Hindusthan Samachar
Banner 2 रविवार, मार्च 24, 2019 | समय 00:46 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

আলু চাষে ক্ষতির কারণে ব্যপকভাবে আর্থিক সমস্যার মুখে ঝাড়গ্রামের কৃষকেরা

By HindusthanSamachar | Publish Date: Mar 14 2019 7:56PM
আলু চাষে ক্ষতির কারণে ব্যপকভাবে আর্থিক সমস্যার মুখে ঝাড়গ্রামের কৃষকেরা
ঝাড়্গ্রাম, ১৪ মার্চ ( হি. স.) : ঋণ নিয়ে আলু চাষ করেছিলেন । কিন্তু অকাল বৃষ্টিতে মাঠেই আলু পচে গিয়েছে। যার ফলে কিভাবে ঋণ শোধ করবে তা ভেবে পাচ্ছেন না বিনপুর এক ব্লকের নেপুরা গ্রামের আলু চাষীরা। কৃষকদের বক্তব্য সরকার যদি ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের পাশে না দাঁড়ায় ছেলে মেয়ে নিয়ে পথে বসতে হবে। আলু চাষে ক্ষতির কারণে ব্যপকভাবে আর্থিক সমস্যার মুখে পড়েছেন কৃষকেরা। জানা গিয়েছে বিনপুর এক ব্লকের নেপুরা গ্রামে প্রায় একশো কুড়ি থেকে পঁচিশটি পরিবারের বসবাস। যার মধ্যে বেশির ভাগ পরিবারেই কৃষির উপর নির্ভরশীল। নেপুরা গ্রামের আলু চাষী নেপাল দত্ত বলেন, "এবছর সমবায় সমিতি থেকে ঋণ নিয়ে আড়াই বিঘাতে আলু চাষ করেছিলাম। বৃষ্টির ফলে আলু জমিতে জল জমে যাওয়ায় সব আলু পচে গিয়েছে।" ওই গ্রামের শ্যামল ভুঁই বলেন, "এক বিঘা আলু চাষ করতে প্রায় ১৫ থেকে ১৬ হাজার টাকা খরচ হয়। এবছর আমি এক লক্ষ টাকা নিয়ে আলু চাষ করেছিলাম। প্রাকৃতিক দুর্যোগের জন্য সব আলু পচে গিয়েছে জমিতে। এতটাকার ঋণ কি ভাবে শোধ করবো তা ভেবে পাচ্ছি না। রাতে ঘুম পর্যন্ত হয়নি। এই অবস্থায় সরকার যদি আমাদের পাশে না দাঁড়ায় তা হলে পরিবার নিয়ে পথে বসতে হবে। আমার বিনপুর এক ব্লকের এডিওকে ঋণ ছাড়ের জন্য আবেদন করেছি।" উল্লেখ্য গত ফেব্রুয়ারি মাসে টানা কয়েকদিন অকাল বৃষ্টিপাত, ঝড়ো হওয়ার জেরে আলু জমিতে জল জমে যায়। আলু গাছের গোড়ায় জল জমে যাওয়ার জন্য আলুতে পচন ধরে গিয়েছে। তার উপরে ওই সময় আলুর দাম বেশ নিম্নমুখী থাকায় অনেক চাষী আলু বিক্রি করেনি। এবিষয়ে বিনপুর এক ব্লকের এডিও সৌরভ পাত্র বলেন, "যে সমস্ত কৃষকেরা আলু চাষের জন্য ইন্সুইরেন্স রয়েছে তাদের ইন্সুইরেন্স পাওয়ার ব্যাপারে কোম্পানি গুলির সাথে কথা বলা হয়েছে। এছাড়া যে সমস্ত এলাকায় বেশি ক্ষতি গ্রস্থ হয়েছে সেই সব এলাকায় গিয়ে তদন্ত করে জেলাতে পাঠিয়ে দিয়েছি। যাতে আগামী দিনে ক্ষতি গ্রস্থ কৃষকেরা সরকারের পক্ষ থেকে সুযোগ সুবিধা গুলি পাই তার ব্যাবস্থা করা হয়েছে"। হিন্দুস্থান সমাচার / গোপেশ
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image