Hindusthan Samachar
Banner 2 शुक्रवार, नवम्बर 16, 2018 | समय 10:38 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

শব্দবাজি: আইন মানে নি শহর, ক্ষুব্ধ পরিবেশবিদরা

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 8 2018 9:53PM
শব্দবাজি: আইন মানে নি শহর, ক্ষুব্ধ পরিবেশবিদরা
কলকাতা, ৮ নভেম্বর (হি.স.): সুপ্রিম কোর্টের সময়সীমার নিষেধাজ্ঞাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ক্রমাগত ফাটল চকলেট-দোদোমা-পটকা। কালীপুজো থেকে দিওয়ালি এমনকি আজও বেআব্রু করে রেখেছে গোটা শহরকে। রাতের শেষে আইন মানে নি শহরের একটা বড় অংশ। বেলা ১২টার সময়েও বাতাসে ধূলিকণার পরিমাণ ছিল ৩৩৫। আইন যদি না মানা হয় ,তবে আইন তৈরি কেনও ।আইনের রক্ষাকর্তা পুলিশরাই আমান্য করছে আইনকে। পুলিশরা নিয়ন্ত্রনে আনতে পারেনি গোটা শহরের শব্দদূষণকে। এই অমানবিকতার তীব্র প্রতিবাদ জানালেন পরিবেশবিদদের একাংশ। দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের প্রাক্তন আইনজীবী বিশ্বজিৎ মুখোপাধ্যায় জানান, পশ্চিমবঙ্গের সর্বত্র আমান্য করা হয়েছে সুপ্রিমকোর্টের সময়সীমাকে। সেই কাজকে সমর্থন জানালো আইনের রক্ষা সর্বচ্চ রক্ষাকর্তার পুলিশরাই। কলকাতা পুলিশের একাংশ নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা করলেও অনান্য অঞ্চলের পুলিশরা দায়িত্ব পালন করেনি বলে জানান তিনি। প্রয়োজনে আইন অমান্য করার জন্য এবং পুলিশের নিজের দায়িত্ব পালনে অব্যাহত হওয়ার জন্য সুপ্রিম কোর্টে অভিযোগ জানবেন বলে জানান তিনি। সুপ্রিম কোর্টের নিয়ম মানা হয়নি ঠিকই তবে, পুজোর দিনে অল্পবিস্তর নিষেধাজ্ঞা অমান্যকে সমর্থন জানান পরিবেশ রক্ষাবিদ অধ্যাপক মোহিত রায়। পরিবেশ নিয়ে কাজ করলেও একেক দিন অমান্য করলে কিছু হয় না বলেন তিনি। তবে নিয়ম বিরূদ্ধ কাজ এবং পুলিশের উদাসীনতার কোনটাই উচিত নয় বলে মনে করেন তিনি। সবুজ মঞ্চ আহ্বায়ক নব দত্ত জানান, সুপ্রিম কোর্টের কোনও নিয়ম পালন করেনি পশ্চিমবঙ্গবাসী। সেই কাজে সাধ দিয়েছে পুলিশের অধিকর্তারা যাদবপুর, গড়িয়া, দমদম, সোনারপুর, কসবা, গড়ফা আরও বেশ কিছু এলাকার পুলিশরা কোনও কাজ করেনি বলে জানান তিনি। সুপ্রিম কোর্টের সময়ের নিষেধাজ্ঞার অনেক রাত অবদি শব্দের সাথে দুষিত হয়েছে শহর বলেন তিনি। এই দূষণের ফলে শিশু এবং বয়স্করা মারাত্মকভাবে শারীরিক সমস্যায় ভুগতে পারেন। হতে পারে শ্বাসকষ্ট, অ্যালার্জি এবং ত্বকের সমস্যা। হিন্দুস্থান সমাচার / পায়েল / হীরক/সঞ্জয়
image