Hindusthan Samachar
Banner 2 शनिवार, फरवरी 23, 2019 | समय 17:13 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

আদিবাসীদের জনজাতির মর্যাদা : সোমবারের ১২ ঘণ্টার অসম বনধ-এর মিশ্র প্রভাব

By HindusthanSamachar | Publish Date: Feb 11 2019 12:47PM
আদিবাসীদের জনজাতির মর্যাদা : সোমবারের ১২ ঘণ্টার অসম বনধ-এর মিশ্র প্রভাব
গোসাঁইগাঁও, ডিগবয় (অসম), ১১ ফেব্রুয়ারি (হি.স.) : অসমের আদিবাসী জনগোষ্ঠীকে জনজাতির মর্যাদা দেওয়ার দাবিতে সোমবার ডাকা ১২ ঘণ্টার অসম বনধের ব্যাপক প্রভাব পড়েছে কোকরাঝাড় জেলা, গোসাঁইগাঁও মহকুমা এবং উজান অসমের বিভিন্ন প্রান্তে। বনধ-এর জেরে গোসাঁইগাঁওয়ে ব্যাহত হয়েছে যানবাহন চলাচল। মহকুমার অন্তর্গত পশ্চিমবঙ্গ সীমান্তে শ্ৰীরামপুরে আটকে পড়েছে অসংখ্য পণ্যবাহী লরি ও যাত্ৰীবাহী গাড়ি। কোকরাঝাড় জেলায় বনধ-এর মিশ্র প্রভাব পড়েছে। এছাড়া উজান অসমের তিনসুকিয়া জেলার অন্তর্গত তৈলনগর বলে পরিচিত ডিগবয়ের টিংরাইয়েও বনধ সর্বাত্মক। টিংরাইয়ের প্রকাশ্য রাজপথে টায়ার জ্বালিয়ে প্ৰতিবাদ প্রদর্শন করছে বনধ-এর আহ্বায়ক সারা অসম আদিবাসী ছাত্ৰ সংস্থার সদস্যরা। এদিকে ডিগবয়ে দুই বনধ সমৰ্থককে আটক করেছে পুলিশ। তিনসুকিয়া জেলার অন্যান্য প্রান্ত থেকেও বনধ সফল বলে খবর এসেছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ করা যেতে পারে, রাজ্যের আদিবাসী জনগোষ্ঠীকে জনজাতির মর্যাদা দেওয়ার দাবিতে অসম আদিবাসী ছাত্ৰ সংস্থা (আসা) আজ ভোর পাঁচটা থেকে সন্ধ্যা পাঁচটা পর্যন্ত ১২ ঘণ্টার বনধ ডেকেছিল। আসা-র সভাপতি প্ৰদীপ নাগ এবং সম্পাদক জোশেফ মিঞ্জ তাদের দাবির তথ্য তুলে ধরে বলেছেন, রাজ্য এবং কেন্দ্ৰীয় সরকার অসমের আদিবাসী জনগোষ্ঠীকে জনজাতির মর্যাদা দিতে গড়িমসি করছে। বার বার তাঁদের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হচ্ছে এবং বারংবার সেই-সব প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করা হচ্ছে। জনজাতিকরণের দাবি আজ পর্যন্ত কাৰ্যকর না হওয়ার প্ৰতিবাদে আজ সোমবার তাঁরা ১২ ঘণ্টার অসম বনধ-এর ডাক দিতে বাধ্য হয়েছেন। আসা-র দুই নেতা আরও বলেছেন, কেবল প্রতিবাদই নয়, তাঁদের দাবিগুলো শীঘ্ৰ পূরণ করে তা কাৰ্যকর করার দাবির ভিত্তিতে এই বনধ কর্মসূচি। তাঁরা জানান, বনধ-এর আওতা থেকে অত্যাবশ্যক পরিষেবাকে রেহাই দেওয়া হয়েছে। হিন্দুস্থান সমাচার / অমল / এসকেডি
लोकप्रिय खबरें
चुनाव 2018
image