Hindusthan Samachar
Banner 2 रविवार, मार्च 24, 2019 | समय 00:00 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

আরও ৩৫০ পুজো কমিটিকে তলব করল আয়কর দফতর

By HindusthanSamachar | Publish Date: Jan 11 2019 9:08PM
আরও ৩৫০ পুজো কমিটিকে তলব করল আয়কর দফতর
কলকাতা, ১১ জানুয়ারি (হি.স): প্রথম দফায় কলকাতার ৪০ টি পুজো কমিটিকে নোটিস পাঠানো হয় আয়কর দফতরের তরফ থেকে | পুজো বাবদ মোট খরচ জানতে চয়েই এই নোটিস আয়কর দফতরের । ইতিমধ্যেই কুড়ি টি পুজো কমিটি কথা বলেছে আয়কর দফতরের টিডিএস বিভাগের অফিসারদের সঙ্গে । পাশাপাশি শুক্রবার জানা যায় আরও ৩৫০ বিগ বাজেটের পুজো কমিটিকে নোটিস পাঠিয়েছে আয়কর দফতর । শুক্রবার, আয়কর দফতরে হাজির হয় কলকাতার কুডিটি বিগ বাজেটের পুজো কমিটি । আয়কর দফতরের আধিকারিকরা পুজোর আয়-ব্যয় সংক্রান্ত নথি চান ত্রিধারা সম্মিলনী, সন্তোষপুর ত্রিকোণ পার্ক, বাদামতলা আষাঢ় সঙ্ঘ সহ একাধিক পুজো কমিটির উদ্যোক্তাদের কাছে । আজ আয়কর দফতরের অফিসে পুজো উদ্যোক্তারা দেখা করতে গেলেই এই নথি চাওয়া হয় | প্রথম দফায় তারা যথেষ্ট নথি দেখাতে না পারায়, ফের এদিন তলব করা হয় তাদের । পুজো কমিটিগুলোর কাছ থেকে হিসাব বুঝে না নেওয়ার পর্যন্ত তাঁরা যে সহজে পিছু হঠবেন না, তা এদিন স্পষ্টই করে দেওয়া হয় আয়কর দফতরের তরফ থেকে | গত সোমবার আরও কুড়িটি পুজো কমিটিকে ডেকে পাঠিয়ে ছিলেন আয়কর অফিসাররা। সূত্রের খবর, পুজোয় কোন খাতে কত টাকা ব্যয় হয়, তার হিসেব অধিকাংশ পুজো কমিটি গুলোর কাছেই থাকে না | উৎসমূলে কর কেটে (টিডিএস) তা আয়কর দফতরের কাছে জমা করার অভ্যাস না থাকাতেই এই গোলযোগ বাধে | সেই খরচের হিসেবে রাখতেই এবার আয়কর দফতর রিটার্ন দাখিল করতে বলে পুজো কমিটি গুলোকে | তবে এক্ষেত্রে ,এই বিস্তারিত তথ্য জমা দিতে গেলে পুজো কমিটিগুলির কেবলমাত্র প্যান কার্ড থাকলেই হবে না, থাকতে হবে ট্যান কার্ডও | এছাড়াও ২০১৯ সালের দুর্গাপুজো থেকে তিরিশ হাজার টাকার উর্ধ্বে সমস্ত রকম পাওনা মেটানোর ক্ষেত্রে টিডিএস আদায় করতে হবে পুজো কমিটি গুলোকে । এই কর আদায় করতে হবে, ঢাকি, পুরোহিত, দশকর্মা, ডেকরেটার্স ইত্যাদি সবাইকেই পাওনা মেটানোর সময় | সেই টিডিএস জমা দিতে হবে আয়কর দফতরে । এই প্রক্রিয়া অনুযায়ী, থিম শিল্পীদের পাওনা মেটানোর সময় উৎসমূলে ১০ শতাংশ হারে কর আদায় করতে হবে । শ্রমিকদের থেকে কেটে নিতে হবে ১ শতাংশ এবং সংস্থার থেকে ২ শতাংশ হারে কর আদায় করতে হবে । নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক আয়কর দফতরের এক আধিকারিক জানান, ‘দুবছর আগেও একবার এই চেষ্টা করা হয়েছিল । কিন্তু পুজো সামনে থাকায় বিষয়টি এগোনো যায়নি । কিন্তু এবার হিসেব বুঝিয়েই দিতে হবে পুজো কমিটি গুলোকে বলে এদিন স্পষ্ট জানিয়ে দেন তিনি । তবে এই হিসেবের প্রক্রিয়া শুধুমাত্র ২০১৮ সালের পুজোর জন্যই নয় | এবার থেকে প্রত্যেক বছরের পুজোর হিসেবই দিতে হবে পুজো কমিটিগুলিকে’ | তিনি আরও বলেন, পশ্চিমবঙ্গে দুর্গা পুজোয় বিপুল পরিমাণ ব্যবসা হলেও, আয়কর আদায় হয় যৎসামান্য | তার কথায়, ‘যে কোনও উন্নয়ণশীল রাষ্ট্রই চলে এই নিয়মে । তাই কলকাতার দুর্গাপুজোর লেনদেনকেও করের আওতায় আনা হচ্ছে । পুজো কমিটিগুলোকে কারা চাঁদা দেন, সেই আয়ের উৎস কী, তাও এই হিসাবের আওতায় আনা হবে’ | কয়েক বছর আগে পর্যন্ত কলকাতার পুজোগুলোতে বহু কোটি টাকা চাঁদা দিত চিটফাণ্ড সংস্থাগুলি, ।বর্তমানে সেইরকম কোনও সংস্থা থাকলে তাদের চিহ্নিত করতেই এই উদ্যোগ বলে জানান তিনি | হিন্দুস্থান সমাচার /রক্তিমা / হীরক / কাকলি
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image