Hindusthan Samachar
Banner 2 रविवार, फरवरी 17, 2019 | समय 09:03 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

সংবেদনশীলতা বাড়াতে রূপান্তকামীদের নিয়ে আলোচনা সভা প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে

By HindusthanSamachar | Publish Date: Feb 8 2019 5:30PM
সংবেদনশীলতা বাড়াতে রূপান্তকামীদের নিয়ে আলোচনা সভা প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে
কলকাতা, ৮ ফেব্রুয়ারি (হি.স.): সমাজে চারিদিকের বাঁকা নজর, মুখ টিপে হাসি, এই সব কিছুকে সামলে ওরা এখন অনেকটা এগিয়ে গেছে । কিন্তু এখনও কলেজ বা ইউনিভার্সিটিতে পড়ছে যেসব রুপান্তরকামীরা তাঁদের প্রতি সেই পারিপার্শ্বিক সমাজ কতটা সংবেদনশীল ? এই প্রসঙ্গেই শুক্রবার প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় । উপস্থিত ছিলেন রূপান্তরিত নারী তথা রূপান্তর মানুষদের নিয়ে কর্মকাণ্ডে জড়িত রায়না রায়, রঞ্জিতা সিনহা ও সিনটু বাগুই । এদিন আলোচনায় স্বাভাবিক ভাবেই উঠে আসে রূপান্তরকামী বিলের কথা । সেই বিলের বিরোধিতা করার পাশাপাশি রূপান্তরকামীদের প্রতি সংবেদনশীল হওয়ার কথাও বলেন এই তিন জন নারী । রায়না বলেন, "আমাদের সংখ্যালঘু বলা হয় । কিন্তু যদি সকল রূপান্তরকামী ও বৃহন্নলারা সমাজের ভয়কে ছুঁড়ে ফেলে এগিয়ে আসে তাহলে এই সংখ্যালঘু কথাটা আদতেই যে অপ্রযোজ্য তা প্রমাণিত হয়ে যাবে ।" এক ছাত্রী প্রশ্ন তোলে প্রান্তিক গ্রামগুলিতে কিভাবে এই রূপান্তরকামীদের তাঁদের নিজেদের পরিচয় সম্বন্ধে সচেতন করা যায় ? উত্তরে রায়না বলেন, সমাজের একজন সব রকম সুবিধা প্রাপ্ত সাধারণ মেয়ে হয়ে একটা প্রান্তিক মেয়েকে যেভাবে সাহায্য করা উচিত সেভাবেই যদি এগোনো যায়, তাহলে বিষয়টি আরও সহজ হবে । সে অর্থে এই রূপান্তরকামীদের কোনও রকম রাজনীতির সাথে যুক্ত থাকতে দেখা যায় না । তাই কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দেওয়ার হলে কোথায় যোগ দেবেন ? এই প্রশ্নে প্রথমেই বিরোধিতা করে রায়না বলেন, "কেন অন্য দলে আমরা যোগ দেব । আমাদের নিজেদের কেন নতুন কোনও দল হবে না"। এই বিষয়ে রঞ্জিতা অবশ্য বলেন, "আমরা নিজেদের জন্য লড়াই করি । তাই যে দল আমাদের কথা ভাববে আমরাও তাঁদের হয়েই ভাববো"। পাশাপাশি তাঁরা বলেন, সব সময় পুরুষদের প্রথম লিঙ্গ বলেই ধরা হয় । তারপর যথাক্রমে নারী ও এই রূপান্তরকামীরা আসেন । কিন্তু কেন এইরকম হবে বলে গলাও চড়ান ওই তিন রূপান্তরিত নারী । তাঁরা বলেন, "পুরুষ নয়, পুরুষতন্ত্র খারাপ"। এই বিশ্ববিদ্যালয়েরই এক ছাত্র পিনাকী বলে, "কোনও মানুষকে প্রশাসনের কাছে আদৌ কি নিজেকে উলঙ্গ করে তিনি নিজে কি সেই বিষয়ে প্রমান দেওয়ার কোনও প্রয়োজন আছে বলে মনে করিনা । সবার উপরে তিনি মানুষ এটাই তো সত্যি। তাই এই ধরণের একটি অনুষ্ঠান আয়োজন করা"। অর্থাৎ নারী পুরুষ বা তথাকথিত ''তৃতীয় লিঙ্গ'' নয় । মানুষ হিসেবে দেখুন সবাইকে । মানুষ হিসেবে ভালোবাসুন । হিন্দুস্থান সমাচার / মৌসুমী / হীরক
लोकप्रिय खबरें
चुनाव 2018
image