Hindusthan Samachar
Banner 2 बुधवार, नवम्बर 14, 2018 | समय 14:30 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

দু-বছরেও নোটবন্দির খারাপ প্রভাবমুক্ত হতে পারেনি ডিমা হাসাও : জেলা কং

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 9 2018 6:18PM
দু-বছরেও নোটবন্দির খারাপ প্রভাবমুক্ত হতে পারেনি ডিমা হাসাও : জেলা কং
হাফলং (অসম), ৯ নভেম্বর (হি.স.) : নোটবন্দির মতো সরকারের ‘অগণতান্ত্রিক’ অর্থনৈতিক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে এবার সরব হয়েছে ডিমা হাসাও জেলা কংগ্রেস। হাফলঙের রাজীব ভবনে শুক্রবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে ডিমা হাসাও জেলা কংগ্রেসের সম্পাদক কালিজয় সেঙইয়ং ২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর মধ্যরাতে নোটবন্দির যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তার তীব্র সমালোচনা করেন। সাংবাদিক সম্মেলনে কালিজয় সেঙইয়ং বলেন, দুই বছর পূর্ণ হওয়ার পরও নোটবন্দির প্রভাব থেকে বের হতে পারেননি ডিমা হাসাও জেলার মানুষ। এমন-কি গোটা দেশের সাধারণ মানুষ নোটবন্দির প্রভাব থেকে মুক্ত হতে পারেনি বলে মন্তব্য করেন কালিজয়। সরকারের এই সিদ্ধান্তের জন্য দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছেন দরিদ্র মানুষ। এমন-কি ক্ষুদ্র ও মাঝারি মানের ব্যবসায়ীরাও এই নোটবন্দির জেরে ব্যাপক দুর্ভোগের শিকার হয়েছেন। তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদী ঘোষণা করেছিলেন, নোটবন্দির পর বিদেশের ব্যাংকে গচ্ছিত কালো টাকা ফিরিয়ে আনা হবে। নোটবন্দির জেরে উগ্রপন্থী সংগঠনগুলিকে ফান্ডিং করা বন্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু নোটবন্দির দুই বছর পূর্ণ হওয়ার পরও স্যুইস ব্যাংক থেকে কালো টাকা ফিরিয়ে আনতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ মোদী সরকার। এমন-কি যাদের হাতে কালো টাকা রয়েছে তাদের কাউকেই গ্রেফতার করতেও ব্যর্থ হয়েছে সরকার। কালিজয় বলেন, নোটবন্দির ফলে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা তালানিতে গিয়ে ঠেকেছে। নোটবন্দির প্রক্রিয়ায় অনেক মানুষের প্রাণও গিয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন কালিজয় সেঙইয়ং। সাংবাদিক সম্মেলনে আরেক কংগ্রেস নেতা ডেনিয়েল লাংথাসা বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, নোটবন্দির পর কালো টাকা ফিরিয়ে আনা হবে। নোটবন্দির দরুন জঙ্গি সংগঠনগুলির অর্থের যোগান বন্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেঠলির মন্তব্য, কালো টাকা ফিরিয়ে আনার জন্য নোটবন্দি করা হয়নি। ডিজিটাল ব্যাংকিং প্রমোট করার জন্যই নাকি নোটবন্দি ছিল। কিন্তু ডিমা হাসাও জেলায় ডিজিটাল ব্যাংকিং সম্পূর্ণ মুখ থুবড়ে পড়েছে। এমন-কি নোটবন্দির পর ডিমা হাসাও জেলায় এখন পর্যন্ত নতুন ১০০ টাকা, ২০০ টাকার নোট পর্যাপ্ত আসেনি। যার প্রভাব পড়েছে বাজারে। খুচরোর সমস্যা এক বিরাট সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে পাহাড়ি জেলায়। ছোট-ছোট ব্যবসা বন্ধ হয়ে পড়েছে নোটবন্দির জেরে। তাই হঠাৎ করে নোটবন্দির সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ অগণতান্ত্রিক ছিল বলে মন্তব্য করেন ডেনিয়েল লাংথাসা। এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা কংগ্রেসের উপ-সভাপতি ওভাস্টিং পাচুয়াং মায়ানন কেমপ্রাই প্রমুখ। হিন্দুস্থান সমাচার / নিরুপম / এসকেডি\\\
image