Hindusthan Samachar
Banner 2 मंगलवार, अप्रैल 23, 2019 | समय 08:14 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

বীরভূমে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন প্রথম ভোটাররাই সচেতনতা বাড়াতে পথে নামল

By HindusthanSamachar | Publish Date: Apr 11 2019 5:41PM
বীরভূমে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন প্রথম ভোটাররাই সচেতনতা বাড়াতে পথে নামল
সিউড়ি, ১১ এপ্রিল (হি. স.) : ‘আমরা ভোট দিতে যাচ্ছি, তোমরাও এসো’। এই ডাক যারা দিচ্ছে তারা আর পাঁচজনের মতো নয়। শারিরিক প্রতিবন্ধকতা থাকলেও নিজেদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগে তারা উতসাহী। আর তাই তাদেরই সামনে সাড়িতে রেখে বীরভূম জেলায় নির্বাচন কমিশন ভোটারদের ভোটদানে উৎসাহ বাড়াতে ততপর। অঙ্কিতা সরকার, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন এক সদ্য আঠারো পা দেওয়া তরুনী। এতদিন মা-বাবার সঙ্গে ভোট গ্রহন কেন্দ্রে যেত সে। অঙ্কিতার মা সুচিত্রাদেবী বলে ভোটকর্মীকে বলতেন মেয়ের হাতের আঙুলে একটি কালি দিয়ে দেওয়ার। বাড়ি ফিরে মা বোঝাতেন ভোট হয়ে গেছে। কিন্তু এবার তো আঠারো পেরিয়ে গিয়েছে অঙ্কিতার। তাই সুচিত্রাদেবীই উতসাহী হয়ে মেয়ের নাম তুলিয়েছেন ভোটার তালিকায়। লোকসভাতে অঙ্কিতার গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগের হাতেখড়ি হবে। মৃনাল দাস, প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে খেলার মাঠে নিজের প্রতিভার ছাপ দেখিয়েছে সে। জাতীয় স্তরে বৈচে বল ও শটপার্টে সোনা এবং চারশ মিটার দৌড়ে রুপো পদক জেতে সে। আইটিআইয়ের ওই ছাত্রও এবার প্রথম ভোটার। আব্বাস আহমেদও একজন বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন তরুণ। ইতিমধ্যে আন্তরাজ্য প্রতিযোগিতাইয় একশ মিটার দৌড়ে সোনা ও শটপার্টে রুপো রয়েছে তার ঝুলিতে। এদের মতোই বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন পাঁচজনকে বেছে নিয়েছে বীরভূম জেলা প্রশাসন। আর তাদের সঙ্গে রয়েছে সুস্থ স্বাভাবিক তিন কন্যা, যারা ইতিমধ্যে মহিলা ফুটবলে নিজেদের দক্ষতার পরিচয় দিয়েছে। এই মোট আটজনকে সামনের সাড়িতে রেখে সকলকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানতে একটি দল গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। এই আটজনকে নিয়ে একটি গাড়ি প্রতিদিন ঘুরে বেড়াবে বীরভূমের বিভিন্ন ব্লকে। ঠিক প্রথমদিনটা যেমন তারা প্রচার করল মুরারইয়ে। নতুন ভোটারদের ভোটদানে উতসাহী করার ক্ষেত্রে তাদের যেমন বিশেষ ভূমিকা থাকছে তেমনি বাকি ভোটারদেরও গনতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগে সচেতন করার কাজও তারা করবে। এদিন মৃণাল বলে, “প্রতিবন্ধী আমি জেনেও জীবনে তার প্রভাব পরতে দিইনি। খেলার মাঠে, লেখাপড়ায় নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছি। আমি ভোট দিতে যাব। বাকিদেরও ভোটদানে সচেতন করতে পারছি। আমার খুব ভালো লাগছে”। অন্যদিকে অঙ্কিতা বলে, “আমি এবার ভোট দেব। সবাইকে বলব ভোট দিন”। জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসু বলেন, “সকল ভোটার ভোট দেবেন এটা আমাদের অন্যতম লক্ষ্য। কমিশন অনেকগুলি পদক্ষেপ নিয়েছে।এটা তারই একটি” হিন্দুস্থান সমাচার / হেমাভ
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image