Hindusthan Samachar
Banner 2 मंगलवार, नवम्बर 20, 2018 | समय 12:57 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

দেশের উন্নতি হলেও মানসিকতার উন্নতি হয়নি : লজ্জিত কলকাতার বিদ্বজনেরা

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 4 2018 7:38PM
দেশের উন্নতি হলেও মানসিকতার উন্নতি হয়নি : লজ্জিত কলকাতার বিদ্বজনেরা
কলকাতা, ৪ নভেম্বর (হি.স.): দেশের উন্নতি হলেও মানসিকতার উন্নতি এখনও হয়নি তা পরিস্কার | শবরীমালার ছায়া পরেছে দক্ষিণ কলকাতার চেতলা হাট অঞ্চলের প্রদীপ সঙ্ঘ ক্লাবে | সেখানে কোনও জায়গা নেই মেয়েদের | পুজোর কাজের শেষ থেকে শুরু করে সমস্তটাই করে পুরুষরা । মহিলারা কোন ভাবেই ঢুকবেননা পুজোয় | তবে, এই ঘৃণ্য মানসিকতার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন কলকাতার প্রফেসার,সাহিত্যিক থেকে টলি পাড়ার পরিচালকরা | চেতলা প্রদীপ সঙ্ঘের বারোয়ারি কালীপুজোর উদ্যোক্তারা জানান, ৩৪ বছর আগে তারাপীঠের তান্ত্রিকেরা এসে শুরু করেছিলেন এই পুজো । মূলত কালীর পাঁচটি রূপের পুজো করা হয় এখানে । পূর্বপুরুষদের চালু করা নিয়ম মেনে হয় পাঁঠা বলি । পুজো শুরুর সময়ে তান্ত্রিকেরাই নিদান দিয়েছিলেন যে, এই পুজোয় ঢুকবেন না মেয়েরা । মহিলারা অশুচি হয় বলেই তাঁদের ঢুকতে দেওয়া হয় না । তাছাড়াও আগেই তান্ত্রিকরা এসে নিধান দিয়ে গিয়েছেন যাতে মহিলারা এই পুজোয় না ঢোকে’। পুজোর এক উদ্যোক্তা মলয় মিস্ত্রির কথায়, ‘তান্ত্রিকের নিদান মেনেই এখানকার মণ্ডপে মেয়েরা ঢোকেন না’। তাঁরা জানান, এই পুজোর কোনও জিনিস ছোঁয়ারও নিয়ম নেই মেয়েদের । এই প্রকার ঘৃণ্য মানসিকতার তীব্র নিন্দা করলেন অধ্যাপিকা ‘মীরাতুন নায়ার’| তাঁর মতে, ‘আমাদের দেশে নারী পুরুষের ব্যবধান প্রাচীন কাল থেকেই | তবে, বর্তমানে সেই ব্যবধান মেয়েরা কাটাতে পারলেও কিছু পুরুষ সম্প্রদায় তা কাটাতে দিচ্ছেনা | জিইয়ে রাখতে চায় ব্যবধান | সমাজ পরিবর্তিত হলেও মানসিকতার পরিবর্তন আজও হয়নি | ইচ্ছা না হলেও জোর করে আজও কিছু ইচ্ছা চাপিয়ে দেওয়া হয় মেয়েদের উপর’ | মীরাতুনের বিশ্বাস, ‘মেয়েরা এত বছর ধরে লড়াই করে তাঁদের জায়গা আদায় করে নিয়েছে |এই মানসিকতার পরিবর্তনও মেয়েরাই করবে |আজ না হোক কাল মেয়েরা আদায় করে নেবে তাঁদের অধিকার | আর কিছু বছর বাদেই হয়তো পরের পুজতেই দেখা যাবে মেয়েরা করছে প্রদীপ সঙ্ঘ ক্লাবের পুজোর আয়োজন’| কলকাতার বুকে এরম অভাবনীয় কাজ ভাবা যায়না | শিক্ষিত সমাজের কাছে এটা তীব্র নিন্দার বিষয় বলে জানান টলি পাড়ার পরিচালক সুদেষ্ণা রায় | তাঁর মতে, ‘এই ঘৃণ্যতম অপরাধের তীব্র প্রতিবাদ জানানো উচিত’ | এত দিন ধরে এই অন্যায়ের প্রতিরোধ হওয়া উচিত ছিল বলে মনে করেন পরিচালক | যেকোনও কাজ মেয়েরা ছাড়া অসম্পূর্ণ, তবে এই কুসংস্কার কেন, পরিচালকের প্রশ্ন সেইসব কুসংস্কারপূর্ণ পুরুষ সমাজের কাছে | বিশিষ্ট সাহিত্যিক শীর্ষ বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, কলকাতার বুকে দাড়িয়ে এরম অদ্ভুত নিয়ম সত্যিই বোকামির পরিচয় দেয় | শবরীমালা মন্দিরে তবুও কিছু নিয়ম আছে তবে প্রদীপ সঙ্ঘ ক্লাবে কিসের নিয়ম তা নিয়ে বেশ কিছুটা সংশয় রয়ছে সাহিত্যিকের | ২০১৮ সালে দাঁড়িয়ে এরম মানসিকতার পরিচয় তাও কলকাতার বুকে খুবই লজ্জাজনক বলেই মনে করেন তিনি | হিন্দুস্থান সমাচার / পায়েল / হীরক
image