Hindusthan Samachar
Banner 2 शुक्रवार, मार्च 22, 2019 | समय 13:34 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

নুসরতের হাত ধরে বসিরহাটে ক্ষমতা ধরে রাখতে চাইছে তৃণমূল

By HindusthanSamachar | Publish Date: Mar 13 2019 1:27PM
নুসরতের হাত ধরে বসিরহাটে ক্ষমতা ধরে রাখতে চাইছে তৃণমূল
বসিরহাট, ১৩ মার্চ (হি. স.) : ভোট ঘোষণার মাত্র দু’দিনের মধ্যে প্রথম প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করল তৃণমূল কংগ্রেস। ১৭ তম লোকসভা নির্বাচনে বর্তমান সাংসদ ইদ্রীস আলিকে সরিয়ে তার জায়গায় চিত্র তারকা নুসরত জাহানকে প্রার্থী করার মধ্যে দিয়ে এটা পরিস্কার হয়ে গেল, তৃণমূল কংগ্রেস তারকার হাত ধরেই ক্ষমতা ধরে রাখতে চাইছে উত্তর ২৪ পরগণার বসিরহাটে। তবে তারকার বিপরীতে বিজেপিও তাদের অতি পরিচিত শমীক ভট্টাচার্য্যকে বসিরহাট থেকে প্রার্থী করতে চলেছে বলে বিজেপি সূত্রে খবর। ১৭ তম লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে মূল প্রতিদ্বন্দী হিসাবে উঠে আসছে বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস। কেন্দ্রের ভোট হলেও বিরোধী দলের মুখ হিসাবে ইতিমধ্যেই উঠে এসেছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম। আর তাই পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির প্রধান প্রতিদ্বন্দী যে তৃণমূলই হবে তা বলার প্রয়োজন নেই। ভোটের দিন ঘোষণার মাত্র দু’দিনের মাথায় নিজেদের প্রার্থী তালিকাও ঘোষণা করলেন মমতা মন্দ্যোপাধ্যায়। প্রার্থী তালিকায় এবার বসিরহাট লোকসভার বর্তমান তৃণমূল সাংসদ ইদ্রীস আলির জায়গায় প্রার্থী করা হয়েছে চিত্র তারক নুসরত জাহানকে। প্রসঙ্গত কিছু দিন আগেই কেন্দ্রের ঘোষনা অনুযায়ী গত পাঁচ বছরে সাংসদ কোটার টাকা খরচে সর্বচ্চস্থানে রয়েছেন ইদ্রীস আলি। তার পরও বসিরহাট লোকসভা থেকে ইদ্রীস আলিকে আসন থেকে সরানোর বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বললে খুব কৌশলগত ভাবেই বিষয়টি এড়িয়ে যান তিনি। উপরন্তু এই বিষয়ে কোনও রকম বিতর্ক হোক সেটাও চাইছেননা বলে জানান তিনি। তবে যাই হোক বসিরহাট লোকসভা ধরে রাখতে যে মরিয়া তৃণমূল নেত্রী, নুসরত জাহানকে প্রার্থী করার মধ্যে দিয়ে আবারও একবার পরিস্কার হয়েগেল। গত পাঁচ বছরে বসিরহাট লোকসভা এলাকায় উন্নয়ন বলতে বেশ কিছু রাস্তার কাজ কাজ হয়েছে বসিরহাটে। আর বাম আমলে হাত দেওয়া হাসনাবাদ ইছামতি নদীর উপর নির্মীয়মান সেতুর ত্রুটিযুক্ত পিলার ভেঙে তড়িঘড়ি সেই সেতুর কাজ সম্পন্ন করে নির্বাচনের দিন ঘোষণার আগেই তা খুলে দেওয়া হয়েছে সাধারন মানুষের জন্য। বসিরহাটের বিভিন্ন জায়গায় বেশ কিছু হাইমার্চ লাইট লাগানো হলেও বর্তমানে অধিকাংশ জায়গাতেই বন্ধ হাইমার্চ এর আলো। সাংসদ কোটার টাকা থেকে হাইমার্চ লাইটগুলি বসানো হলেও