Hindusthan Samachar
Banner 2 मंगलवार, मार्च 19, 2019 | समय 20:15 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

বিরল অস্ত্রোপচার করে নজির গড়‍ল রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল

By HindusthanSamachar | Publish Date: Jan 11 2019 2:26PM
বিরল অস্ত্রোপচার করে নজির গড়‍ল রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল
রামপুরহাট, ১১ জানুয়রি(হি.স) : এক ১২ বছরের ছাত্রীর বিরল অস্ত্রোপচার করে নজির গড়ল রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল। তবে এবার কোন রোগী মৃত্যু বা ঝুট ঝামেলাকে কেন্দ্র করে নয়, এবার খবরের শিরোনামে উঠে এলো এক ১২ বছরের ছাত্রীর প্রাণ ফিরিয়ে দিয়ে। গ্রামের মাঠে ঘাস কাটতে গিয়ে পা পিছলে পড়ে এক ১২ বছরের ক্লাস ফাইভের ছাত্রী। পড়ে যাওয়ার সাথে সাথেই হাতের কাস্তে ফসকে ঢুকে যায় ওই ছাত্রীর গালে। কাস্তে গালে ঢুকে যাওয়ার পর যন্ত্রণায় কাতর হয়ে ওই ছাত্রী চিৎকার করতে থাকে। বাড়ির লোকেরাও হতভম্ব হয়ে পড়ে কি করবে এই ভেবে। দুর্ঘটনায় আহত ওই ছাত্রীর নাম সমু মাল। বাড়ি বীরভূম লাগোয়া ঝাড়খণ্ডের ধমকাপাড়া পঞ্চায়েতের ঘনশ্যামপুর গ্রামে। সঙ্গে সঙ্গে তাকে নিয়ে আসা হয় রামপুরহাট সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে। এ প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো, রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল, যার উপর নির্ভরশীল শুধু বীরভূমের একাংশই নয়, রয়েছে বীরভূমের পার্শ্ববর্তী জেলা মুর্শিদাবাদের বেশ কিছু অংশ, রয়েছে বীরভূমের পার্শ্ববর্তী রাজ্য ঝাড়খণ্ডের বেশ কিছু অংশ। হাসপাতলে আসার পর ওই ছাত্রীকে ভর্তি করা হয় ডাঃ তরুন কান্তি করের তত্ত্বাবধানে পড়েন। চিকিৎসক তরুণ কান্তি কর ঘটনার বেগতিক দেখে কোনরকম চিন্তাভাবনা না করেই ওটিতে তড়িঘড়ি অস্ত্রপ্রচারের ব্যবস্থা করেন। তড়িঘড়ি অস্ত্রোপচারের পর ওই ছাত্রী আপাতত সুস্থ। বীরভূমে যে সমস্ত সরকারি হাসপাতাল রয়েছে, সেই সমস্ত সরকারি হাসপাতালের ক্ষেত্রে আজীবন একটা বদনাম রয়েইছে - বড় কিছু ঘটনা ঘটলেই নাকি এই সমস্ত হাসপাতাল থেকে রোগীকে চিকিৎসা না করে বা বলা যেতে পারে ঝুঁকি না নিয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হয় অন্যত্র বড় হাসপাতালে। কিন্তু বর্তমানে সময় বদলেছে, তার দৃষ্টান্ত একের পর এক বীরভূমের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে তড়িঘড়ি সিদ্ধান্তে মানুষের প্রাণ ভরিয়ে দেওয়ার ঘটনায়। শুধু রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালই নয়, এর আগেও আমরা এরকম বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত তৈরি করা লক্ষ্য করেছি সিউড়ি ও বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালেরও। গতকালের এই ঘটনা সম্পর্কে ওই ছাত্রীর মুখ থেকে জানা গিয়েছে, গতকাল বেলা ৩টে নাগাদ কয়েকজন সঙ্গীর সাথে বাড়ীর গবাদী পশুর জন্য ঘাস কাটতে যায়। তারপরই ঘটনাটি ঘটে। আহত এই ছাত্রীর মা শাওনী মাল জানান, "বাড়ির গবাদী পশুর জন্য ঘাস কাটতে গিয়ে এই বিপদ ঘটেছে। কাস্তে গালে ঢোকা অবস্থায় রামপুরহাট হাসপাতালে নিয়ে এলে ডাক্তারবাবুরা অপারেশন করে আমার মেয়ের প্রাণ ফিরিয়ে দিয়েছেন। আপাতত আমার মেয়ে সুস্থ।" রামপুরহাট সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালের ই.এন.টি. বিভাগের ডাক্তার তরুন কান্তি কর অর্থাৎ যিনি এই পুরো কর্মকান্ডের কান্ডারি তিনি জানান, “অপরাশেন সফল হয়েছে, তবে পরে কিছু মুখ মন্ডলের পরীক্ষা করাতে বাইরে যেতে হতে পারে। যে পরীক্ষাগুলি আপতত আমাদের এখানে চালু হয় নি। খুব শীঘ্র হয়ে যাবে।আপতত বাচ্চাটি সুস্থ আছে।" এ প্রসঙ্গে আরো বলে রাখা ভালো, দুর্ঘটনার পর ওই ছাত্রীকে তার বাবা মা ঝাড়খণ্ডেরই একটি স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায় চিকিৎসার জন্য। সেই হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার হাসপাতাল থেকে দুর্ঘটনাগ্রস্ত ছাত্রীর চিকিৎসা এখানে সম্ভব নয় বলে জানানো হয়। তারপরই ওই ছাত্রীর বাবা মা তাকে রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটিতে নিয়ে আসেন চিকিৎসার জন্য। রামপুরহাট হাসপাতালে চিকিৎসকের ওই চিকিৎসায় আজ যেমন বীরভূমের পার্শ্ববর্তী রাজ্যের এক ছাত্রীর প্রাণ ফেরত এলো, ঠিক তেমনি বীরভূমের নামকেউ উজ্জ্বল করলো এই অস্ত্রপ্রচার ও অস্ত্রপ্রচারের মূল কান্ডারী ডাক্তার তরুণ কান্তি কর। হিন্দুস্থান সমাচার / হেমাভ / সোনালি
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image