Hindusthan Samachar
Banner 2 मंगलवार, अप्रैल 23, 2019 | समय 07:52 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

ত্রিপুরায় চিকিৎসক নিগ্রহ : এসকর্ট প্রত্যাহার করতে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি স্বাস্থ্যমন্ত্রী সুদীপের

By HindusthanSamachar | Publish Date: Apr 13 2019 2:29PM
ত্রিপুরায় চিকিৎসক নিগ্রহ : এসকর্ট প্রত্যাহার করতে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি স্বাস্থ্যমন্ত্রী সুদীপের
আগরতলা, ১৩ এপ্রিল (হি.স.) : নিজের এসকর্ট প্রত্যাহার করে নিতে ত্রিপুরা সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতরের মন্ত্রী সুদীপ রায়বর্মণ চিঠি পাঠিয়েছেন গৃহ মন্ত্রকের দায়িত্বপ্রাপ্ত মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেবকে। শুক্রবার সন্ধ্যায় মুখ্যমন্ত্রীকে প্রেরিত চিঠিতে এসকর্ট প্রত্যাহার সম্পর্কিত সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। চিঠিতে তিনি লিখেছেন, রাজ্যের স্বাস্থ্যকর্মী এবং চিকিৎসকদের যেখানে কোনও নিরাপত্তা নেই, সেখানে তাঁর নিজের সুরক্ষা নিয়ে ভাবেন না তিনি। সুদীপ লিখেছেন, হাসপাতালের মধ্যে ডাক্তারকে মারধর করা হচ্ছে। অবাক করার বিষয়, যারা চিকিৎসকদের ওপর হামলা চালিয়েছে তারা এখনও মুক্ত। তাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না। এতে মানসিকভাবে চিকিৎসকরা ভেঙে পড়েছেন বলে চিঠিতে উল্লেখ করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তাই তিনি তাঁর এসকর্ট ছেড়ে দিতে চান। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে লিখিত চিঠিতে তিনি বলেছেন, একজন ডাক্তারকে হাসপাতাল থেকে অপহরণ করে নিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে। তার পর যথারীতি অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে আবার জামিনে কী করে মুক্তি দেওয়া হল? এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সুদীপ রায়বর্মণ। শুক্রবার রাতে দক্ষিণ জেলার সাব্রুম থেকে ফিরে এসে আইনমন্ত্রী রতনলাল নাথ রাত ১১টা নাগাদ এ খবর দিয়ে জানান, সরকার বিষয়টি নিয়ে গুরুত্ব সহকারে দেখছে। তাই রাত নয়টার পর হাইকোর্টে বিশেষ বেঞ্চে শুনানি গ্রহণ করা হয়। আইজিএম হাসপাতালে ডাক্তারকে মারধর করার সঙ্গে জড়িত পাঁচ অভিযুক্তকে জামিন দিয়েছিল নিম্ন আদালত। রাতে হাইকোর্টের বিশেষ বেঞ্চ ওই পাঁচ অভিযুক্তের জামিন বাতিল করা হয়। পাশাপাশি রতনলাল নাথ ডাক্তারদের প্রতি আহ্বান রাখেন, তাঁরা রোগীর চিকিৎসা করবে না বলে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা যেন প্রত্যাহার করা হয়। রতনলাল নাথকে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এসকর্ট ছাড়ার সিদ্ধান্তের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান. স্বাস্থ্যমন্ত্রী হয়ত বেশি আবেগপ্রবণ হয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে সরকার যেভাবে পদক্ষেপ নিচ্ছে তাতে তাঁর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা উচিত। প্রশ্ন উঠেছে, সরকার ডাক্তারদের ওপর আক্রমণের ঘটনা নিয়ে ভাবছে ঠিক, কিন্তু যে ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের গাফিলতিতে রোগিণীর মৃত্যু হল সে ব্যাপারে সরকার কী করছে? হিন্দুস্থান সমাচার / সুদীপ / এসকেডি/ সঞ্জয়
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image