Hindusthan Samachar
Banner 2 शनिवार, नवम्बर 17, 2018 | समय 10:07 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

এই প্রথম সেলুলয়েড বন্দি হচ্ছেন হীরালাল সেন

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 9 2018 6:51PM
এই প্রথম সেলুলয়েড বন্দি হচ্ছেন হীরালাল সেন
কলকাতা, ৯ নভেম্বর (হি. স.): বাংলা তথা ভারতীয় সিনেমা তৈরির ইতিহাস ঘাঁটলে দেখা যায় হীরালাল সেন হলেন সিনেমা তৈরির জন্মলগ্নের অন্যতম এক পরিচালক| পুরোধা বললেও কম বলা হবে তাঁকে। ক্যামেরা কিনে ভারতের প্রথম বিজ্ঞাপণ চিত্রটি তিনিই বানান। এমনকী প্রথম তথ্যচিত্রটিও তারই বানানো। উপমহাদেশের চলচ্চিত্রশিল্পের জনক হীরালাল সেনের জন্ম ১৮৬৬ সালে, ঢাকার অদূরে মানিকগঞ্জের বনজুরি গ্রামে। চলচ্চিত্র নিয়ে হীরালাল সেনের চিন্তা ছিল সে-যুগের একটি নতুন উদ্ভাবনী ও উচ্চতর শৌখিন আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন। তবে হীরালাল সেনের এ ধরনের চিন্তার প্রেরণা হিসেবে কাজ করে তাঁর ঐতিহ্যিক পরিবার ও পরিমণ্ডল। জানা যায়, হীরালালের দাদা গোকুলকৃষ্ণ সেন ছিলেন মানিকগঞ্জের বিখ্যাত জমিদার ও ঢাকার বিখ্যাত উকিল। যাঁর সাথে ছিল ঢাকার নবাব আব্দুল গনির গভীর সখ্য ও বন্ধুত্ব। হীরালালের বাবা চন্দ্রমোহন সেন ছিলেন গোকুলকৃষ্ণ সেনের যোগ্য উত্তরসূরি, যিনি এমএ ও বিএল পাস করে ঢাকা কোর্টের উকিল নিযুক্ত হন। চন্দ্রমোহন সেন বিয়ে করেন দিনাজপুরের বিখ্যাত সেরেস্তাদার শ্যামচাঁদের মেয়ে বিধুমুখীকে। এই বিখ্যাত পরিবারে জন্ম নেওয়া হীরালাল সেন মানিকগঞ্জ থেকে প্রাইমারি (মাইনর) পাঠ শেষে ঢাকার কলেজিয়েট স্কুলে পড়াশোনা করেন। তিনি সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি ফার্সি ভাষাও শিখতেন। এহেন হীরালাল সেনকে নিয়ে এর আগে তেমন কোনও উল্লেখযোগ্য কাজ হয়েছে বলে মনে পড়ে না। অথচ তিনিই ভারতীয় ছবি তৈরির উজ্জ্বল নক্ষত্র। তাঁর জীবনকাহিনি বাংলায় এই প্রথম সেলুলয়েড বন্দি করছেন অরুণ রায়। কারণ তাঁর বায়োপিক বাংলায় এই প্রথম। এর আগে ''এগারো''; ''চোলাই'' ছবি দুটিও বানিয়েছেন অরুণবাবু। ছবিটির কাজ শুরুর আগে তিনটি বছর হীরালাল সেনের জীবন নিয়ে গবেষণা করেছেন শৌনাভ বসু এবং রুদ্ররূপ মুখোপাধ্যায়। এই ছবিতে উঠে আসবে হীরালালের জীবনের অন্যান্য দিক। যা চলচ্চিত্রপ্রেমীদের তথা নির্মাতাদের খুশি করবে। অনেক অজানাকে এবার জানাবেন তাঁরা। তত্‍কালীন কলকাতাকে দেখানো হবে ছবিতে। শুটিং হয়েছে কলকাতার লাহাবাড়ি, বেলগাছিয়া রাজবাড়ি, টিটাগড় জুটমিল, ফলতা এবং মুর্শিদাবাদে। গল্পে উঠে আসবেন গিরিশ চন্দ্র ঘোষ, সুরেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, অমরেন্দ্রনাথ দত্ত''র মতো কিংবদন্তীরা। গিরিশ ঘোষের