Hindusthan Samachar
Banner 2 मंगलवार, मार्च 19, 2019 | समय 21:09 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

লিড…বিরোধীরা প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে অপমান করেছে : প্রধানমন্ত্রী

By HindusthanSamachar | Publish Date: Jan 9 2019 9:46PM
লিড…বিরোধীরা প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে অপমান করেছে : প্রধানমন্ত্রী
আগ্রা, ৯ জানুয়ারি (হি.স.) : রাফাল নিয়ে পাল্টা কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নিজেদের ব্যক্তিগত স্বার্থের জন্য মহিলা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর নিন্দা করেছে বিরোধীরা বলে জানিয়েছেন তিনি। রাজস্থানের জনসভা থেকে পাল্টা রাহুল গান্ধী দাবি করেছেন, রাফাল নিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী দুই ঘন্টা সংসদে বিতর্ক করেছেন। সেই সময় পঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। আমাদের তোলা কোনও প্রশ্নেরও জবাব দেননি প্রতিরক্ষামন্ত্রী। মহারাষ্ট্রের সোলাপুরের এক জনসভায় বুধবার নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘রাফালের প্রতিদ্বন্দ্বী বেশ কয়েকটি সংস্থার সঙ্গে জড়িত ছিল মিশেল মামা।’ বুধবার উত্তরপ্রদেশের আগ্রার জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের প্রথম মহিলা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর জন্য আমরা গর্বিত। দেশের নিরাপত্তা দেখভাল তিনি করছেন আবার সংসদে বক্তব্য রেখে বিরোধীদের বাকরুদ্ধ করে দিচ্ছেন। কিন্তু বিরোধীরা প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে অসম্মান করেছেন। এর ফলে অসম্মানিত হয়েছে গোটা দেশের নারী শক্তি। ভবিষ্যতে এই সকল নেতাদের উচিত শিক্ষা দেবে দেশ।’ প্রসঙ্গত, রাফাল চুক্তি প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সরব হয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, ''প্রধানমন্ত্রী সংসদে আসছেন না। নিজের মুখটাও দেখাচ্ছেন না। রাফাল নিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী দুই ঘন্টা সংসদে বিতর্ক করেছেন। সেই সময় পঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। আমাদের তোলা কোনও প্রশ্নেরও জবাব দেননি প্রতিরক্ষামন্ত্রী।’ বিজেপি বিরোধী মহাজোটকে কটাক্ষ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, চৌকিদারের সততাকে ভয় পেয়েছেন দুর্নীতিগ্রস্ত নেতারা। এখন তাই দলবদ্ধ হয়ে আমাকে সরাতে চাইছে। কিন্তু আমি আমার সততার থেকে সরে আসব না। দেশ এবং জনগণের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখব। দুর্নীতিগ্রস্তদের বিরুদ্ধে তদন্ত চলবে। উচ্চবর্ণের সংরক্ষণের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, ৭০ বছর পর উচ্চবর্ণের আর্থিক ভাবে দুর্বল মানুষেরা নিজেদের অধিকার বুঝে পেল। এর মাধ্যমে ভবিষ্যৎ ভারতের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছে এনডিএ সরকার। এর ফলে সাম্যের অধিকার পেল গরিবেরা। এর জন্য সকল দেশবাসীকে আমি আমার কৃতজ্ঞতা জানাই। সাম্য এবং সৌহার্দ্যের শক্তিশালী হয়েছে। এদিন প্রধানমন্ত্রী আগ্রায় ৩৯০০ কোটি টাকার প্রকল্পে ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপন করেন। জিএসটি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জিএসটিকে বাড়তি করের বোঝা হিসেবে দেখাটা ঠিক নয়। এই কর নীতির ফলে পণ্য ও পরিষেবার উপর থেকে এক ডজন করের বোঝা কমে গিয়েছে। জিএসটি নিয়ে বিরোধীরা অপপ্রচার চালাচ্ছে। বিরোধী জোটকে কটাক্ষ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, রাজনৈতিক ময়দানে যেসব রাজনৈতিক দল একে অন্যের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল। তারা এখন আমাকে হটানোর জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। মিথ্যা প্রচার করা স্বার্থপর লোকেদের কাছ থেকে সতর্ক হওয়া উচিত। কৃষিতে সার্বিক উন্নয়নের জন্য দ্বিতীয় সবুজ বিপ্লবের ডাক দিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। পাশাপাশি ২০১৯ নির্বাচনের পর কেন্দ্রে ক্ষমতায় এলে দেশজুড়ে কৃষকদের ঋণ মকুব করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি ৫৬ ইঞ্চি ছাতির প্রধানমন্ত্রী লোকসভা রাফালে ইস্যুতে একটি কথাও বলেননি। বুধবার রাজস্থানের জয়পুরে কৃষক সমাবেশে গিয়ে এই ভাষাতেই ফের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কটাক্ষ করলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। রাফালে চুক্তি ইস্যুতে মোদিকে তোপ দেগে তাঁর মন্তব্য, ‘লোকসভায় আড়াই ঘণ্টা কথা বলেছিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। কিন্তু আমরা প্রতিটি মিথ্যাই প্রমাণ করে দিয়েছি। আমাদের সরাসরি প্রশ্নগুলির কোনও উত্তর ছিল না তাঁর কাছে। জনতার আদালত থেকে পালিয়ে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী’। বুধবার রাজস্থানের জয়পুরে নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেন, ‘২০১৯ সালে কেন্দ্রে যখন আমরা সরকার গঠন করব তখন গোটা দেশের