Hindusthan Samachar
Banner 2 शनिवार, जनवरी 19, 2019 | समय 14:25 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

সবকা সাথ সবকা বিকাশ তত্ত্ব আরও জোরদার হল, সংরক্ষণ বিলের প্রেক্ষিতে মহারাষ্ট্রে বার্তা প্রধানমন্ত্রীর

By HindusthanSamachar | Publish Date: Jan 9 2019 3:18PM
সবকা সাথ সবকা বিকাশ তত্ত্ব আরও জোরদার হল, সংরক্ষণ বিলের প্রেক্ষিতে মহারাষ্ট্রে বার্তা প্রধানমন্ত্রীর
সোলাপুর (মহারাষ্ট্র), ৯ জানুয়ারি (হি.স.): এবার থেকে সাধারণ শ্রেণির গরিবরাও দশ শতাংশ সংরক্ষণের আওতায় এলেন| শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি চাকরিতে তাঁরা এই সংরক্ষণ পাবেন| গত সোমবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে সাধারণ শ্রেণির গরিবদের জন্য সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত অনুমোদিত হয়েছে| আর মঙ্গলবার রাতে সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভায় ঐতিহাসিক এই বিল পাস হয়েছে| ওই একইদিনে লোকসভায় পাস হয়ে যায় নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল| সংরক্ষণ বিল এবং নাগরিকত্ব বিল পাস হওয়ার একদিন পর, বুধবার মহারাষ্ট্রের সোলাপুরে বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী| এদিন সোলাপুরের জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘মঙ্গলবার রাতে লোকসভায় ঐতিহাসিক বিল পাস হয়েছে| এই বিল পাস হওয়ার ফলে সাধারণ শ্রেণির গরিবদের জন্য দশ শতাংশ সংরক্ষণ চালু হবে| আমাদের নীতি হল ‘সবকা সাথ সবকা বিকাশ’, এই তত্ত্ব আরও জোরদার হল|’ মঙ্গলবারই সংসদে পাস হয় নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল| এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘মঙ্গলবার সংসদে পাস হয়েছে নাগরিক (সংশোধনী) বিল| উত্তর-পূর্ব এবং অসমের জনগণকে আমি আশ্বস্ত করতে চাই, এই সিদ্ধান্তের ফলে তাঁদের অধিকারের সঙ্গে কোনওরকম আপোস করা হবে না|’ অগাস্টা ওয়েস্টম্যান্ড চপার মামলা নিয়েও এদিন বক্তব্য রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী| প্রধানমন্ত্রীর কথায়, ‘মিডিয়ার বক্তব্য অনুযায়ী, হেলিকপ্টার চুক্তির মধ্যস্থতাকারীকে বিদেশ থেকে ভারতে আনা হয়েছে, শুধুমাত্র হেলিকপ্টার চুক্তি মামলার জন্য নয়| পূর্বতন সরকারের ফ্রান্স ফাইটার জেট চুক্তির জন্যও ভারতে আনা হয়েছে|’ প্রধানমন্ত্রীর খোঁচা, ‘মিশেল মামার ব্যবসায়িক স্বার্থেই কি ওই চুক্তি থমকে গিয়েছিল? এমন ধরনের বহু প্রশ্নের উত্তর খুঁজছে তদন্তকারী সংস্থা, দেশের জনগণও এখন উত্তর চাইছে|’ উল্লেখ্য, বুধবার মহারাষ্ট্রের সোলাপুরের জনসভা থেকে ২১১ নম্বর জাতীয় সড়কের চারটি-লেন বিশিষ্ট সোলাপুর-ওসমানাবাদ সেকশনের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী| এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় ১৮১১ কোটি টাকার হাউজিং প্রোজেক্টের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী| এই হাউজিং প্রকল্পে সৌজন্যে উপকৃত হবেন কাগজ কুড়ানি থেকে শুরু করে রিক্সা চালক এবং বিড়ি শিল্পের সঙ্গে জড়িত শ্রমিকরা| প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতীন গড়কড়ি, মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল সি বিদ্যাসাগর রাও এবং মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবিশ প্রমুখ| প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার রাত তখন দশটা হবে, লোকসভায় ভোটাভুটির পর পাঁচ মিনিটের মধ্যেই পাশ হয়ে যায় ‘গরিবদের জন্য সংরক্ষণ’ বিল| তার আগে অবশ্য ৫ ঘন্টা ধরে বিতর্ক চলে| হিন্দুস্থান সমাচার/ রাকেশ
image