অজ্ঞাত কারনে কিছু দিনের মধ্যেই নিভে যায় তা। বসিরহাট মহকুমা জুড়ে পানীয় জলে আর্সেনিকেরর সমস্যা থাকলেও তার সুরাহা হয়নি গত পাঁচ বছরে। বেশ কয়েক মাস আগে বসিরহাট পৌরসভা এলাকায় আম্রুত প্রকল্পের কাজে হাত দিলেও তা সম্পন্ন না হওয়ায় বাধ্য হয়ে সেই পুরনো পদ্ধতিতে কোথাও গভীর নলকূপ কিংবা পাম্প হাউসের জরাজীর্ন পাইপ লাইন দিয়ে পরিষেবা দেওয়া দূষিত নোংরা জলের উপরেই ভরসা করে থাকতে হচ্ছে সাধারন মানুষকে। এদিকে গত এক বছর আগে ফেসবুকে একটি পোস্টকে কেন্দ্র করে শুধুমাত্র প্রশাসনের অকমর্নতার জন্যই সাম্প্রদায়িক হিংসার মুখে পড়তে হয়েছিল বসিরহাটবাসীকে। আর এসবকিছুকে চাপা দিতে ও বসিরহাট লোকসভাকে ধরে রাখতেই নুসরত জাহান এর মতো সিনেমা অভিনেত্রীকে দাঁর করানো হয়েছে বলে মত বিশেষজ্ঞ মহলে। লোকসভা নির্বাচনে যেহেতু তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান প্রতিদ্বন্দী দল হয়ে দাঁড়িয়ে বিজেপি, তাই বসিরহাটকে হাত ছাড়া করতে চাইছেননা তারাও। দলীয় সূত্রে খবর বসিরহাট লোকসভা থেকে প্রার্থী হিসাবে বিজেপির বসিরহাট জেলা কমিটির পক্ষ থেকে দাবি জানানো হয়েছে শমীক ভট্টাচার্য্যের নাম। গত ২০১৪ সালে ১৬তম লোকসভা নির্বাচনেও বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্র থেকে লড়াই করেছিলেন শমীক ভট্টাচার্য্য। সেসময় তৃণমূল কংগ্রেসের কাছে পরাজিত হলেও ২০০৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের থেকে প্রায় তিনগুন ভোট পায় বিজেপি। পরবর্তী সময়ে বসিরহাট দক্ষীণ বিধানসভার প্রাক্তন বিধায়ক সিপিএম এর নারায়ন মুখার্জী মৃত্যুর কারনে এই কেন্দ্রে উপনির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী দীপেন্দু বিশ্বাসকে পরাজিত করে জয়ী হয়েছিলেন শমীক ভট্টাচার্য্য। কিন্তু গত ১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে আবারও সেই দীপেন্দু বিশ্বাসের কাছে পরাজিত হতে হয় তাঁকে। গত পাঁচ বছর ধরে বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের পরিচিত মুখ হিসাবে এবারও তাঁকেই এই কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হিসাবে দেখতে চাইছেন দলীয় কর্মীরা। এবিষয়ে কথা বললে এক বিজেপি নেতার বক্তব্য, ‘নুসরত জাহানকে শুধুমাত্র একজন অভিনেত্রী হিসাবে মানুষ তাকে টিভি কিংবা সিনেমার পর্দায় দেখেন। কিন্তু শমীক ভট্টাচার্য্য রাজনৈতিক ব্যক্তি হিসাবেও যেমন পরিচিত ঠিক তেমন প্রায়ই টিভির পর্দায় উপস্থিতির ফলে মানুষের কাছে আরও বেশী পরিচিত হয়ে উঠেছেন তিনি’। আর তাই বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হিসাবে নুসরত জাহান এর থেকে শমীক ভট্টাচার্য্য অনেক বেশী গ্রহণযোগ্য হবেন বলে দাবি বিজেপির। হিন্দুস্থান সমাচার / পরিমল
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image