Hindusthan Samachar
Banner 2 रविवार, फरवरी 17, 2019 | समय 09:42 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

বিশ্ব বানিজ্য সম্মেলন নিয়ে সরব বিরোধীরা

By HindusthanSamachar | Publish Date: Feb 7 2019 10:10AM
বিশ্ব বানিজ্য সম্মেলন নিয়ে সরব বিরোধীরা
কলকাতা, ৭ ফেব্রুয়ারি (হি.স.) : আজ বৃহস্পতিবার থেকে শহরে বসতে চলেছে রাজ্যের ‘শো-কেস’ শিল্প সম্মেলন। এই ‘বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিট’ নিয়ে আগে থেকেই শুরু হয়েছে প্রশ্ন ও বিতর্ক। রাজ্যের বিরোধী নেতারা অনেকেই রীতিমত সন্দিহান। দু‘দিন আগেও মুখ্যমন্ত্রীর ধর্মতলার ধরনা নিয়ে এই বাণিজ্য মেলা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছিল শিল্প মহলে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ধরনা তুলে নেওয়ায়, স্বস্তি ফিরেছে শিল্পপতিদের মধ্যে। অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রীর হাজির থাকা নিয়ে আর সংশয়ে থাকতে রাজি নন তারা। তবে, বিজেপি-র রাজ্য সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় ‘হিন্দুস্থান সমাচার’-কে বলেন, “কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগের যে গল্প রাজ্যের তরফে পরিবেশন হচ্ছে, তার এক শতাংশও যদি সত্যি হত, তা হলেও খুশি হতাম। সব বুজরুকি ছাড়া আর কিছুই নয়।” বিধানসভায় সিপিএমের পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী আজ সকালে এই প্রতিবেদককে বলেন, “যে মুখ্যমন্ত্রী রীতিনীতির তোয়াক্কা করেন না, ফুটপাতে অবৈধভাবে মন্ত্রিসভার বৈঠক করেন, তাঁর ডাকে আর যাই হোক কেউ এ রাজ্যে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী হবেন না। নাচা-গানা, খানা-পিনা হতে পারে, শিল্প হবে না। রাজ্যকে উনি দেউলিয়া করে ছাড়ছেন।” গোটা শহর অবশ্য ঢেকে গিয়েছে শিল্প সম্মেলনের প্রচারে। হোর্ডিংয়ে, তোরণে সর্বত্রই বিনিয়োগের বার্তা নিয়ে উপস্থিত রয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দেশ-বিদেশে আমন্ত্রণ পর্ব সারা। শহরে একে একে এসে পৌঁছনোর কথা অতিথিদের। কোন কোন শিল্পপতি বা শিল্প কর্তা এবারের সম্মেলনে হাজির হবেন, তা নিয়েও চর্চার অন্ত নেই। কার ঝুলিতে কত টাকার লগ্নি প্রস্তাব থাকবে, তা নিয়েও জল্পনা রয়েছে অন্যান্য বছরের মতোই। যেহেতু শিল্প দফতর এই বিষয়ে আগ বাড়িয়ে অনেক কিছু বলতে রাজি নয়। সেই কারণেই এ নিয়ে কৌতূহল বেড়েছে। সঙ্গে রয়েছে আমন্ত্রণ পত্র বা কার্ডের চাহিদা। এ রাজ্যের ছোট, মাঝারি উদ্যোগপতিরা অন্যান্যবার যেভাবে আমন্ত্রণ পেয়ে থাকেন, এবার তেমন কিছু হবে না বলেই জানিয়েছিল শিল্প দফতর। তাঁদের বক্তব্য, অন্যান্যবার শিল্প সংগঠন বা বণিকসভার মাধ্যমে উদ্যোগপতিদের একটা বড় অংশকে আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হতো। শিল্পমহলের দাবি, এবার শিল্পোন্নয়ন নিগমের তরফে তাদের জানানো হয়েছে, ডাকযোগে ব্যক্তিগতভাবে আমন্ত্রণপত্র পাবে উদ্যোগপতিদের একটা বড় অংশ। ফলে অনেকেই নিমন্ত্রণ না পাওয়ার আশঙ্কায় ভুগছেন। তবে, মঙ্গলবারই ছোট-বড় বেশ কিছু শিল্পপতির কাছে কার্ড পৌঁছে গিয়েছে বলে নবান্ন-র দাবি। প্রতিবারই মুখ্যমন্ত্রী দেড় দিনের এই সম্মেলনে দিনভর হাজির থেকে শিল্পপতিদের বিনিয়োগ বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি আপ্যায়নও করেন নিপুণ হাতে। অন্যান্যবার সম্মেলনের আগের রাতে শিল্পপতি ও অতিথিদের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী নৈশভোজের আয়োজন করেন। এ বছরেও অন্যান্যবারের মতো নিখুঁতভাবে শিল্প সম্মেলনের তোড়জোড় করেছে শিল্প দফতর। উদ্যোক্তাদের আশা, আরও একটি ঝকঝকে বাণিজ্য সম্মেলনের প্রতিক্ষায় থাকবে বাংলা। হিন্দুস্থান সমাচার/ অশোক
लोकप्रिय खबरें
चुनाव 2018
image