Hindusthan Samachar
Banner 2 मंगलवार, फरवरी 19, 2019 | समय 22:10 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

তামিলনাডুর তিরুপ্পুরে একগুচ্ছ প্রকল্পের শিলান্যাশ এবং উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

By HindusthanSamachar | Publish Date: Feb 10 2019 9:18PM
তামিলনাডুর তিরুপ্পুরে একগুচ্ছ প্রকল্পের শিলান্যাশ এবং উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
তিরুপ্পুর, ১০ ফেব্রুয়ারি (হি.স.): ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আর কয়েক মাস বাকি। ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) দেশজুড়ে নিজেদের নির্বাচনী প্রচারকার্য জোরদার করেছে। "মিশন ভারত"-কে মাথায় রেখে আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তামিলনাড়ুর তিরুপ্পুরের বিশাল জনসভায় পৌঁছান। একইসঙ্গে বেশ কিছু বিকাশমূলক পরিযোজনার উদঘাটন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এই কল্যাণকর পরিযোজনাগুলির মধ্যে ১০০-বিস্তর কর্মচারী রাজ্য বীমা নিগম (ইএসআইসি) স্বাস্থ্য সুবিধা, ত্রিচি বিমানবন্দরে একসঙ্গে একটি নতুন বিল্ডিং এবং চেন্নাই বিমানবন্দরের আধুনিকীকরণ রয়েছে। এছাড়াও, ভিডিও কনফারেন্সিঙের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী চেন্নাই মেট্রোর ব্লু-লাইনের সর্বশেষ পর্যায়ের উদঘাটন করেন এবং ছটি ভূমিগত মেট্রোস্টেশনের ঘোষণা করেছেন। তিরুপ্পুরে জনসভাকে আহ্বান জানিয়ে মোদী বলেন, "আমি তিরুপ্পুরের মাটিকে প্রণাম জানাই। তিরুপ্পুরে আসা বড়ই অদ্ভুত। এখানকার মাটি বাহাদুরির জন্য বিখ্যাত। এই তিরুপ্পুর কুমারনের জায়গা যিনি রাষ্ট্রের জন্য আত্মবলিদান দিয়েছেন। এই মাটি ধীরন চিন্নামালাইয়ের জায়গা যাঁর বাহাদুরি গোটা দেশ জানে। এদিন তিনি বলেন, চেন্নাই মেট্রোর পুরো ৪৫ কিলোমিটার লম্বা অংশ এজি-ডিএমএস -কে ওয়াশারম্যানপেটের সঙ্গে যুক্ত করা হবে। রবিবার চেন্নাই মেট্রোর যাত্রীসেবার উদঘাটন অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী কে পালানিস্বামী, উপ-মুখ্যমন্ত্রী ও পন্নিরসেলভম এবং রাজ্যপাল বনওয়ারিলাল পুরোহিত উপস্থিত ছিলেন। এদিন প্রধানমন্ত্রী ৩৯৩ কোটি টাকার পরিযোজনা উদঘাটন করেন। চেন্নাই পোর্ট থেকে চেন্নাই পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেডের মানালি রিফাইনারির জন্য বিপিসিএল এন্নোরের তটীয় স্থাপনকে অত্যাধুনিক এবং পুরোপুরিভাবে স্বচালিত তেল উত্তোলন এবং বিতরণের জন্য সমর্পণ করেন। এবিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ত্রিচি বিমানবন্দরে একসঙ্গে একটি ভবন নির্মাণের কাজ সমাপ্ত হলে যার উদ্ঘাটন সবেমাত্র হয়েছে এই বিমানবন্দরে ''পিক আওয়ারে'' প্রায় ৩০০০ যাত্রীর সুবিধা প্রদান করা হয়। "নমো এগেইন" সন্দেশের সঙ্গে নমো মার্চেন্ডাইজ টি-শার্ট এবং হুডি এই তিরুপ্পুরে তৈরি হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন যে, আমি একটি উদাহরণ স্থাপন করতে চাইছি। যেখানে বিজেপি এ জাতীয় সামাজিক ব্যবস্থা পরিবর্তিত হয়েছে | অন্যদিকে, বিরোধীরা তৃতীয় মোর্চার সরকার ছিল | যেখানে ডিএমকে এবং কংগ্রেস উভয় অনগ্রসর জাতি ও অনগ্রসর জনজাতি সম্প্রদায়ের পদোন্নতির সংরক্ষণ বাতিল করে দিয়েছে । আমাদের সরকার সাধারণ শ্রেণির দরিদ্রদের জন্য ১০ শতাংশ সংরক্ষণ বিল নিয়ে এসেছে | এর জন্য আমরা দেশে বর্তমান সংরক্ষণে কোন পরিবর্তন না করেই এটা করা হয়েছে| এদিন