Hindusthan Samachar
Banner 2 शनिवार, मार्च 23, 2019 | समय 23:58 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

কেন্দ্রীয় বাহিনীর আগেই কাজে নামতে পুলিশকে নির্দেশ সিইও-র

By HindusthanSamachar | Publish Date: Mar 12 2019 5:20PM
কেন্দ্রীয় বাহিনীর আগেই কাজে নামতে পুলিশকে নির্দেশ সিইও-র
কলকাতা, ১২ মার্চ (হি. স.): কেন্দ্রীয় বাহিনী আসবে পরে। তার আগেই অতীতের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে রাজ্য পুলিশকে বিশেষ নির্দেশ দিল মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের (সিইও) দফতর। সূত্র জানাচ্ছে, অতীতের নির্বাচনে যে এলাকাগুলিতে অশান্তির ঘটনা ঘটেছে সেখানে ভোটাদের মনোবল বাড়াতে পুলিশকে সক্রিয় হতে বলেছে সিইও অফিস। তাছাড়াও গোটা রাজ্যে পুলিশের সক্রিয়তা বাড়ানোর জন্য বলা হয়েছে বলে খবর। নির্বাচন কমিশন সূত্রের খবর, যে ব্যক্তিরা অতীতে নির্বাচনে গোলমাল পাকিয়েছিলেন তাদের চিহ্নিত করে সতর্ক করতে বলা হয়েছে পুলিশকে। এ বিষয়ে সতর্ক দৃষ্টি রাখছে ভারতের নির্বাচন কমিশন। এ বিষয়ে সাত দিন অন্তর রিপোর্ট পাঠাতে বলা হয়েছে কমিশনের তরফে। পাশাপাশি গত এক বছরের মধ্যে যে সমস্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রয়েছে তাদের দ্রুত গ্রেফতার করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সূত্র জানাচ্ছে, এই মুহূর্তে প্রায় ৬০ হাজার জনের জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রয়েছে। এই ব্যাক্তিদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে যে সব জেলা গড়িমসি করছে তাদের ওপর রুষ্ট কমিশন। সূত্র জানাচ্ছে রাঢ়বঙ্গের একটি জেলার পুলিশ সুপার এ বিষয়ে ধমক খেয়েছে সিইও অফিসের। সিইও অফিস সূত্রে খবর, এখনই পুলিশকে রাস্তায় রুটমার্চ করার কোনও নির্দেশ দেওয়া হয়নি। তবে বেআইনি মদের ভাটি ভাঙা, দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অভিযান চালানো ইত্যাদির মাধ্যমে ভোটারের মনোবল বৃদ্ধির কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি বেআইনি অস্ত্র উদ্ধারে বিশেষ নজর দিতে বলা হয়েছে। ইতিমধ্যেই পুলিশ রাজ্যজুড়ে শুরু করে দিয়েছে সেই কাজ। এ বিষয়ে নির্দিষ্ট নির্দেশ পাওয়ার পর গত ২ মার্চ বিশেষ অভিযানে নামে কলকাতা পুলিশ। ওই দিন রাত ৯ টা থেকে পরের দিন দুপুর ১ টার মধ্যে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা থাকা ২৫৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এ ছাড়াও গ্রেফতার করা হয় আরও ৫৯৪ জনকে। একটি অস্ত্র এবং এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও উদ্ধার করা হয় ৫৩৫.৫ লিটার মদ। সূত্রের খবর, শনিবার থেকে রাজ্যে আসছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। কবে ঠিক কত কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী এই মুহূর্তে মোতায়েন করা হবে রাজ্যে সে বিষয়ে চূড়ান্ত কিছু জানায়নি নির্বাচন কমিশন। তবে যে কেন্দ্রীয় বাহিনী আসবে তাদের মূলত উত্তরবঙ্গের সীমান্ত এলাকাগুলোতে মোতায়েন করা হবে পাশাপাশি শহর কলকাতা এবং দুই ২৪ পরগনাতে মোতায়েন করা হবে। অন্যদিকে রাজ্যের লাগোয়া যতগুলি সীমান্ত আছে সেগুলির ওপর নজরদারি আরও কড়া করা হচ্ছে আজ থেকে। এক দিকে ভোটারদের মনোবল বাড়াতে অন্যদিকে এলাকায় দুষ্কৃতীদের তাণ্ডব রুখতে কমিশনের এই পদক্ষেপ বলেই নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে। হিন্দুস্থান সমাচার/ অশোক / কাকলি
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image