Hindusthan Samachar
Banner 2 रविवार, अप्रैल 21, 2019 | समय 01:59 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের ঘরের মেঝেতে ধরনায় মুকুল রায়

By HindusthanSamachar | Publish Date: Apr 12 2019 4:34PM
মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের ঘরের মেঝেতে ধরনায় মুকুল রায়
কলকাতা, ১২ এপ্রিল (হি.স): শুক্রবার মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের ঘরের মেঝেতে ধরনায় বসে পড়লেন মুকুল রায়ের নেতৃত্বে বিজেপি প্রতিনিধি দল। তাদের দাবি, সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করতে হবে। লোকসভার নির্বাচনের প্রথম দফায় বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গে ভোট হয়েছে কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ার আসনে। তারপর সন্ধ্যাতেই জেলা শাসকের দফতরের সামনে ধর্নায় বসে পড়েছিলেন কোচবিহারের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক। তাঁর অভিযোগ ছিল, যে সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী ছিল না, সেখানে রাজ্য পুলিশের সঙ্গে আঁতাত করে অবাধে ছাপ্পা দিয়েছে তৃণমূল। সেই একই দাবিতে শুক্রবার মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক আরিজ আফতাবের দফতরে গিয়ে ধরনায় বসলেন মুকুল রায়রা। তাঁদের মূল দাবি, ভোট অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে হবে। যতক্ষণ পর্যন্ত পুলিশ ও প্রশাসনের উপর মহল থেকে তৃণমূলের ‘পেটোয়া’ অফিসারদের না সরানো হচ্ছে, ততক্ষণ বাংলায় নিরপেক্ষ ও অবাধ ভোট করানো সম্ভব নয়। সেই সঙ্গে সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী দিতে হবে। বৃহস্পতিবারই বাংলায় আরও ২৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন। শুক্রবার তা আরও ২৬ কোম্পানি বাড়ানো হয়েছে। মোট ১৩৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী আপাতত পাঠানো হয়েছে বাংলায়। ১৮ এপ্রিল দ্বিতীয় দফার ভোট হবে জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং ও রায়গঞ্জ আসনে। বিজেপির দাবি, সেখানে সব বুথে কেন্দ্রীয়বাহিনী দিতে গেলে ১৩৪ কোম্পানিও যথেষ্ট নয়। তা আরও বাড়াতে হবে। রাজনৈতিক মহলের মতে, পরের দফার নির্বাচনগুলির জন্য কমিশনের উপর চাপ বাড়াতে শুরু করল বিজেপি। আজকের ধরনা সেটারই একটা কৌশল। যাতে কেন্দ্রীয়বাহিনীর সংখ্যা আরও বাড়ানো যায়। বিজেপি চাইছে, মানুষ নিজের ভোট নিজে দিক। সেটা যদি কমিশন করতে পারে তাহলেই তাদের অর্ধেক কাজ হয়ে যাবে। এরআগে মুকুল রায়ই কোচবিহারের রাসমেলার মাঠে নরেন্দ্র মোদীর জনসভা থেকে ওই জেলার পুলিশ সুপার অভিষেক গুপ্তর বিরুদ্ধে তৃণমূলকে সাহায্য করার অভিযোগ তুলেছিলেন। বাম, কংগ্রেস নেতারাও অভিযোগ জানিয়েছিলেন ওই এসপির বিরুদ্ধে। ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে কমিশন বদলি করে দেয় ওই জেলার পুলিশ সুপার অভিষেক গুপ্তকে। নবান্নের নির্দেশে ডেপুটেশনে বিহারে পাঠিয়ে দেওয়া পুলিশ আধিকারিক অমিত কুমার সিংকে কোচবিহারের এসপি করে নিয়ে আসে কমিশন। এনিয়ে তৃণমূল ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করেছিল। হিন্দুস্থান সমাচার / হীরক/ সঞ্জয়
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image