Hindusthan Samachar
Banner 2 गुरुवार, अप्रैल 25, 2019 | समय 19:21 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

সংরক্ষণ নীতির মাশুল দিতে হচ্ছে মেধাবী গবেষকদের !

By HindusthanSamachar | Publish Date: Feb 9 2019 12:46PM
সংরক্ষণ নীতির মাশুল দিতে হচ্ছে মেধাবী গবেষকদের !
কলকাতা, ৯ ফেব্রুয়ারি (হি. স.) : রাজ্যে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ার সংখ্যা গত কয়েক বছরে দ্রুত বেড়েছে। এর অন্যতম কারণ, সরকারের সংরক্ষণ নীতি| কিন্তু পরিকাঠামো নড়বড়ে। ফলে মার খাচ্ছে উচ্চশিক্ষার মান। উচ্চশিক্ষার শিক্ষক-নেতাদের মতে, রাজনীতির লাভের আশায় এমন কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যার মাশুল দিতে হচ্ছে মেধাবী গবেষকদের| ২০১১ সালে উচ্চশিক্ষায় সংরক্ষণ ছিল ১০ শতাংশ। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি জুটা-র সাধারণ সম্পাদক পার্থপ্রতিম রায় ‘হিন্দুস্থান সমাচার’কে এ কথা জানিয়ে বলেন, ‘‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে এরপর একাধিকবার এই হার বাড়ানো হয়েছে। সাধারণ পড়ুয়াদের জন্য নির্ধারিত আসন ঠিক রেখে বাড়ানো হয়েছে ওবিসি তালিকাভূক্তদের আসনসংখ্যা। ফলে চাপ পড়ছে পদার্থবিদ্যা, রসায়ন ও জীববিজ্ঞানের মত বিষয়ের পরীক্ষাগারে।“ উদাহরণ হিসাবে তিনি বলেন, ধরা যাক যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতি বছর ৫০টি আসন। সেই আসন বেড়ে ৮০ করা হয়েছে। কিন্তু উন্নত হয়নি পরীক্ষাগারের পরিকাঠামো। ফলে মার খাচ্ছে গবেষণার কাজ।” একই মত কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের বাম শিক্ষক সমিতি ‘ওয়েবকুটা’-র সাধারণ সম্পাদক কেশব ভট্টাচার্যের| ‘হিন্দুস্থান সমাচার’কে তিনি বলেন, “বিভিন্ন শাখা, বিশেষত ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পিএইচডি স্কলার নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রার্থী পাওয়া যাচ্ছে না। কারণ, নির্দিষ্ট সংখ্যক প্রার্থী ওবিসি বা সংরক্ষিত আসন থেকে নিতে হবে। পিএইচডি স্কলার হওয়ার শর্ত তাঁদের অধিকাংশেরই নেই। আবার যথেষ্ট যোগ্যতাসম্পন্ন অনেকে এই সুযোগ পাচ্ছেন না।” উল্লেখ করা যেতে পারে, রাজ্যে উচ্চশিক্ষা ক্ষেত্রে শিক্ষক বা শিক্ষিকা-পিছু ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা সর্বভারতীয় অনুপাতের তুলনায় এ রাজ্যেদের কম| ফলে মার খাচ্ছে উচ্চশিক্ষায় পঠন পাঠন| তথ্য উঠে এসেছে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের ‘অল ইন্ডিয়া সার্ভে অন হায়ার এডুকেশন’-এ। রাজ্যে উচ্চশিক্ষায় শিক্ষক-ঘাটতির ছবি প্রকট হয়ে উঠেছে এই সমীক্ষাতে। কেশব ভট্টাচার্য বলেন, “এর জন্যও মার খাচ্ছে পঠনপাঠন গবেষণা|” পার্থপ্রতিম রায় বলেন, “কিছু নিয়োগের পরেও ৩০ শতাংশের ওপর শিক্ষকপদ খালি রয়েছে যাদবপুরে।” হিন্দুস্থান সমাচার / অশোক
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image