Hindusthan Samachar
Banner 2 सोमवार, मार्च 25, 2019 | समय 06:51 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

নব্বই বছরের বৃদ্ধাকে মারধরের অভিযোগ ছেলে বৌমার বিরুদ্ধে, অসহায় বৃদ্ধার পাশে দাঁড়াল ভাঙড় থানা

By HindusthanSamachar | Publish Date: Mar 14 2019 7:18PM
নব্বই বছরের বৃদ্ধাকে মারধরের অভিযোগ ছেলে বৌমার বিরুদ্ধে, অসহায় বৃদ্ধার পাশে দাঁড়াল ভাঙড় থানা
ভাঙড়, ১৪ মার্চ (হি.স.) : দক্ষিণ ২৪ পরগণার ভাঙড়ে বছর নব্বইয়ের এক বৃদ্ধার উপর অমানুষিক অত্যাচারের অভিযোগ উঠল ছেলে বৌমার বিরুদ্ধে। ছেলে বৌমার অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে অবশেষে ভাঙড় থানার দ্বারস্থ হলেন আলতামণি নস্কর নামে ঐ বৃদ্ধা। বৃদ্ধার মুখে সমস্ত অত্যাচারের কথা শুনে তার পাশে দাঁড়ালো ভাঙড় থানার পুলিশকর্মীরা। অভিযুক্ত ছেলে বৌমাকে থানায় ডেকে এনে মুচলেকা নিয়ে ছারলেন ভাঙড় থানার ওসি হাবুল আচার্য। ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ও কড়া ভাষায় ওই বৃদ্ধার ছেলে বৌমাকে জানিয়ে দেন তিনি। বয়সের ভারে এখন আর ভালো করে চলা ফেরা করতে পারেনা। দুবেলা খাওয়া পরার জন্য তাই ভরসা নিজের পেটের ছেলে ও বৌমার উপর। অন্য মায়েদের মত দক্ষিণ ২৪ জেলার ভাঙড়ের রাঙসারা গ্রামের আলতামণি নস্কর ও সেই স্বপ্নই দেখেছিলেন। কিন্তু ভাগ্য বিমুখ। খাওয়া পরার জন্য দুবেলা ছেলে বৌমার কাছ থেকে তাকে শুনতে হয় গঞ্জনা। সময় অসময়ে জোটে চড়, লাথি, থাপ্পড়। বৃদ্ধার স্বামী অনেক আগেই মারা গিয়েছেন। পাঁচ ছেলের মধ্যে কিছুদিন আগেই এক ছেলে দেহত্যাগ করেছে। এক ছেলে অসুস্থ। ছোট ছেলে দেবদাসের কাছে ঠাই হয় বৃদ্ধার। ছেলের বিয়ের পর থেকে ছেলে এবং বৌমা নানা ভাবে অত্যাচার করত বলে অভিযোগ। এদিন বৌমা প্রচন্ড মারধর করে গলায় পা তুলে দেয়, মাথার চুল ছিড়ে দেয় বলে অভিযোগ বৃদ্ধার। ছেলে বৌমা দুদিন খেতে ও দেয়নি। শাড়ি, জুতো কিছুই কিনে দেয়না বলে অভিযোগ। আর এই সব অভিযোগ নিয়েই ভাঙড় থানায় হাজির হন ওই বৃদ্ধা। বৃদ্ধার মুখে এই সমস্ত অত্যাচারের কথা শুনে ভাঙড় থানার আধিকারিক হাবুল কুমার আচার্য বৃদ্ধার খাওয়ার ব্যবস্থা করেন। পরার জুতো কিনে নিজের হাতে পড়িয়ে দেন। তিনি বৃদ্ধাকে আশ্বস্থ ও করেন সবসময় পুলিশ পাশে আছে বলে। নিজের দায়িত্বে বৃদ্ধাকে বাড়ি পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। সারাক্ষনের জন্য একজন সিভিক ভলেন্টিয়ারকে বৃদ্ধার খেয়াল রাখার জন্য দায়িত্ব দেন। অন্যদিকে বৃদ্ধার ছেলে দেবদাস নস্করকে ডেকে মুচলেখা লেখা নিয়ে আপাতত ছেড়ে দেন। পরবর্তি সময়ে এমন কিছু ঘটনা ঘটনে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান হাবুল বাবু। হিন্দুস্থান সমাচার / প্রসেনজিত
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image