Hindusthan Samachar
Banner 2 गुरुवार, अप्रैल 25, 2019 | समय 00:03 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

পুলিশ-প্রশাসনের কিছু অফিসারের নাম নালিশ যাচ্ছে নির্বাচন কমিশনে

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 9 2018 8:16PM
পুলিশ-প্রশাসনের কিছু অফিসারের নাম নালিশ যাচ্ছে নির্বাচন কমিশনে
কলকাতা, ৯ নভেম্বর (হি. স.): রাজ্যের পুলিশ-প্রশাসনের কিছু অফিসারকে জোর ধাক্কা দিতে চায় বিজেপি। আগামী ডিসেম্বরেই নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়ে তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হবে| হাফ ডজনেরও বেশি জেলাশাসক এবং প্রায় সমসংখ্যক পুলিশ সুপারের তালিকা তৈরী করছে বিজেপি| বিজেপি-র অভিযোগ, তৃণমূল শুধু দলীয় নেতাদের কথায় চলছে না, চলছে পুলিশ-প্রশাসনের বেশ কয়েক জন উচ্চপদস্থ কর্তার সক্রিয় অংশগ্রহণে— বলছে রাজ্য বিজেপি। ৬ নম্বর মুরলীধর সেন লেন সূত্রের খবর, কোন কোন সরকারি কর্তা ‘তৃণমূলের হয়ে কাজ করছেন’, তার তালিকা তৈরিও শুরু হয়ে গিয়েছে। ওই সরকারি কর্তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের দাবি জানানো হবে বলে বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে। কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, উত্তর দিনাজপুর, মালদহ, বীরভূম, পুরুলিয়া, নদিয়া, উত্তর ২৪ পরগনা— মূলত এই জেলাগুলির জেলাশাসকদের বিরুদ্ধেই বিজেপির রোষ এখন সবচেয়ে তীব্র। কোন কোন পুলিশ সুপারের নাম থাকতে পারে বিজেপির ‘কালো তালিকা’য়? তবে পুলিশের ক্ষেত্রে বিজেপির অভিযোগের ঝাঁপিতে আরও নীচের দিককার আধিকারিকদের নামও রয়েছে। বাঁকুড়া জেলার বিষ্ণুপুর মহকুমার এসডিপিও-র বিরুদ্ধে রীতিমতো ক্ষোভের আগুন জ্বলছে বিজেপিতে। রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসুর কথায়, ‘‘ওই এসডিপিও তো পুলিশ অফিসার হিসেবে কাজ করছেন না। উনি কাজ করছেন তৃণমূল নেতা হিসেবে। এলাকায় কী ভাবে তৃণমূল চলবে, কোন নেতা কোন দায়িত্ব পাবেন, কে টিকিট পাবেন, কে পাবেন না— সব সিদ্ধান্ত উনিই নেন।’’ সায়ন্তনবাবুর অভিযোগ, ‘‘বাম আমলে হুগলি জেলার গোঘাট থানার ওসি ছিলেন ওই অফিসার। সে সময়ে সিপিএমের হয়ে সন্ত্রাস কায়েম করেছিলেন এলাকায়। এখন তৃণমূলের হয়ে বিষ্ণুপুরে একই কাজ করছেন। বিজেপির নেতা, কর্মী বা সমর্থকদের একের পর এক মিথ্যা মামলায় ফাঁসাচ্ছেন।’’ বসিরহাট পুলিশ জেলা, বারাসত পুলিশ জেলা, ব্যারাকপুর কমিশনারেট এবং আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের বেশ কয়েক জন পদস্থ কর্তার বিরুদ্ধেও অভিযোগ জানানো হতে পারে বলে খবর। রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইঙ্গিত, কোচবিহারের যে সব আইসি বা ওসিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হবে, তাঁদের মধ্যে সিতাই এবং দিনহাটার আইসি বা ওসির নাম থাকতে পারে। বিজেপি যে তালিকা নির্বাচন কমিশনের হাতে তুলে দেবে, তাতে বিভিন্ন থানার আইসি বা ওসি-দের নামও থাকবে বলে জানা গিয়েছে। বিজেপির চোখে ‘ভিলেন’ হয়ে ওঠা আইসি বা ওসি-র সংখ্যা পুরুলিয়াতেই সবচেয়ে বেশি। রঘুনাথপুর, কাশীপুর, সাঁতুড়ি, পারা এবং জয়পুরের আইসি বা ওসি-দের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হবে বলে শোনা যাচ্ছে। বীরভূমেও এই সংখ্যাটা কম নয়। দুবরাজপুর, নানুর, সদাইপুরের আইসি বা ওসিরা বিজেপির ‘কালো তালিকা’য় ঠাঁই পেয়ে গিয়েছেন বলে খবর। লোকসভা নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি হওয়া মাত্রই পুলিশ-প্রশাসন জাতীয় নির্বাচন কমিশনের নিয়ন্ত্রণে চলে যাবে। তখন কমিশন যাতে ওই আধিকারিকদের সরিয়ে দিয়ে ভোটের পথে এগোয়, বিজেপির তরফে তেমন দাবিই জানানো হবে।হিন্দুস্থান সমাচার/ অশোক
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image