अंतरराष्ट्रीय

Blog single photo

করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত গ্র্যামিজয়ী সঙ্গীতশিল্পী অ্যাডাম শেলসিংগার

02/04/2020

লস এঞ্জেলেস , ২ এপ্রিল (হি. স.) : ফের হলিউড সংগীত জগতে শোকের ছায়া।  করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন বিখ্যাত রক ব্যান্ড ‘ওয়ান’-এর অন্যতম স্তম্ভ গীতিকার অ্যাডাম শেলসিংগার। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫২ বছর। তাঁর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ গোটা বিনোদন দুনিয়া। বৃহস্পতিবার তাঁর মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে  প্রথম আনেন অভিনেতা টম হ্যাঙ্কস। তিনি এবং অ্যাডাম যে ভাল বন্ধু ছিলেন সে কথা অনেকেরই প্রায় জানা। ফলে এই দুঃসংবাদে টম যে ভেঙে পড়েছেন, সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।
জানা যাচ্ছে, দিনকয়েক ধরেই তিনি প্রবল শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। সম্প্রতি করোনা সম্দেহে তাঁর সোয়াব পরীক্ষা করা হেলে তাতে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তড়িঘড়ি তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কিন্তু চিকিত্সায় সেরকম সারা দিচ্ছিলেন না। যার জেরে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটছিল অ্যাডামের। অবশেষে বৃহস্পতিবার তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

এথনও পর্যন্ত তিনি তিনবার এমি পুরস্কার এবং একবার গ্র্যামি জিতেছেন। একাধিকবার গোল্ডেন গ্লোব এবং অস্কারের জন্য মনোনিতও হয়েছেন। নয়ের দশকের বিধ্যাত গীতিকার ছিলেন অ্যাডাম। বিখ্যাত রক ব্যান্ড ‘ফাউন্টেনস অফ ওয়ানে’র জন্য গান লিখতেন তিনি। ‘স্টেসিস মম’ ও ‘হে জুলি’র মতো হিট গান শ্রোতাদের উপহার দিয়েছেন তিনি। ‘অস্কার’, ‘গোল্ডেন গ্লোব’, ‘গ্র্যামি’, ‘এমি’র মতো পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিলেন তিনি। ২০০৯ সালে তিনি গ্র্যামি জেতেন। ‘A Colbert Christmas: The Greatest Gift of All’র জন্য পুরস্কার পান তিনি। সংগীতজীবনে তিনবার ‘এমি’ পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি। তাঁর সৃষ্টির মধ্যে ‘স্টেসিস মম’ ও ‘হে জুলি’ অত্যতম জনপ্রিয় গান।তাঁর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন একাধিক তারকা। এযাবত্কালে তাঁর মতো গীতিকারকে হারানো সঙ্গীতজগতের অপূরণীয় ক্ষতি। হিন্দুস্থান সমাচার / সোনালি


 
Top