Hindusthan Samachar
Banner 2 सोमवार, नवम्बर 19, 2018 | समय 21:19 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

উৎসবের মরশুম না কাটতেই ডেঙ্গুর আতঙ্ক বসিরহাটে

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 8 2018 2:17PM
উৎসবের মরশুম না কাটতেই ডেঙ্গুর আতঙ্ক বসিরহাটে
বসিরহাট, ৮ নভেম্বর(হি. স.) : উৎসব এর মধ্যেই ডেঙ্গুর ভয়ে আতঙ্কিত উত্তর ২৪ পরগণার বসিরাট পৌরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ডের আর এন মুখার্জী রোড এলাকার বাসিন্দারা। স্থানীয় বাসিন্দাদের পাশাপাশি ডেঙ্গুর ভাইরাসে আক্রান্ত স্থানীয় ব্যবসায়ীরাও। ডেঙ্গুর প্রকোপের ঘটনায় তরজা শুরু হয়েছে স্থানীয় কাউন্সিলর ও পৌরসভার মধ্যে। গত কয়েক বছর ধরে রাজ্যজুড়ে ডেঙ্গু আক্রান্তের ঘটনা ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পাওয়ায় এবছর আগে থেকেই প্রতিরোধে নেমেছে প্রশাসন। ডেঙ্গু প্রতিরোধের আগাম সর্তকতা অনুযায়ী নানা কর্মসূচি পালন করেছে বসিরহাট পৌরসভাও। তারপরও ডেঙ্গু আক্রান্তের ঘটনা রোধ করা গেল না বসিরহাট পুরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ডে। বেশ কিছুদিন ধরেই জ্বরের প্রকোপে জেরবার এই ওয়ার্ডের বাসিন্দারা। ওয়ার্ডের আর এন মুখার্জী রোড সংলগ্ন বাসিন্দাদের প্রায় সমস্ত বাড়িতেই চলছে জ্বরের প্রকোপ। ভয় ও আতঙ্কে চিকিৎসার পাশাপাশি চলছে মাথায় জল ঢালার কাজ। সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে রক্তের নমুনা পরীক্ষায় এপর্যন্ত বেশ কিছু বাসিন্দার শরীরে মিলেছে এন এস ১ এর জীবানু। গ্রামবাসীদের পাশাপাশি জ্বরের আতঙ্ক গ্রাস করেছে আর এন মুখার্জী রোড সংলগ্ন ওই ওয়ার্ডের অন্তর্গত কামাল মার্কেট, সারদা মার্কেট সহ বেশ কয়েকটি মার্কেটের ব্যবসায়ীদের মধ্যেও। গ্রামবাসীদের থেকে ওই এলাকার বেশি সংখ্যক ব্যবসায়ীদের শরীরেই মিলেছে ডেঙ্গুর জীবাণু। গ্রামবাসী থেকে ব্যবসায়ীদের মধ্যে ডেঙ্গু আক্রান্ত ঘটনায় গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ওয়ার্ডের কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে। এলাকায় স্প্রে, ব্লিচিং কিম্বা কামানের ধোঁওয়া কিছুই দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ। ডেঙ্গু প্রতিরোধে এ বছর আগে থেকেই পদক্ষেপ নেওয়া হলেও বসিরহাট ১১ নম্বর ওয়ার্ডের আর এন মুখার্জী রোড সংলগ্ন এলাকায় এখনো জমা জলের সমস্যা রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে গ্রামবাসীদের পক্ষ থেকে। অভিযোগ, শহরের উন্নয়নের জন্য ওই এলাকার রাস্তা উঁচু করা হলেও বেহাল নিকাশি ব্যবস্থা সংস্কারের ক্ষেত্রে কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় জমা জলের সমস্যা থেকেই গেছে ওই এলাকায়। আর সেখান থেকেই ডেঙ্গুর জীবাণু উৎপত্তি হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে আক্রান্তদের পক্ষ থেকে। ডেঙ্গু আক্রান্তের ঘটনা ও আক্রান্ত গ্রামবাসীদের অভিযোগের কথা মেনে নিয়ে এই ঘটনার জন্য বসিরহাট পৌরসভা দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে স্থানীয় কাউন্সিলর সিপিএমের শেখ শহিদুল্লাহ বলেন, ''পৌরসভার পক্ষ থেকে পরিমান মতো তেল, ব্লিচিং না মেলায় পকেটের টাকা দিয়ে আমরা কাজ করছি''। কাউন্সিলরের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে পৌরসভার চেয়ারম্যান তপন কুমার সরকার বলেন, ''পুজোর পরে দুবার তেল দেওয়া সয়েছে। আর আগে থেকেই সতর্ক করা হয়েছে সবাইকে''। তবে এবিষয়ে খবর নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন চেয়ারম্যান । হিন্দুস্থান সমাচার /পরিমল
image