Hindusthan Samachar
Banner 2 गुरुवार, नवम्बर 22, 2018 | समय 16:31 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

আপডেট : আইনজীবী ছাড়াই ভিজিল্যান্স কমিশনে অলোক বর্মা, অস্বীকার করলেন সমস্ত অভিযোগ

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 9 2018 3:39PM
আপডেট : আইনজীবী ছাড়াই ভিজিল্যান্স কমিশনে অলোক বর্মা, অস্বীকার করলেন সমস্ত অভিযোগ
নয়াদিল্লি, ৯ নভেম্বর (হি.স.): সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই)-এর ‘নির্বাসিত’ ডিরেক্টর অলোক বর্মার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনেছেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা (সিবিআই)-র ‘নির্বাসিত’ স্পেশ্যাল ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানা| গত ২৬ অক্টোবর শীর্ষ আদতালতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছিল, দু’সপ্তাহের মধ্যে অলোক বর্মার বিরুদ্ধে রাকেশ আস্থানার আনা দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত করতে হবে কেন্দ্রীয় ভিজিল্যান্স কমিশনকে| সেই মতো শুক্রবার আইনজীবী ছাড়াই কেন্দ্রীয় ভিজিল্যান্স কমিশনার কে ভি চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাত্ করলেন সিবিআই-এর ‘নির্বাসিত’ ডিরেক্টর অলোক বর্মা| কে ভি চৌধুরী ছাড়াও কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, ভিজিল্যান্স কমিশনার শরদ কুমার এবং টি এম ভাসিন-সহ অন্যরা| স্বচ্ছতার স্বার্থেই এই তদন্ত কমিটির উপরে নজরদারিতে রয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি এ কে পট্টনায়েক| সূত্রের খবর, এদিন নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সমস্ত অস্বীকার করেছেন অলোক বর্মা| স্পেশ্যাল ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানার তোলা সমস্ত অভিযোগ পয়েন্ট ধরে ধরে উড়িয়ে দিয়েছেন অলোক বর্মা| প্রায় এক ঘন্টারও বেশি সময় তিনি কেন্দ্রীয় ভিজিল্যান্স কমিশনের অফিসে ছিলেন বলে জানা গিয়েছে| বৃহস্পতিবারই দুই কমিশনার কে ভি চৌধুরী এবং শরদ কুমারের সঙ্গে দেখা করেছিলেন অলোক বর্মা| কিন্তু, তদন্ত কমিটির সঙ্গে সেই বৈঠক পিছিয়ে শুক্রবার করে দেওয়া হয়, কারণ হাজির ছিলেন না আরেক ভিজিল্যান্স কমিশনার| সিবিআই-এর অর্ন্তকলহ সামাল দিতে গত অক্টোবর মাসে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নেয় নরেন্দ্র মোদী সরকার| জরুরিকালীন ভিত্তিতে সিবিআই-এর অন্তর্বর্তীকালীন ডিরেক্টর নিয়োগ করা হয় এম নাগেশ্বর রাওকে| পাশাপাশি ছুটিতে পাঠানো হয় সিবিআই ডিরেক্টর অলোক বর্মা এবং সিবিআই-এর স্পেশ্যাল ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানাকে| ছুটিতে পাঠানোর সরকারি নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন ‘নির্বাসিত’ সিবিআই ডিরেক্টর অলোক বর্মা| বর্মার অপসারণ মামলার শুনানিতে গত ২৬ অক্টোবর শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানান, আগামী ১২ নভেম্বর পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত নীতিগত সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না সিবিআই-এর ভারপ্রাপ্ত ডিরেক্টর এম নাগেশ্বর রাও| পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত না নিলেও, এই সময়ে রুটিন কাজ করতে পারবেন অলোক বর্মা| এখানেই শেষ নয়, অলোক বর্মার অপসারণ মামলায় সেন্ট্রাল ভিজিল্যান্স কমিশন (সিভিসি) এবং কেন্দ্রীয় সরকারকে নোটিশ পাঠায় সুপ্রিম কোর্ট| পাশাপাশি দু’সপ্তাহের মধ্যে সেন্ট্রাল ভিজিল্যান্স কমিশনকে তদন্ত শেষ করতে বলে সিবিআই| আগামী ১২ নভেম্বর, সোমবার এই মামলার পরবর্তী শুনানি সুপ্রিম কোর্টে| হিন্দুস্থান সমাচার/ রাকেশ
image