Hindusthan Samachar
Banner 2 शुक्रवार, नवम्बर 16, 2018 | समय 10:53 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

মেদিনীপুরে কযেক কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত পার্ক, তছনছ হাতির তান্ডবে

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 8 2018 6:04PM
মেদিনীপুরে কযেক কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত পার্ক, তছনছ হাতির তান্ডবে
মেদিনীপুর, ৮ নভেম্বর (হি.স.) : বাম আমলের শেষ পর্যায়ে জঙ্গল মহলের বাসিন্দা ও তাদের জন্য পর্যটন কেন্দ্র গড়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল ৷ তার অঙ্গ হিসেবে পশ্চিম মেদিনীপুরের বিভিন্ন স্থানে পার্ক তৈরী হয়েছিল ৷ কিন্তু স্থানীয়দের উদাসীনতা ও হাতির তান্ডবে সেই পার্কগুলি প্রায় ধ্বংস স্তুপ ৷পরিস্থিতি এতোখানি খারাপ যে সেগুলি পুনরায় মেরামতির কথা ভাবছেনা বনদফতরও ৷ হাতির তান্ডবে জনজীবনই আতঙ্কিত এমন নয়, সৌন্দর্যায়নের জন্য তৈরী করা জঙ্গল সংলগ্ন লোকালয়ে পর্যটন কেন্দ্রগুলিও তছনছ ৷ হাতির কারনে এই ধরনের ধ্বংসস্তুপ গুলিকে পুনরুজ্জীবিত করতেও মনোবল হারিয়েছে বিভাগীয় দফতর ৷ উদাহারন হিসেবে বলা যায় জঙ্গলমহলের মেদিনীপুর সদর ব্লকের গুড়গুড়িপাল ইকোপার্ক ৷ মেদিনীপুর শহর থেকে ৭ কিমি দুরেই গুড়গুড়িপাল ৷ পীচ রাস্তার ধারে সংলগ্ন জঙ্গলের ঘেঁষে গুড়গুড়িপাল বাজারের পাশেই এই পার্ক তৈরী হয়েছিল ২০০৫ সালে ৷ সেখানে প্রায় পাঁচ একরের মতো স্থান ঘিরে এলাকা সাজিয়ে পানীয় জল,পার্ক, দোলনা সহ বিনোদনের বিভিন্ন উপকরন সাজিয়ে একটি পর্যটন ক্ষেত্র তৈরী করা হয়েছিল ৷ কয়েককোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত হয়েছিল সেটি ৷ শুরুতে সুন্দর প্রভাব ফেলেছিল সেটি ৷হাতির বা বন্যা প্রণীর রক্ষ করতে কাঁটা তার দিয়ে ঘিরে সাজানো ছিল ৷ কিন্তু উপযুক্ত নজরদারী ও হাতি নিয়ন্ত্রনের অভাবে আজ সেটি ধ্বংশ স্তুপ ৷ বারেবারে হাতি প্রবেশ করে বেশিরভাগ স্থানই ভেঙ্গে ফেলেছিল ৷ গত কয়েক দিনে সেই তান্ডব চরমে ৷ কয়েকমাস ধরেই দলমার হাতির একটি দল পার্কের পাশেই জঙ্গলে থেকে সবটাই প্রায় ভেঙ্গে ফেলেছে ৷ স্থানীয় মণিদহ পঞ্চায়েতের উপপ্রধান অঞ্জন বেরা বলেন “ স্থানীয়রা তারেক বেড়া কেটে কিছু জিনিস চুরি করে ফেলেছিল ৷ বাকিটা নষ্ট করল হাতিতে ৷ সৌন্দর্যায়নের পার্ক আজ হতশ্রী ৷ ” জানা গিয়েছে- বাম আমলের শেষ পর্যায়ে জঙ্গলমহলের মানুষের স্বার্থে বিভিন্ন এলাকায় পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছিল ৷ তার মধ্য ২০০৫ সালে গুড়গুড়িপাল ইকোপার্ক সহ চাঁদড়া ইকো পার্ক, হুগড় ইকোপার্কও রয়েছে ৷ কিন্তু একই ভাবে তিনটি পার্কের হালই ধ্বংশ স্তুপ ৷ বনদফতরের মেদিনীপুর ডিভিশনের ডিএফও রবীন্দ্রনাথ সাহা বলেন “ হাতিকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রনে না নিয়ে আসতে পারলে ওই পার্কগুলিকে পুনঃনির্মানের কথা ভাবা যাচ্ছেনা ৷ কয়েক কোটির নির্মান শেষ হয়ে গিয়েছে ৷ আমরা তাই হাতিগুলিকে আগে নিয়ন্ত্রনে আনি ৷ ”-হিন্দুস্থান সমাচার /হেনা
image