Hindusthan Samachar
Banner 2 सोमवार, नवम्बर 19, 2018 | समय 20:48 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

ঝাড়্গ্রামে হাতির হানায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 4 2018 9:31PM
ঝাড়্গ্রামে হাতির হানায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির
ঝাড়্গ্রাম, ৪ নভেম্বর (হি.স.): হাতির হানায় একের পর এক মৃত্যুর ঘটনা ঘটতে থাকায় উদ্বেগ বাড়ছে বনদফতরের। রবিবার সকালে মাছ ধরে বাড়ি ফেরার পথে ফের হাতির হামলায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়্গ্রাম ব্লকের মাণিকপাড়া রেঞ্জের লাউরিয়াদাম গ্রামে। পুলিশ জানিয়েছে মৃত ব্যক্তির নাম অজিত রায় (৩৫)। বনদফতর ও স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে, এদিন ভোরে লাউরিয়াদাম গ্রামের বাসিন্দা অজিত বাবু মাছ ধরার জন্য জমিনে গিয়েছিলেন। পরে মাছ ধরে বাড়ি ফেরার পথে হাতির সামনে পড়ে গেলে শূঁড়ে ধরে আছাড় মারে অজিত বাবুকে৷ ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর। পরে স্থানীয় মানুষজন মাণিকপাড়া পাড়া ফাঁড়ি থানায় খবর দিলে পুলিশ ও বনদফতরের লোকজনেরা এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ঝাড়্গ্রাম জেলা হাসপাতালে পাঠিয়েদেন ময়নাতদন্তের জন্য। বনদফতর সুত্রে জানা গিয়েছে, মাণিকপাড়া, ঝাড়্গ্রাম, লালগড় রেঞ্জ এলাকায় ওই রেসিডেন্সিলায় হাতিটি ঘোরাঘুরি করে। বেশ ক''দিন ধরে হাতিটি মাণিকপাড়া রেঞ্জ এলাকায় রয়েছে। তবে একের পর এক হাতির হামলায় মৃত্যু, আহতের সংখ্যা বাড়তে থাকায় উদ্বেগ বাড়ছে বনদফতরের। উল্লেখ্য গত ২২ মে বেলপাহাড়ী এলাকার ভূলাভেদা রেঞ্জের তামাজুড়ী গ্রামের বাসিন্দা আখলডোবার জঙ্গলে পাতা, কাঠ তুলতে গিয়ে হাতির আক্রমনে এক সীমামণি পাল নামে এক মহিলার মৃত্যু হয়েছিল। অন্যদিকে গত ২৩ আগস্ট নয়াগ্রামের সিংদই জঙ্গলে হাতি তাড়াতে গিয়ে হাতির সামনে পড়ে মৃত্যু হয়েছিল সমীর মাহাত (৩৫)। এই ঘটনায় আহত হয়েছিল আরও এক ব্যক্তি। গত চার এপ্রিল বাঁশতলা এলাকার একটি কাজুবাগানে হাতির সামনে পড়ে মৃত্যু হয়েছে লালটু মাহাত ( ৫৫)। হাতির হানায় মৃত্যুর ঘটনা ঘটতে থাকায় উদ্বেগ বনফদতরের। এব্যাপারে ঝাড়্গ্রামের এডিএফও সমীর মজুমদার বলেন, এদিন সকালে হাতির আক্রমনে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও জেলার বিভিন্ন ব্লকে এনিয়ে মোট ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে । এলাকার মানুষজন জানতেন ওই এলাকায় হাতিটি ঘোরাঘুরি করছে। তা সত্ত্বেও ভোরে বের হওয়ার কি দরকার ছিল। মানুষজন একটু সচেতন হলেই হাতি আক্রমনে মৃত্যু বা জখমের ঘটনা অনেকটাই এড়ানো সম্ভব বলে জানান তিনি। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী ওই ব্যক্তি ক্ষতিপূরণ পাবেন। হিন্দুস্থান সমাচার/ গোপেশ / কাকলি
image