Hindusthan Samachar
Banner 2 शनिवार, जनवरी 19, 2019 | समय 14:16 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

জয়নগর শুট আউট মূল পান্ডা বাবুয়া গ্রেফতার দিল্লি থেকে

By HindusthanSamachar | Publish Date: Jan 11 2019 12:55PM
জয়নগর শুট আউট মূল পান্ডা বাবুয়া গ্রেফতার দিল্লি থেকে
জয়নগর, ১১ জানুয়ারি (হি.স.) : জয়নগর শুটআউট কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত বাবুয়া গ্রেফতার। দিল্লি থেকে গ্রেফতার করা হয় তাকে। গ্রেফতার করে সিআইডি। ধৃত বাবুয়াকে ট্রানজিট রিমান্ডে কলকাতায় নিয়ে আসতে চায় সিআইডি। ট্রানজিট রিমান্ডের জন্য আজই আবেদন জানাবে সিআইডি। শুক্রবার বা শনিবার ধৃত বাবুয়াকে কলকাতায় নিয়ে আসা হবে। বাবুয়ার সাথে আরও দুজনকে গ্রেফতার করেছে সি আই ডি। জয়নগর শুটআউটের ব্লু প্রিন্ট তৈরি হয়েছিল মাসখানেক আগেই। ধৃতদের জেরা করে এমন তথ্যই উঠে আসে। ধৃত সাজমল জেরায় জানায়, বাবুয়া সরফুদ্দিনের শত্রুর শত্রুদের জড়ো করার চেষ্টা করছিল। সেই অনুযায়ী বেশ কয়েকটি দল সেদিন একত্রিত হয় সরফুদ্দিনের বিরুদ্ধে। প্রসঙ্গত, বিধায়ক ঘনিষ্ঠ হওয়ায় সরফুদ্দিনের ক্ষমতা বাড়ছিল। আর তার ফলে প্রভাব কমছিল বাবুয়ার। পাশাপাশি এলাকার অন্যান্য জমি ব্যবসায়ীরা, সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীরা সারফুদ্দিন এর জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিলেন। তাই সকলে মিলে এই সারফুদ্দীনকে খুনের পরিকল্পনা করে। পুরনো শত্রুতার জেরেই যে খুনের ঘটনা ঘটেছিল, প্রাথমিক তদন্তের পর সেটা নিশ্চিত হয়ে যায় পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানতে পারে, জয়নগর খুন কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত বাবুয়ার বেড়ে ওঠা একদিনে নয়। ধীরে ধীরে নিজের সাম্রাজ্য বাড়িয়েছে বাবুয়া। জয়নগর,বহড়ু, মথুরাপুর পর্যন্ত নেটওয়ার্ক ছিল বাবুয়ার। তোলাবাজি, প্রোমোটিং, বেদখলি জমি বিক্রি , ভোটের সময় নেতাদের অ্যাকশন স্কোয়াডের পান্ডা, সব দিকেই বাবুয়ার ছিল অবাধ যাতায়াত। এখন রয়েছে মাছ রফতানির ব্যবসা, মোটর সাইকেলের শোরুম। একসময় এলাকার তৃণমূল বিধায়ক বিশ্বনাথ দাসের ঘনিষ্ঠ হিসাবেই পরিচিত ছিল বাবুয়া। কিন্তু সরফুদ্দিনের বাড়বাড়ন্ত, বিধায়কের আস্থাভাজন হয়ে ওঠায় বিশ্বনাথ দাসের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয় বাবুয়ার। এরপরই বাবুয়া দল বদলে ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠে বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা গৌর সরকারের। তারপর থেকেই বিশ্বনাথ ঘনিষ্ঠ সরফুদ্দিনের সঙ্গে বেশকয়েকবার ঝামেলা হয় বাবুয়ার। এলাকায় ক্ষমতা দখল নিয়ে সরফুদ্দিনের সঙ্গে প্রায়ই ঝামেলা লাগত বাবুয়ার। সরফুদ্দিনের উপর বোমাবাজি,হামলাতে আগেই নাম জড়িয়েছিল বাবুয়ার। পুলিসের অনুমান, সেই থেকেই সরফুদ্দিনকে খুনের ছক কষে বাবুয়া। সরফুদ্দিনকে সরিয়ে দিতে পারলে এলাকা দখল সুবিধাজনক হবে এই ভাবনা থেকেই খুনের ব্লু প্রিন্ট তৈরি করে বাবুয়া। শুটআউটের ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিল বাবুয়া।হিন্দুস্থান সমাচার /প্রসেনজিত /সোনালি
image