Hindusthan Samachar
Banner 2 बुधवार, नवम्बर 14, 2018 | समय 14:57 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

বৃহস্পতিবারও কমল জ্বালানির দাম

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 8 2018 9:09PM
বৃহস্পতিবারও কমল জ্বালানির দাম
কলকাতা, ৮ নভেম্বর (হি.স.) : বৃহস্পতিবারও কমল জ্বালানির দাম। আন্তর্জাতিক বাজারে কাঁচা তেলের মূল্য হ্রাসের জন্যই দেশের বাজারে জ্বালানির মূল্যে এই হ্রাস বলে জানা গেছে। কলকাতাতে লিটার পিছু পেট্রোলের দাম কমে হয়েছে ২০ পয়সা। অন্যদিকে ডিজেলের দাম কমে হয়েছে লিটার পিছু ১৮ পয়সা। বৃহস্পতিবার দুই জ্বালানির মূল্য কলকাতাতে দাঁড়িয়েছে পেট্রোল ৮০ টাকা ১৩ পয়সা। আর ডিজেল ৭৪টাকা ৭৫ পয়সা। যা গতকালের থেকে ১৮ পয়সা কম। ইন্ডিয়ান ওয়েলের ওয়েবসাইট অনুযায়ী দিল্লিতে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম লিটার পিছু ২১ পয়সা ও ১৮ পয়সা করে কমেছে। বৃহস্পতিবার দুই জ্বালানির মূল্য দিল্লিতে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৭৮ টাকা ২১ পয়সা এবং ৭২ টাকা ৮৯ পয়সা। মুম্বইয়ে পেট্রোল ও ডিজেলের লিটার পিছু কমেছে যথাক্রমে ২০ পয়সা ও ১৯ পয়সা। মুম্বাইতে দুই জ্বালানির দাম দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৮৩ টাকা ৭২ পয়সা এবং ৭৬ টাকা ৩৮ পয়সা করে। ভারতে জ্বালানির প্রায় ৮০ শতাংশ আমদানি করতে হয়। তবে একমাসেরও কম সময়ে তেলের মূল্য ব্যারেল পিছু ১৫ ডলার করে কমেছে। অক্টোবরের শুরুতে ব্রেন্টের তেলের মূল্যে ১৬ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। অন্যদিকে ডব্লুটিআই-এ হ্রাস পেয়েছে ১৮ শতাংশ। বিরোধী দল গুলোর অভিযোগ, পেট্রোল ও ডিজেলের টানা মূল্যবৃদ্ধির পর কর্নাটক বিধানসভা নির্বাচনের আগে কমেছিল এই দুই জ্বালানির মূল্য। এবারও ৫ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের আগে সেই পরিস্থিতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এর আগে, ৪ অক্টোবর পেট্রল ও ডিজ়েলের দাম লিটার পিছু ২ টাকা ৫০ পয়সা কমায় কেন্দ্রীয় সরকার। টানা দু’সপ্তাহ নাগাড়ে দাম কমছে জ্বালানির৷ পুজোর পর থেকে পেট্রলের দাম কমেছে লিটারে সাড়ে চার টাকা৷ ডিজেলের এই কমার হার কিছুটা কম৷ ডিজেলে গত দু’সপ্তাহে লিটারে দাম কমেছে দু’টাকা টাকা৷ গত জুন মাস থেকে নাগাড়ে বাড়ছিল জ্বালানির দাম৷ কবে তা ১০০ ছোবে তা নিয়ে কৌতুহল ছিল দেশবাসীর৷ পেট্রপণ্যের দাম বাড়ায় চড়া হারে বাড়ছিল নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দামও৷ নাভিশ্বাস অবস্থা দেশজুড়ে৷ এই পরিস্থিতির জন্য বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম বৃদ্ধি ও আন্তর্জাতিক বেশ কয়েকটি বিষয়কে তুলে ধরা হয় কেন্দ্রের তরফে৷ তবে জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধিকে হাতিয়ার করে বিরোধীদের নিশানায় ছিল মোদী সরকার৷ চাপের মুখে পদক্ষেপ করে কেন্দ্র৷ পেট্রল ও ডিডেজেলের লিটার প্রতি শুল্ক দেড় টাকা করে কমানোর কথা ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি৷ রাষ্ট্রায়ত্ত্ব তেল সংস্থাগুলিও এক টাকা ছাড়ের ঘোষণা করে৷ এরপর অবশ্য অক্টোবরের শেষের দিক থেকে দাম কমতে থাকে পেট্রেপণ্যের৷ কেন্দ্র জানায়, আন্তর্জাতির বাজারে দাম কমা ও ইরানের থেকে ভারত তেল কেনার বিষয়ে মার্কিন ছাড়পত্রেই দাম কমছে জ্বালানির৷ তবে যুক্তি মানতে নারাজ বিরোধী শিবির৷ পুরো বিষয়টিকেই পাঁচ রাজ্যে ভোটের আগে মোদী সরকারের কৌশলী পদক্ষেপ হিসাবেই দেখছেন তারা৷ হিন্দুস্থান সমাচার / হীরক/সঞ্জয়
image