Hindusthan Samachar
Banner 2 शनिवार, जनवरी 19, 2019 | समय 20:29 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

বর্জ্য স্তুপ পোড়ানর ফলে বাড়ছে কলকাতার দূষণের মাত্র : সৌমেন্দ্রমোহন ঘোষ

By HindusthanSamachar | Publish Date: Jan 11 2019 6:00PM
বর্জ্য স্তুপ পোড়ানর ফলে বাড়ছে কলকাতার দূষণের মাত্র : সৌমেন্দ্রমোহন ঘোষ
কলকাতা, ১১ জানুয়ারি (হি.স.): বেড়েই চলেছে কলকাতার দূষণের মাত্রা | বর্জ্য স্তুপ পোড়ানর ফলে কলকাতার দূষণের মাত্রা বাড়ছে বলে মনে করেন পরিবেশবিদ সৌমেন্দ্রমোহন ঘোষ । দূষণে দিল্লিকে অনায়াসেই টেক্কা দিচ্ছে তিলোত্তমা। বৃহস্পতিবার রাত এগারোটায় কলকাতার দূষণের মাত্রা ছিল সব থেকে বেশি। বাতাসে সূক্ষ্ম ধূলিকণার পরিমাণ বিপদ সীমা প্রতি ঘনমিটারে ৬০ মাইক্রোগ্রাম। কিন্তু কলকাতায় গত রাতে তা ছাড়িয়ে ৪০০ মাইক্রোগ্রামে পৌঁছায়। পরিবেশবিদ সৌমেন্দ্রমোহন ঘোষ শুক্রবার এই তথ্য জানিয়ে ''হিন্দুস্থান সমাচার’-কে বলেন, ইদানিং দেখা যাচ্ছে জঞ্জাল এক জায়গায় জড়ো করে রোদে শুকনো করে সেগুলি জ্বালানো হচ্ছে। এতে আপাতভাবে পরিষ্কার হলেও বাতাসে পোড়া সূক্ষ্ম কণা মিশে দূষণ ঘটাচ্ছে। এতে বাতাসে শ্বাস নেওয়ার মতো অক্সিজেন অবশিষ্ট থাকবে না বলেই মনে করছেন বহু পরিবেশবিদ। সৌমেন্দ্রবাবু বলেন, এর ফলে শ্বাসকষ্ট থেকে শুরু করে ক্যান্সার পর্যন্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আর ঠিক এই কারণেই জঞ্জাল পোড়ান শুধু অপরাধই নয়, তা একদম দন্ডনীয় অপরাধ। ধাপা, দমদম, নোয়াপাড়া, বেলঘড়িয়ার বর্জ্য স্তুপ পোড়ানোর ফলে দূষণ বেড়েই চলেছে। যদিও কিছুদিন আগেই কলকাতার দূষণ কমাতে মেয়র বলেছিলেন, বর্জ্যের পরিমান কমাতে বেশিরভাগ বর্জ্য দিয়ে সার বানানোর কাজে লাগানো হবে । ২০ শতাংশ থেকে ৩০ শতাংশ যাবে পুনঃপ্রক্রিয়াজাত হওয়ার জন্য। এরপর বাকি যে টুকু বর্জ্য অবশিষ্ট থাকবে তাতে জমি ভরাট হতে কম করেও তিনশ বছর সময় লাগবে । এতে বিপদ অনেকাংশে কমে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে । এছাড়াও মেয়র আশ্বাস দিয়ে বলেছিলন, ধীরে ধীরে বর্জ্য নিঃসরণ করার আধুনিক পদ্ধতি বাজারে এলে তা গ্রহণ করা হবে । আগামী বছরে শুষ্ক বর্জ্য ও পচনশীল বর্জ্য ফেলার জন্য আলাদা বিন ব্যবহার করা হবে বলেও জানান মেয়র । হিন্দুস্থান সমাচার / মৌসুমী / অশোক
image