ভূমিকায় দেখা যাবে খরাজ মুখোপাধ্যায়কে। এ ছাড়াও দুটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন শংকর চক্রবর্তী এবং শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়। রয়েছেন থিয়েটারের বেশ কিছু অভিনেতা। তন্বিষ্ঠা বিশ্বাস, পার্থ সিনহা, অনুষ্কা ভট্টাচার্য, অর্ণ মুখোপাধ্যায় সহ আরও অনেকে। অনেক নবাগতকে দেখা যাবে এই ছবিতে। তবে হীরালাল সেনের চরিত্রটি কে করছেন তা চমক হিসেবেই রাখতে চাইছেন পরিচালক। ছবির সঙ্গীত বিভাগ দেখছেন ময়ূখ-মৈণাক, শিল্প নির্দেশক তপন শেঠ, ক্যামেরা সামলেছেন গোপী ভগত্‍| চিত্রনাট্য লিখেছেন পরিচালক অরুণ রায় এবং সংলাপ শৌনাভ বসু। সব মিলিয়ে ২৪ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্‍সবে ''ইন্ডিয়ান ল্যাংগুয়েজ কম্পিটিশন সেকশন'' -এ মনোনীত ''হীরালাল'' ছবিটি দর্শক এবং চলচ্চিত্র সমালোচকদের মন ভরাবে বলে আশা করা যায়। ১৮৯৬ সালে এদেশে তথা ভারত উপমহাদেশে ইউরোপিয়ানদের দ্বারা প্রথম চলচ্চিত্র প্রদর্শনের পরে হীরালাল সেনের ১৮৯৮ সালে কলকাতায় ‘রয়েল বায়োস্কোপ কোম্পানী’ প্রতিষ্ঠাকে তাঁর ‘বায়োস্কোপিক’ মূল ভিত্তি না বলে তাঁর ‘এইচএল সেন এন্ড ব্রাদার্স :অমরাবতী ফাইন আর্ট এসোসিয়েশন’কে ইউরোপিয়ানদের ‘যন্ত্রপাতির’ বায়োস্কোপিক রূপান্তর বলাটাই সমীচীন হবে। কারণ ১৮৯৬ সালে বোম্বের ওয়াটসন হোটেলের ‘শতাব্দীর বিস্ময়’ বায়োস্কোপ যখন (একই সালে) কলকাতার স্টার থিয়েটারে ইংরেজ স্টিফেন দেখাল হীরালাল সেটি দেখে সেই বায়োস্কোপের যন্ত্রপাতি ইউরোপ থেকে জোগাড় করলেন এবং ১৮৯৮ সালের ৪ ফেব্রুয়ারিতে ‘এইচএল সেন এন্ড ব্রাদার্স : অমরাবতী ফাইন আর্ট এসোসিয়েশন’-এর বায়োস্কোপিক রূপান্তরটির নাম হলো ‘রয়েল বায়োস্কোপ কোম্পানী’। ১৮৯৮ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি হীরালাল সেনের কলকাতার ‘রয়েল বায়োস্কোপ কোম্পানী’ প্রতিষ্ঠা ছিল মানিকগঞ্জের বনজুরি গ্রাম থেকে আগত ‘এইচএল সেন এন্ড ব্রাদার্স : অমরাবতী ফাইন আর্ট এসোসিয়েশন’-এর উত্কর্ষতার দ্বিতীয় রূপ। ১৮৯৮ সালে হীরালাল সেনের তোলা স্থিরচিত্র ভারতীয় শিল্প ও কৃষি প্রদর্শনীতে স্বর্ণপদক লাভ করে, যা হয়তো তাঁর রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির প্রমাণমাত্র। এখানে আরেকটি বিষয় উল্লেখ করা যায়, হীরালাল সেনের ‘মুভি শটে’ ১৯০১ সালে অমরেন্দ্র নাথ, নৃপেন্দ্র বসু, কুসুম কুমারী (প্রথম চিত্রনায়িকা), প্রমদা সুন্দরীদের অভিনয় যখন ‘ভ্রমর’, ‘আলিবাবা’, ‘হরিরাজ’, ‘দোল লীলা’, ‘যুদ্ধ’, ‘সীতারাম’ ইত্যাদি উঠে আসে। তাই উদ্যম ও গতিময় হীরালাল ভারত উপমহাদেশের চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অথবা জনক হতে পেরেছেন।হিন্দুস্থান সমাচার/ অশোক
image