Hindusthan Samachar
Banner 2 रविवार, मार्च 24, 2019 | समय 06:02 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

থমথমে জিরানিয়ার মাধববাড়ি, উদ্ধার পিস্তল, ত্রিপুরায় সাময়িক বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা

By HindusthanSamachar | Publish Date: Jan 9 2019 7:06PM
থমথমে জিরানিয়ার মাধববাড়ি, উদ্ধার পিস্তল, ত্রিপুরায় সাময়িক বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা
আগরতলা, ৯ জানুয়ারি, (হি.স.) : গতকাল মঙ্গলবার নেসো আহূত ১১ ঘণ্টার জেরে জিরানিয়ার মাধববাড়ি বাস টার্মিনাল এলাকায় সংঘটিত ঘটনাকে কেন্দ্র করে আজ বুধবারও থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে অঞ্চলে। গোটা এলাকায় চলছে আধাসেনার সশস্ত্র টহল। ইতিমধ্যে গন্ডগোল পাকানোর চেষ্টা রোধ করতে ত্রিপুরাজুড়ে সাময়িকভাবে অচল করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা। সরকারিভাবে জানানো হয়েছে, সম্ভাব্য অশান্তি থেকে রাজ্যকে রক্ষা করতে আগামী ৪৮ ঘণ্টা ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। এদিকে বনধ-এর নামে গতকাল জিরানিয়ার মাধববাড়ি বাস টার্মিনাল এলাকায় দোকানপাটে অগ্নিসংযোগ, সড়ক অবরোধ করে গাড়িতে ভাঙচুর এবং গুলি বর্ষণ সংক্রান্ত ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। তদন্ত অভিযানে ঘটনাস্থলের পার্শ্ববর্তী জঙ্গলাকীর্ণ ঝোপ থেকে কার্তুজ ভরতি একটি দেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ এখন তদন্ত করছে, গতকাল ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধারকৃত গুলির শূন্য খোলগুলো এই পিস্তল থেকে ছোঁড়া হয়েছিল কিনা। প্রসঙ্গত, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি)-এর বিরুদ্ধে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের যৌথ ছাত্র সংগঠন উত্তরপূর্ব স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশন (নেসো) আহূত মঙ্গলবার ভোর পাঁচটা থেকে বনধ-কে কেন্দ্র করে আগরতলার পার্শ্ববর্তী জিরানিয়ার পরিস্থিতি উত্তাল হয়ে উঠেছিল। জিরানিয়ার মাধববাড়ি বাস টার্মিনাল এলাকায় অবরোধ গড়েছিল আইপিএফটি এবং উপজাতি ছাত্র সংগঠন তুপ্রা ছাত্র ফেডারেশন। অবরোধ চলাকালীন আচমকা লাগোয়া দোকানপাটে অগ্নিসংযোগ করে দেয় ছাত্র সংগঠনের কতিপয় উন্মত্ত সদস্য। আগুনে ১৪টি দোকান পোড়ে ছাই হয়ে যায়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও বনধ সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়ালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ প্রথমে লাঠিচার্জ এবং পরে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে। এতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রিত না হওয়ায় পুলিশ রবার গুলি ছোঁড়ে। পুলিশের লাঠির ঘায়ে ছয় জন পিকেটার্স আহত হয়েছিলেন। আহতের মধ্যে দুজনকে আগরতলা মেডিক্যাল গভর্নমেন্ট কলেজ অ্যান্ড জিবিপি হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় এবং বাকি চারজনকে খুমলুঙ হাসপাতালে নিয়ে ভরতি করা হয়েছে। এলাকায় ১৪৪ ধারা বলবৎ করা হয়েছে। টহল দিচ্ছে আধাসেনা বাহিনীর জওয়ান। হিন্দুস্থান সমাচার / নবেন্দু / এসকেডি
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image