Hindusthan Samachar
Banner 2 शनिवार, जनवरी 19, 2019 | समय 20:08 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

বেআইনি হোর্ডিংয়ের দৌরাত্ম রুখতে বাজারে এল ‘তথ্য় সন্ধানী’

By HindusthanSamachar | Publish Date: Jan 10 2019 9:19PM
বেআইনি হোর্ডিংয়ের দৌরাত্ম রুখতে বাজারে এল  ‘তথ্য় সন্ধানী’
কলকাতা, ১০ জানুয়ারি(হি.স.): বেআইনি হোর্ডিংয়ের দৌরাত্ম থেকে রক্ষা পেতে কলকাতা পুরসভা বাজারে নিয়ে এল এক নতুন ধরনের এপ্লিকেশন | আজ বৃহস্পতিবার পুরভবনে মেয়র পারিষদ দেবাশীষ কুমার এই এপ্লিকেশনের সূচনা করলেন| এবার থেকে কোনও এলাকার হোর্ডিং আইনীভাবে লাগানো হয়েছে কিনা সেই নিয়ে কোনও সন্দেহ থাকলে তা সহজেই পরিষ্কার হয়ে যাবে ‘তথ্য় সন্ধানী’ নামক ওই অ্যাপের মাধ্যমে| এদিন দেবাশীষবাবু জানান, পুরসভার সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মীরা মিলেই এই অ্যাপ তৈরী করেছেন| এখন আপাতত শুধু পুরসভার বিজ্ঞাপন বিভাগের ইন্স্পেকটাররাই এই অ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন | ধীরে ধীরে সাধারণ মানুষও যাতে এই অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন সেইদিকেও নজর দেবে পুর দফতর| কিভাবে কাজ করবে এই ‘তথ্য় সন্ধানী’ ? সংশ্লিষ্ট বিভাগের এক কর্মী বলেন, যখনই আমাদের কাছে বিজ্ঞাপনের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন আসবে তখনই আমরা সেই এলাকায় গিয়ে অ্যাপের মাধ্যমে এই বিজ্ঞাপনের ছবি তুলে আপলোড করে দেব অ্যাপে| সাথে সাথে দ্রাঘিমাংশ ও অক্ষাংশ নিরুপনও হয়ে যাবে| এতে একঘন্টার মধ্যেই হোর্ডিংটির আইনি বৈধতা জানা যাবে | প্রতিমাসে একদিন নিয়ম করে নৈশ অভিযানও চালানো হবে| যাতে করে কেউ আর বেআইনি হোর্ডিং লাগাতে না পারে| এই বিষয়ে চলতি সপ্তাহে মেয়র বলেছিলেন, “এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী শহরে হোর্ডিংয়ের ব্যবসা করছেন পুরসভাকে কর না দিয়েই। তাঁদের চিহ্নিত করতে অ্যাপের সাহায্য নেওয়া হবে”| ফিরহাদ হাকিম আরও জানিয়েছেন, শহরে যাঁরা হোর্ডিংয়ের ব্যবসা করেন, তাঁদের বলা হয়েছে ফ্লেক্সের বদলে এলইডি ও ক্যানভাস ব্যবহার করতে। কারণ, ফ্লেক্স থেকে পরিবেশ নষ্ট হয় এবং সেগুলি ছিঁড়ে রাস্তার ধারে নর্দমায় পড়ে থাকে। এই দূষণগুলো এড়াতেই ফ্লেক্স ব্যবহার বন্ধ করার অনুরোধ করা হচ্ছে| এদিন মেয়র পারিষদ দেবাশীষ কুমার জানান, শহরের কোন রাস্তায় কত হোর্ডিং রয়েছে এবং সেগুলির মধ্যে কোনটা বৈধ, কোনটা অবৈধ এ সব কিছুর খুঁটিনাটি ধরা পরবে অ্যাপে। কোন হোর্ডিংয়ের বিজ্ঞাপন কর এবং ভাড়া কত, তাও জানা যাবে ওই অ্যাপের মাধ্যমে। ওই অ্যাপের মনিটর বসানো থাকবে পুর ভবনে সংশ্লিষ্ট দফতরের চিফ ম্যানেজারের ঘরে। তিনিই সব কিছু নজরে রাখবেন। প্রয়োজনে কড়া ব্যবস্থা নেবেন। হিন্দুস্থান সমাচার/মৌসুমী / কাকলি
image