ट्रेंडिंग

Blog single photo

৩৭০ ধারা অবলুপ্তি নিয়ে কংগ্রেসকে তোপ অমিতের

09/10/2019


 কৈথাল(হরিয়ানা), ৯ অক্টোবর (হি.স.) : তিন প্রজন্ম ধরে কেন্দ্রে ক্ষমতায় থাকার পরও জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলুপ্ত করেনি কংগ্রেস। বুধবার কৈথালে এক জনসভায় এমনই জানিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।
এদিন অমিত শাহ জানিয়েছেন, এমন নয় যে ৩৭০ ধারা হটানো যেত না। কিন্তু তা বিলুপ্ত করার সাহস কংগ্রেসের কাছে ছিল না। কিন্তু দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই দৃঢ় পদক্ষেপ নেন। অন্যদিকে কংগ্রেস এর বিরোধিতা করে। হরিয়ানা এসে ৩৭০ ধারা নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করুক রাহুল গান্ধী। একটি দেশে দুইটি পতাকা, দুইজন প্রধানমন্ত্রী থাকা একেবারেই উচিত নয়। কিন্তু বিজেপির প্রতিটি বিষয়ে বিরোধিতা করা কংগ্রেসের অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে। ৩৭০ ধারা বহাল থাকায় দেশবাসী জম্মু ও কাশ্মীরের সঙ্গে একাত্মবোধ করতে পারছিল না। বিলুপ্তি করার ফলে সেই একাত্মবোধ আরও সুদৃঢ় হয়েছে। ৩৭০ ধারা বিলুপ্তির সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই। দেশের সুরক্ষার সঙ্গে যুক্ত ছিল এই সিদ্ধান্ত, কিন্তু কংগ্রেস এর বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে।
এদিন কৈথালের হুড্ডা ময়দানে জনসভায় বক্তব্য রাখেন অমিত শাহ। ভারত মাতা কি জয় বলে জয়ধ্বনি দিয়ে নিজের বক্তব্য শুরু করেন তিনি। অমিত শাহ বলেন, ৩৭০ ধারা বিলুপ্তির পদক্ষেপকে গোটা দেশবাসী সমর্থন করেছে। কিন্তু কংগ্রেস ৩৭০ ধারা, তিন তালাক বিরোধী বিলের বিরোধিতা করেছে কংগ্রেস। এমনকি অনুপ্রবেশকারীদের হটাতে চায় না কংগ্রেস। এনআরসির বিরোধিতা করছে কংগ্রেস। অমিত শাহ দাবি করেছেন যে এবার হরিয়ানায় ৭৫-এর বেশি আসন পাবে বিজেপি।
মনোহর লাল খট্টরের প্রশংসা করে অমিত শাহ জানিয়েছেন, বিগত পাঁচ বছরে রাজ্যে বড় পরিবর্তন এনেছেন মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টর। সরকারের কোনও জাতপাত নেই। সরকারের কাছে সব মানুষই সমান। রাজ্যের মানুষ নিজেদের যোগ্যতা অনুসারে কাজ পাচ্ছে। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রশংসা করে অমিত শাহ জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে দেশে অগ্রগতি হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী কোন কাজ করলে রণদীপ সিং সুরজেওয়ালার পেটে ব্যাথা শুরু হয়ে যায়। নরেন্দ্র মোদীর থেকে বেশি বিদেশভ্রমণ করেছিলেন মনমোহন সিং। হিন্দুস্থান সমাচার / শুভঙ্কর/ সঞ্জয়


 
Top