Hindusthan Samachar
Banner 2 गुरुवार, अप्रैल 25, 2019 | समय 10:27 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

চাঁদার জুলুমবাজির জেরে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে জাতীয় সড়কে অবরোধ

By HindusthanSamachar | Publish Date: Feb 9 2019 7:45PM
চাঁদার জুলুমবাজির জেরে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে জাতীয় সড়কে অবরোধ
ঝাড়্গ্রাম, ৯ ফেব্রুয়ারি ( হি. স.) : চাঁদার জুলুমবাজির জেরে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঝাড়গ্রামে জাতীয় সড়কে অবরোধ করল বাস চালক। শনিবার আড়াইটা নাগাদ ঝাড়্গ্রাম জেলার লোধাশুলিতে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কে যাত্রীবাহী বাসের চালককে সরস্বতী পুজোর চাঁদার জন্য জুলুমবাজি করার পাশাপাশি মারধর করা হয়।আর এই ঘটনার পরেই বাসের চালক জাতীয় সড়কের উপর বাসটিকে আড়াআড়ি রেখে বাস ছেড়ে চলে যায়। আর ফলে জাতীয় সড়কে বিভিন্ন যাত্রীবাহী,পন্যবাহী গাড়ি গুলি সার দিয়ে দাঁড়িয়ে পড়ে।এর ফলে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে গুরুত্বপূর্ন জাতীয় সড়ক। প্রায় ঘন্টা খানেক প্রচুর গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকার দাঁড়িয়ে থাকার ফলে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায় ঝাড়্গ্রাম থেকে পুলিশ এলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয় এবং ওই গাড়িটিকে সরিয়ে নেওয়া হয়।উল্লেখ্য বেশ কিছুদিন ধরে সরস্বতী পুজোর আগে ঝাড়গাম জেলা জুড়ে চলছে চাঁদার জন্য জোর জুলুম বাজি এমনই অভিযোগ করেছেন জেলার বাসিন্দারা। যার ফলে রীতিমতো হেনস্থার শিকার হচ্ছে পথ চলতি সাধারণ মানুষজন থেকে শুরু করে যে কোন ধরনের গাড়ির চালকেরা । ঝাড়্গ্রাম জেলার লালগড় এলাকায় রাতেও চলছে হুমকি দেখিয়ে চলছে চাঁদা আদায়। চাঁদা দিতে কোনও চালাক যদি অস্বীকার করে তা হলে রাতের অন্ধকারের মধ্যে আটকে রাখা হচ্ছে দীর্ঘ সময় ধরে আটকে রাখা হচ্ছে বলে অভিযোগ। লরি, বাস সহ সমস্ত রকমের পণ্যবাহী গাড়ির পাশাপাশি প্রাইভেট গাড়ি গুলি থেকেও জোরপূর্বক চাঁদা আদায় চলচ্ছে। আর চাঁদা না দিতে চাইলে রীতিমতো হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ প্রাইভেট গাড়ির চালক, মালিকদের। তবে শুধু লালগড় এলাকায় নয় জেলার বিনপুর, বেলপাহাড়ী, নয়াগ্রাম, জামবনি, গোপীবল্লভপুর, সাঁকরাইল সহ জেলার বিভিন্ন জায়গায় চলছে জোরপূর্বক চাঁদা আদায়। সাধারণ মানুষজনের দাবি পুলিশ অবিলম্বে চাঁদা আদায়কারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করুক। এদিন জাতীয় সড়কে চাঁদার জন্য বাসের চালককে মারধর এবং তার জেরে জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে পড়ার ঘটনার বিষয়ে ঝাড়্গ্রামের পুলিশ সুপার অরিজিৎ সিনহা বলেন "ঘটনার খবর শুনেছি।তবে এখনো পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি।লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।" হিন্দুস্থান সমাচার / গোপেশ
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image