क्षेत्रीय

Blog single photo

প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে ব্যাপক সাড়া জনতার, রাত নয়টায় নয় মিনিটের অকাল দীপাবলি অসমে

05/04/2020

গুয়াহাটি, ৫ এপ্রিল (হি.স.) : ঘড়ির কাটা ৯:০০টায় ছুঁতেই গোটা গুয়াহাটি মহানগর বৈদ্যুতিক আলোকশূন্য হয়ে যায়। চারদিকে কেবল প্রদীপ, মম, টর্চ ও মোবাইল ফোনের ফ্ল্যাশের আলোকচ্ছটা। এ যেন অকাল দীপাবলি। কোভিড-১৯-এর মোকাবিলায় দেশবাসীকে এক সূত্রে বাঁধতে আজ রাত নয়টায় নয় মিনিট ঘরের আলো নিভিয়ে বাইরে আলো জ্বালাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আহ্বান জানিয়েছিলেন। তাঁর আহ্বানে গোটা দেশের সঙ্গে গুয়াহাটি মহানগর-সহ সমগ্র অসম সাড়া দিয়েছে। কোনও কোনও জায়গায় মম দিয়ে ‘করোনা’ লিখে অদৃশ্য ঘাতকের বিরুদ্ধে সংগ্রামে লিপ্ত হওয়ার অঙ্গীকার করে মহাশক্তি প্রদর্শন করেছেন জনতা। আলো নিভিয়ে নয় মিনিটের জন্য অন্ধকার হয়ে রাজভবন-সহ মুখ্যমন্ত্রীর আবাসনও। 


 আজ রবিবার রাত নয়টায় নয় মিনিটের জন্য দেশের সর্বস্তরের মানুষকে তাঁদের ঘরের আলো বুজিয়ে দুয়ারমুখে, বারান্দা, অথবা ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে প্রদীপ, মম, টর্চ কিংবা মোবাইল ফোনের ফ্ল্যাশ জ্বালিয়ে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ে শামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর আহ্বানে ব্যাপক সাড়া দিয়েছেন অসমের জনসাধারণ। মহানগরীর উলুবাড়ি, গণেশগুড়ি, লালগণেশ, কালাপাহাড়, রিহাবাড়ি, পল্টনবাজার, চানমারি, শিলপুখুরি, পূবশরণিয়া, গান্ধীবস্তি, জু-রোড, জু-রোড তিনআলি, গীতানগর, নারেঙ্গি, নুনমাটি, মালিগাঁও, পাণ্ডু, আদাবাড়ি ইত্যাদি সর্বত্র করোনার বিরুদ্ধে মহাশক্তি প্ৰদৰ্শনের উদ্দেশ্যে প্রদীপ, মমবাতি, মোবাইলের ফ্ল্যাশ জ্বালিয়েছেন জনতা। 

এই কার্যক্রমে রাজ্যপাল অধ্যাপক জগদীশ মুখি, মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল, বিজেপির প্রদেশ সভাপতি রঞ্জিতকুমার দাস এবং দলের অন্য নেতেরাও নিজের নিজের আবাসগৃহ থেকে বাইরে বেরিয়ে জ্বালিয়েছেন প্রদীপ। সব থানা, হাসপাতাল ইত্যাদিতেও সংশ্লিষ্টরা ঘরের আলো নিভিয়ে বাইরে প্রদীপ, মোমবাতি, টর্চ, মোবাইলের ফ্ল্যাশ জ্বালিয়ে সম্মিলিত মহাশক্তি প্ৰদৰ্শন করেছেন। 

তবে এর মধ্যে কিছু কিছু জায়গায় ব্যতিক্রমী ছিলেন কতিপয়। এঁরা ভিন্ন মতাদর্শে বিশ্বাসী। তাই তাঁরা প্রধানমন্ত্রী মোদী আহূত মহাশক্তি প্রদর্শনে শামিল হননি। যথারীতি তাঁদের বাড়িঘরে জ্বলেছে আলো। 

এদিকে কোকরাঝাড়ে প্ৰধানমন্ত্ৰীর আহ্বানে অভূতপূর্ব সাড়া দিয়েছে মানুষ। রাত ৯-টা বাজার সঙ্গে সঙ্গে ৯ মিনিটের জন্য প্ৰজ্বলন করা হয়েছে মোমবাতি। মোমবাতি দিয়ে ‘করোনা’ লিখে প্ৰধানমন্ত্ৰীর আহ্বানকে উষ্ণ স্বাগতও জানিয়েছেন অনেকে। 

হিন্দুস্থান সমাচার / এসকেডি


 
Top