তিনি আরও বলেন, “এনডিএ-র প্রধানমন্ত্রী কৃষক যোজনা একটি বার্ষিক লাভ | এই যোজনা এটি নিশ্চিত করবে যে ১০ বছরের মধ্যে ব্যাংকের কৃষকদের অ্যাকাউন্ট ৭ লক্ষ ৫০ হাজার কোটি টাকা চলে আসবে । দেশের ইতিহাসে প্রথমবার, এক সরকার কৃষকের আয় দ্বিগুণ করার পরিবর্তে তাদের ঋণ মকুব করার কথা বলেছে, এমটা বিরোধী দল তাদের নির্বাচনী প্রচারের অঙ্গ হিসাবে অঙ্গীকার করে ছিল । বিরোধীর ভাল আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করতে পারে | তারা আবার সে দেশের কৃষকদের, গরীব ও তরুণদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।” এদিন বিরোধী জোটকে আক্রমণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “তথাকথিত জোটের এজেন্ডা শুধু "মোদী" তবে উন্নতির জন্য চিন্তাভাবনা নেই। কে কামরাজ সর্বদা ক্ষমতায় এমন একটি সরকার চাইতেন, যারা দুর্নীতি নিয়ে কোনও রকম আপস করতে রাজি নয় । আপনারা দিল্লিতে এমন এক সরকার রেখেছেন, যারা দুর্নীতির উপর তালা লাগিয়ে দিয়েছে। তিনি দাবি করেন, এনডিএ সরকারের ভাল কাজগুলি কিছু লোককে খুব দু:খিত করেছে এবং তাদের বিরাগ মোদীর বিরুদ্ধে প্রতিহিংসা ও দুর্ব্যবহারের পরিণত হয়েছে। আসুন তামিলনাডুর একজন খুব বুদ্ধিমান মন্ত্রী সম্পর্কে কথা বলি, "দ্য রিকাকটিং মন্ত্রী"। যে মানুষ মনে করে যে সে এই পৃথিবীর সবচেয়ে জ্ঞানী মানুষ।মোদীকে গালি দেওয়া বিরোধীদের রাজনৈতিক সংস্কৃতি, তাদের টেলিভিশনে কিছু জায়গা দিতে পারে, কিন্তু নির্বাচনে দেশের জন্য একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে লড়াই করতে হয় | নিন্দা বা হামলা করে এটা সম্ভব নয় । তাঁর আরও দাবি, আজকে গোটা বিশ্ব ভারতের বিকাশের কথা বলছে। এই বিকাশ ভারতের জনগণের শক্তি এবং কৌশলের কারণেই সম্ভব হয়েছে। ২০২২ এর মধ্যে আমাদের প্রত্যেক দেশবাসীকে আবাসন প্রাপ্ত করার লক্ষ্য রয়েছে আমাদের এবং এই লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। গত চার বছরে ১.৩ কোটি ঘর নির্মিত হয়েছে। যখন কোনও রাষ্ট্র সুষ্ঠ হয়, তখন বিকাশের গতি বাড়ে। এনডিএ সরকার প্রত্যেক ভারতীয়ের কাছের একটি সরকার। "আয়ুষ্মান ভারত" পৃথিবীর সবচেয়ে বড় এবং সবচেয়ে সুবিধাজনক স্বাস্থ্য কার্য্ক্রম যা ভারতে লাগু করা হয়েছে। এদিন কংগ্রেসকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, “কংগ্রেস কখনও আমাদের সেনা ক্ষতির করার সুযোগ ছাড়ে না । কয়েক দিন আগে কংগ্রেসের এক নেতা সেনা প্রধানের উদ্দেশ্যে অভদ্র ভাষা ব্যবহার করেছিলেন। আমরা এমন একটি ভারতের স্বপ্ন দেখি যা প্ররক্ষা উৎপাদনে আত্মনির্ভর হোক | এবং যেখানে আমাদের বাহিনীর আমাদের জাতীয় নিরাপদ রাখার জন্য সবরকমের সমর্থনের প্রয়োজন। আমাদের সরকার, দীর্ঘ প্রায় দশক ধরে মুলতুবি থাকা এক পদ এক পেনশনের দাবি পূরণ করেছে। যারা দীর্ঘদিন দেশ শাসন করার সুযোগ পেয়েছিল, তারা আমাদের সুরক্ষার বিষয়ে চিন্তিত ছিল না। তাদের জন্য এটি শুধু নিজেদের লাভ দেখার ক্ষেত্র ছিল এবং এতে তাদের নিজের বন্ধুদের সমর্থন ছিল।” এদিন তিনি বাজেট প্রসঙ্গে বলেন, ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় বাজেটে প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনার মতো এক ঐতিহাসিক যোজনায় সেই সমস্ত ভাই-বোনেদের কথা ভেবে তাঁদের রক্ষা করার ঘোষণা করেছে যাঁরা কারখানা, মিল এবং ছোট উদ্যোগগুলিতে কাজ করে উপার্জন করেন।–হিন্দুস্থান সমাচার / কাকলি
लोकप्रिय खबरें
चुनाव 2018
image