কৃষকদের ঋণ মকুব করে দেব। কৃষকদের দুর্দশা দূর করতে এটাই হবে প্রথম পদক্ষেপ। যে সবুজ বিপ্লবের মাধ্যমে গোটা দেশ খাদ্যশস্য স্বাবলম্বী হয়েছিল। এখন কৃষকদের দুর্দশা দূর করার জন্য দ্বিতীয় সবুজ বিপ্লব দরকার। কৃষি ক্ষেতের সামনে খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। বিশ্বমানের ফুডপার্ক তৈরি করা হবে। পুরোদমে কৃষকদের স্বার্থে আমরা কাজ করব। তিন রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের জয় প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেন, কৃষকদের শক্তি টের পেয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। কংগ্রেসের ভয় এবার হয়তো মোদী সরকার কৃষকদের ঋণও মকুব করে দেবে। এদিনের জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করে রাহুল গান্ধী বলেন, নোটবন্দির ফলে ছোট ব্যবসায়ীরা সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) ভারতের বিত্তবানদের ঋণমুকুব কর দিয়েছেন। কিন্তু কতজন নতুন উদ্যোগপতিরা মোদী সরকার থেকে সুবিধে পেয়েছে। আমরা প্রধানমন্ত্রীকে অসম্মান করতে চাই না। কিন্তু রাফাল চুক্তিতে অনিল আম্বানি ৩০,০০০ কোটি টাকা পেয়েছে। এর তদন্তের জন্য যৌথ সংসদীয় কমিটি গড়তে হবে। রাফাল চুক্তি প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সরব হয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, প্রধানমন্ত্রী সংসদে আসছেন না। নিজের মুখটাও দেখাচ্ছেন না। রাফাল নিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী দুই ঘন্টা সংসদে বিতর্ক করেছেন। সেই সময় পঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। আমাদের তোলা কোনও প্রশ্নেরও জবাব দেননি প্রতিরক্ষামন্ত্রী। এদিনের জনসভায় উপস্থিত ছিলেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট, উপ-মুখ্যমন্ত্রী সচিন পাইলট। এবার থেকে সাধারণ শ্রেণির গরিবরাও দশ শতাংশ সংরক্ষণের আওতায় এলেন| শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি চাকরিতে তাঁরা এই সংরক্ষণ পাবেন| গত সোমবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে সাধারণ শ্রেণির গরিবদের জন্য সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত অনুমোদিত হয়েছে| আর মঙ্গলবার রাতে সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভায় ঐতিহাসিক এই বিল পাস হয়েছে| ওই একইদিনে লোকসভায় পাস হয়ে যায় নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল| সংরক্ষণ বিল এবং নাগরিকত্ব বিল পাস হওয়ার একদিন পর, বুধবার মহারাষ্ট্রের সোলাপুরে বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী| এদিন সোলাপুরের জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘মঙ্গলবার রাতে লোকসভায় ঐতিহাসিক বিল পাস হয়েছে| এই বিল পাস হওয়ার ফলে সাধারণ শ্রেণির গরিবদের জন্য দশ শতাংশ সংরক্ষণ চালু হবে| আমাদের নীতি হল ‘সবকা সাথ সবকা বিকাশ’, এই তত্ত্ব আরও জোরদার হল|’ মঙ্গলবারই সংসদে পাস হয় নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল| এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘মঙ্গলবার সংসদে পাস হয়েছে নাগরিক (সংশোধনী) বিল| উত্তর-পূর্ব এবং অসমের জনগণকে আমি আশ্বস্ত করতে চাই, এই সিদ্ধান্তের ফলে তাঁদের অধিকারের সঙ্গে কোনওরকম আপোস করা হবে না|’ অগাস্টা ওয়েস্টম্যান্ড চপার মামলা নিয়েও এদিন বক্তব্য রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী| প্রধানমন্ত্রীর কথায়, ‘মিডিয়ার বক্তব্য অনুযায়ী, হেলিকপ্টার চুক্তির মধ্যস্থতাকারীকে বিদেশ থেকে ভারতে আনা হয়েছে, শুধুমাত্র হেলিকপ্টার চুক্তি মামলার জন্য নয়| পূর্বতন সরকারের ফ্রান্স ফাইটার জেট চুক্তির জন্যও ভারতে আনা হয়েছে|’ প্রধানমন্ত্রীর খোঁচা, ‘মিশেল মামার ব্যবসায়িক স্বার্থেই কি ওই চুক্তি থমকে গিয়েছিল? এমন ধরনের বহু প্রশ্নের উত্তর খুঁজছে তদন্তকারী সংস্থা, দেশের জনগণও এখন উত্তর চাইছে|’ উল্লেখ্য, বুধবার মহারাষ্ট্রের সোলাপুরের জনসভা থেকে ২১১ নম্বর জাতীয় সড়কের চারটি-লেন বিশিষ্ট সোলাপুর-ওসমানাবাদ সেকশনের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী| এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় ১৮১১ কোটি টাকার হাউজিং প্রোজেক্টের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী| এই হাউজিং প্রকল্পে সৌজন্যে উপকৃত হবেন কাগজ কুড়ানি থেকে শুরু করে রিক্সা চালক এবং বিড়ি শিল্পের সঙ্গে জড়িত শ্রমিকরা| প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতীন গড়কড়ি, মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল সি বিদ্যাসাগর রাও এবং মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবিশ প্রমুখ| প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার রাত তখন দশটা হবে, লোকসভায় ভোটাভুটির পর পাঁচ মিনিটের মধ্যেই পাশ হয়ে যায় ‘গরিবদের জন্য সংরক্ষণ’ বিল| তার আগে অবশ্য ৫ ঘন্টা ধরে বিতর্ক চলে| হিন্দুস্থান সমাচার/শুভঙ্কর/রাকেশ/সঞ্জয়/
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image