Hindusthan Samachar
Banner 2 शनिवार, नवम्बर 17, 2018 | समय 10:45 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরে রহস্যজনক মৃত্যু যুবকের, তদন্তে পুলিশ

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 4 2018 9:39PM
বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরে রহস্যজনক মৃত্যু যুবকের, তদন্তে পুলিশ
বোলপুর, ৪ নভেম্বর (হি.স.) : বিয়ের পর থেকেই শ্বশুরবাড়ির প্রতিবেশী যুবকের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে তোলে বোন। তা জানাজানি হওয়ার পর দাদা বোনকে সতর্ক করেছিল। কিন্তু উল্টে বেপরোয়া হয়ে উঠেছিল তাঁদের প্রেম। বারবার বুঝিয়েও কাজ না হওয়ায় বোনের প্রেমিককে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল দাদার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে বোলপুরের ঘিদহ গ্রামের অজয় নদের ধারে। চারদিন নিখোঁজ থাকার পর আজ রবিবার অজয় নদীর বালি থেকে অর্ধপোতা অবস্থায় বর্ধমানের মঙ্গলকোট থানার পুলিশ উদ্ধার করে ওই যুবকের দেহ। গত ৩১ অক্টোবর থেকে নিখোঁজ ছিলেন বোলপুরের মহিদাপুর গ্রামের বাসিন্দা খিলান মোল্লা। ছেলেকে খুঁজে না পেলে বোলপুর থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন যুবকের পরিবারের সদস্যরা।রবিবার সকালে বোলপুরের ঘিদহ গ্রামের অজয় নদের ধারে বালির মধ্যে অর্ধপোতা অবস্থায় তাঁর দেহ উদ্ধার হয়। পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, খিলান মোল্লা বাডি বোলপুর মহিদাপুরের মল্লিক পাডা। মঙ্গলকোট বাসিন্দা ভ্রমরী খাতুন এর সঙ্গে কযেক বছর আগে বিয়ে হয বোলপুরের মহিদাপুরের মল্লিক পাডায। বিয়ের পর প্রতিবেশী খিলান মোল্লা সঙ্গে পরিচয় হয়। এর কিছু দিন পরেই ভ্রমরী র স্বামী মারা যায়। এর পর ঐ সম্পর্ক আর ও গভীর হয। কিন্ত কিছু দিন পরে ভ্রমরী বাপের বাড়ি মঙ্গলকোট চলে যায়। কিন্ত খেলান নিযমিত মঙ্গলকোটে গিয়ে ভ্রমরী সঙ্গে দেখা করতে থাকে। তা নিযে ভ্রমরী দাদা আবলুস মোল্লা একাধিক বার প্রতিবাদ জানায। কিন্তু তাদের সম্পর্ক আরও বাড়তে থাকে। এরপর গত ৩১ অক্টোবর থেকে খিলান মোল্লা নিখোঁজ হয়। এরপরই খোলানের পরিবারের সন্দেহ গিয়ে পড়ে ওই যুবতীর পরিবারের ওপর। খিলানের পরিবারের দাবি, প্রতিবেশী এক গৃহবধুর সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে আবদ্ধ হয়েছিল খিলান। কিছুদিন আগে ঐ গৃহবধু স্বামীর মৃত্যু হয়। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে মেয়েটির দাদা মাঝে মধ্যেই হুমকি দিত খিলাঙ্কে। পুলিশকে তাঁরা জানান, বর্ধমানের এক যুবতী খোলানের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন। ওই যুবতীর স্বামীর মৃত্যু হয় কিছুদিন আগে। তারপর থেকেই খোলানের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হয়। এই সম্পর্কে আপত্তি ছিল যুবতীর দাদার। একাধিকবার এই নিয়ে ঝামেলাও হয়। অভিযোগ,খিলান এর বাবা সাহাবুল মোল্লা মঙ্গলকোট থানায এই মর্মে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা করেছে। খিলান এর মা আমবালী মোল্লা বলেন, আক্রোশ থেকেই ডেকে নিয়ে গিয়ে আমার ছেলে কে ভ্রমরী দাদারা খুন করেছে। দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। হিন্দুস্থান সমাচার/হেমাভ /সঞ্জয়
image