুস্থান সমাচার/ অশোক


 
Top