Hindusthan Samachar
Banner 2 शुक्रवार, अप्रैल 19, 2019 | समय 06:24 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

বাঁকুড়ায় পানীয় জল ও রেল যোগাযোগ বাস্তবায়িত করার অঙ্গীকার বিজেপি প্রার্থীর

By HindusthanSamachar | Publish Date: Apr 13 2019 6:59PM
বাঁকুড়ায় পানীয় জল ও  রেল যোগাযোগ বাস্তবায়িত করার অঙ্গীকার বিজেপি প্রার্থীর
বাঁকুড়া, ১৩ এপ্রিল (হি. স.) : সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর শালতোড়া বিধানসভার অন্তর্গত দামোদর নদীর উপর কুখড়াকুড়ি ঘাটে স্থায়ী সেতু নির্মাণ ও মেজিয়া রানীগঞ্জ রেল যোগাযোগ বাস্তবায়িত করা হবে তার প্রথম কাজ বলে অঙ্গীকার করলেন বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ডা: সুভাষ সরকার । শনিবার শালতোড়ায় নির্বাচনী প্রচারে এসে ৮টি পঞ্চায়েত এলাকায় তিনি রোড শো ও নির্বাচনী সভা করেন । দামোদর নদীর ধারে শালতোড়া থানার বিস্তীর্ণ এলাকায় পানীয় জলের সমস্যা বড় আকার ধারণ করেছে সেই সঙ্গে আসানসোলের সঙ্গে বাঁকুড়ার যোগাযোগের প্রধান অন্তরায় কুখড়াকুড়ি ঘাটে দামোদর নদীর উপর সেতু নির্মাণ এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি তৃণমূল সরকার প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর বাম আমলের মতোই উপেক্ষিতএকথা মাথায় রেখেই বিজেপি প্রার্থী সুভাষ বাবু এই অঙ্গীকার করেন এলাকার মানুষের মন জয় করার চেষ্টা করেন ।তার এই অঙ্গীকারে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানায় । আগাগোড়া কর্মী-সমর্থক দ্বারা পরিবেষ্টিত সুভাষ বাবু বিভিন্ন এলাকায় রোড শো এর মাধ্যমে জনসংযোগ এর পাশাপাশি তার মূল প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী সুব্রত মুখার্জির সমালোচনা করে বলেন তার মূল প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান রাজ্য শাসকদলের পঞ্চায়েত মন্ত্রী ।তিনি নাকি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর ফুল মার্কস পাওয়া একজন মন্ত্রী ।তিনি এ প্রসঙ্গে বলেন, এই শালতোড়া এলাকাতে বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিরোধী দলের কোন প্রার্থীকে মনোনয়নপত্র জমা দিতে দেওয়া হয়নি সে কারণে তিনি তো ফুল মার্কস পাবেনই ।এহেন মন্ত্রী মহাশয় নির্বাচনী প্রচারে এসে বাঁকুড়ার মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছেন পানীয় জল সমস্যার সমাধান করা হয়েছে কিন্তু বাস্তবে তা যে কত বড় ধাপ্পাবাজি তা শালতোড়ার মানুষ ভালো বোঝেন । এদিন তিনি উপস্থিত জনতার হাতে বোতল বন্দী পানীয় জল তুলে দিয়ে ধাপ্পাবাজির সমালোচনা করেন ।সুব্রত বাবুর নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির জবাবে সুভাষবাবু বলেন শালতোড়া, মেজিয়া এলাকা প্রাকৃতিক ওখনিজ সম্পদে ভরপুর অথচ তা সঠিক কাজে না লাগিয়ে ওনারা প্রাকৃতিক সম্পদ লুঠ করাচ্ছেন ।বেকার যুবকদের লুঠের কাজে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে ।জেলায় বন্ধ কলকারখানা খোলার কোনও ব্যবস্থা নেই, জেলার বেকার ভায়েরাচাকুরির জন্য ছুটে বেড়াচ্ছে । কুখড়াকুড়ি ঘাটে স্থায়ী সেতু তৈরির জন্য আন্দোলন রত এলাকার প্রায় তিন শতাধিক ষুবক তৃণমূল ছেড়ে এদিন বিজেপিতে যোগ দেন বলে জানানো হয়েছে জেলা বিজেপির পক্ষ থেকে ।তেতুলিয়া রাখ গ্রামে বিজেপিতে যোগদানকারী সুদিন মন্ডল, সুধাময় গরাই, অশেষ মন্ডলরা বলেন এই সেতু দীর্ঘ বাম আমলে উপেক্ষিত থাকার পর অনেক আশা নিয়ে তৃণমূলে যোগ দিই ।টনক নড়াতে দুবার এলাকার বাসিন্দারা আমরন অনশন শুরু করি কিন্ত কোন ও বারে এলাকার বিধায়ক, সাংসদ কেউ দেখা করার সৌজন্যে দেখায় নি, উপরন্তু জোর করে প্রশাসনিক চাপে অনশন তুলে নিতে বাধ্য হই ।এই সেতু তৈরি হলে আসানসোলের সঙ্গে এই এলাকার যোগাযোগ সহজ হবে, যে ২০ /২৫ হাজার মানুষ দৈনিক এই নদীর উপর দিয়ে যাতায়াত করেন তাদের সুরাহা হবে। সুভাষ বাবু এদিন এলাকার বাসিন্দাদের মনের কথা অঙ্গীকার করেন । হিন্দুস্থান সমাচার / সোমনাথ
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image