Hindusthan Samachar
Banner 2 शनिवार, जनवरी 19, 2019 | समय 19:38 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

দূষণ ছড়ানোয় এগিয়ে ফুটপাথের খাবারের দোকান

By HindusthanSamachar | Publish Date: Jan 10 2019 6:47PM
দূষণ ছড়ানোয় এগিয়ে ফুটপাথের খাবারের দোকান
কলকাতা, ১০ জানুয়ারি (হি.স.): বায়ু দূষণের চাদর সরিয়ে যেন মাথা তুলে দাঁড়াতেই পারছে না শহর কলকাতা । গাড়ির ধোঁয়াকে পেছনে ফেলে এখন দূষণ বাড়ানোয় পাল্লা দিয়েছে ফুটপথের খাওয়ারের দোকানগুলো । বিভিন্ন ধরনের মুখরোচক ফাস্ট ফুডের দোকানগুলোর উনুন থেকে নির্গত ধোঁয়ার ফলে বায়ু দূষণের পারদ ক্রমেই বেড়ে চলেছে । কলকাতায় বহু অফিসযাত্রী মধ্যাহ্নভোজ সারেন এই ফুটের দোকানগুলো থেকেই । ফলে বিভিন্ন অফিস, কলেজের সামনে ব্যাঙের ছাতার মত গজিয়ে উঠছে এই দোকানগুলো । এরা ক্রেতাদের পছন্দমত খাবার তুলে দিতে নিত্য নতুন খাবার বানাচ্ছেন রোজ । যার মধ্যে রোল, চাউমিন, তন্দুরি জাতীয় খাবারই প্রধান । এদের কারোর ট্রেড লাইসেন্স আছে তো কারোর নেই । তন্দুরি জাতীয় খাবার তৈরি করতে মূলত কয়লা বা কাঠ কয়লার উনুন ব্যবহার করা হয় । খোলা আকাশের নিচে এই ভাবে খাওয়ার প্রস্তুত করার জন্য দূষণও বাড়ে লাফিয়ে লাফিয়ে । ফলস্বরূপ খাদ্যকনার সাথে বাতাসেও মিশে যায় এই পোঁড়া কাঠ কয়লার কণা । বাতাসে এই ধূলিকনার পরিমাপ পি এম ২.৫ থেকে বেড়ে পি এম ১০ পর্যন্ত ঠেকেছে । পরিবেশবিদ সোমেন্দ্র মোহন ঘোষ ‘ হিন্দুস্থান সমাচার’কে বলেন, “আমরা হাইকোর্ট, শিয়ালদহ স্টেশন, বালিগঞ্জ স্টেশন, রাসবিহারী, লেক মার্কেট ও প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোড নিয়ে ৫টি এরিয়ায় সমীক্ষা করেছি । আটার রুটি তৈরির সময় পোঁড়া আটার গুঁড়ো বাতাসে মিশে যথেষ্ট পরিবেশকে দূষিত করে চলেছে”। তিনি আরও জানান, “এই বিষয়ে মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে চিঠি দিয়েছি আজকে আশা করি উনি কিছু ব্যবস্থা নেবেন”। তাঁদের সমীক্ষা পত্র বলছে, হাইকোর্ট চত্বরে দোকান খোলার আগে বাতাসে ধূলিকণার পরিমান ছিল ৩০০এমজি/কিউবিক মিটার(সিউ) । এবং দোকান খোলার পর ধূলিকণার পরিমান ছিল ৩৬০এমজি / কিউবিক মিটার(সিউ) । প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডে দোকান খোলার আগে বাতাসে ধূলিকণার পরিমান ছিল ২৫০এমজি / কিউবিক মিটার (সিউ) । এবং দোকান খোলার পর ধূলিকণার পরিমান ছিল ৩০০এমজি / কিউবিক মিটার (সিউ) । শিয়ালদহ স্টেশনে দোকান খোলার আগে সকাল ৮টায় বাতাসে ধূলিকণার পরিমান ছিল ৩৫০এমজি / কিউবিক মিটার (সিউ) । এবং দোকান খোলার পরে সকাল ৯টা নাগাদ বাতাসে ধূলিকনার পরিমান ছিল ৪৩০এমজি / কিউবিক মিটার (সিউ) । বালিগঞ্জ স্টেশন চত্বরে দোকান খোলার আগে বাতাসে ধূলিকণার পরিমান ছিল ২৩০এমজি / কিউবিক মিটার(সিউ) । দোকান খোলার আগে বাতাসে ধূলিকণার পরিমান ছিল ২৮০এমজি / কিউবিক মিটার(সিউ) । লেক মার্কেটে তন্দুরি জাতীয় খাবারের দোকান খোলার আগে বাতাসে ধূলিকণার পরিমান ছিল ২৮০এমজি / কিউবিক মিটার(সিউ) । দোকান খোলার আগে বাতাসে ধূলিকণার পরিমান ছিল ৩৪০এমজি / কিউবিক মিটার (সিউ) । হিন্দুস্থান সমাচার / মৌসুমী / হীরক
image