Hindusthan Samachar
Banner 2 शुक्रवार, अप्रैल 19, 2019 | समय 05:53 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

জয়া প্রদা সম্পর্কে অশালীন মন্তব্য : আজম খানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের, তীব্র নিন্দা অমিত শাহ ও সুষমার

By HindusthanSamachar | Publish Date: Apr 15 2019 2:43PM
জয়া প্রদা সম্পর্কে অশালীন মন্তব্য : আজম খানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের, তীব্র নিন্দা অমিত শাহ ও সুষমার
লখনউ ও নয়াদিল্লি, ১৫ এপ্রিল (হি.স.): উত্তর প্রদেশের রামপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী তথা প্রবীণ অভিনেত্রী জয়া প্রদা সম্পর্কে ‘অশালীন’ ও ‘কুরুচিকর’ মন্তব্যের জের, এফআইআর দায়ের হল সমাজবাদী পার্টি (সপা)-র নেতা আজম খানের বিরুদ্ধে| এখানেই শেষ নয়, জয়া প্রদা সম্পর্কে ‘অশালীন’ মন্তব্য উচ্চারণ করায় সপা নেতা আজম খানকে নোটিশ পাঠাল জাতীয় মহিলা কমিশন| রবিবার উত্তর প্রদেশের রামপুরে বিজেপি প্রার্থী জয়া প্রদা সম্পর্কে ‘অশালীন’ ও ‘কুরুচিকর’ মন্তব্য করে আজম খান বলেছিলেন, ‘আমি মাত্র ১৭ দিনেই বুঝতে পেরেছি যে তাঁর নিচের অন্তর্বাস খাকি রঙের|’ একইসঙ্গে আজম খান বলেছিলেন, ‘আমি কারও নাম উল্লেখ করিনি| আমি জানি কি বলা উচিত| যদি কেউ প্রমাণ করতে পারেন, আমি কারও নাম উল্লেখ করেছি এবং কাউকে অপমান করেছি, তাহলে ভোটে লড়ব না|’ উপরোক্ত ‘খাকি রঙের অন্তর্বাস’ সম্পর্কিত মন্তব্যের কারণেই সোমবার সকালে বিতর্কিত সপা নেতা আজম খানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে| রামপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) এস এইচ মীনা জানিয়েছেন, ‘আজম খানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে| বাকি তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ|’ পাশাপাশি ‘কুরুচিকর’ মন্তব্যের জন্য আজম খানকে নোটিশ পাঠিয়েছে জাতীয় মহিলা কমিশন| সপা নেতা আজম খানের বিরুদ্ধে তোপ দেগে জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা বলেছেন, ‘তিনি সর্বদাই মহিলাদের সম্পর্কে নোঙরা কথা বলেন এবং এবারের নির্বাচনে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার মহিলা রাজনীতিকের বিরুদ্ধে তিনি নোঙরা কথা বললেন| জাতীয় মহিলা কমিশন তাকে নোটিশ পাঠিয়েছে|’ জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা আরও বলেছেন, ‘এ ব্যাপারে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য নির্বাচন কমিশনকেও আমরা লিখিতভাবে জানাচ্ছি| সর্বোচ্চ সীমা অতিক্রম করেছেন তিনি, তাকে এবার থামতে হবে| মহিলারা যৌন বস্তু নয়| আমি মনে করি, এই ধরনের মানুষকে ভোট দেওয়া থেকে বিরত থাকা উচিত মহিলাদের|’ আজম খানের মন্তব্য প্রসঙ্গে অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী অফিসার বি আর তিওয়ারি জানিয়েছেন, ‘বিষয়টির গুরুত্ব বিবেচনা করে সংশ্লিষ্ট জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে| শীঘ্রই রিপোর্ট হাতে পাব আমরা| ডিএম-এর কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে, আজম খানের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে| প্রবীণ অভিনেত্রী তথা বিজেপি প্রার্থী জয়া প্রদা সম্পর্কে সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খানের ‘কুরুচিকর’ মন্তব্যের জেরে তোলপাড় দেশের রাজনৈতিক মহল| আজম খানের ‘অশালীন’ মন্তব্যকে লজ্জাজনক আখ্যা দিয়েছে সমাজবাদী পার্টি| সপা-র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আজম খানের ওই মন্তব্যের সঙ্গে দলের কোনও সম্পর্ক নেই| পাশাপাশি কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ টুইট করে লিখেছেন, ‘মুলায়ম ভাই-আপনিই সমাজবাদী পার্টির পিতামহ| আপনার সামনেই দ্রৌপদীর বস্ত্রহরণ হচ্ছে| ভীষ্মের মতো আপনিও নীরবতা পালন করে ভুল করবেন না|’ এছাড়াও আজম খানের ‘কুরুচিকর’ মন্তব্যের প্রেক্ষিতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ বলেছেন, ‘শুধুমাত্র আজম খান নন, সমাজবাদী পার্টি এবং বহুজন সমাজ পার্টিকেই দেশের কোটি কোটি মহিলাদের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে|’ এছাড়াও আজম খানের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি নেত্রী স্মৃতি ইরানি এবং দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেত্রী শীলা দীক্ষিত| আজম খানের মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করে সোমবার যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, ‘এই ধরনের মন্তব্যই সমাজবাদী পার্টির চিন্তাভাবনা এবং সংস্কৃতির আভাস দিচ্ছে| সপা প্রধান এবং তাঁর সঙ্গী মায়াবাতীর নীরবতা, সত্যিই বিস্ময়কর| এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক....আজম খানের মন্তব্য খুবই অসম্মানজনক| তার ছোট মানসিকতার পরিচয়|’ শুধুমাত্র যোগী আদিত্যনাথ নন, আজম খানকে তুলোধনা করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি নেত্রী স্মৃতি ইরানিও| স্মৃতি ইরানির কথায়, ‘মহিলাদের সম্পর্কে অবমাননাকর মন্তব্য করা হচ্ছে এবং সপা নেতারা চুপ করে বসে আছেন| তাঁদের কাছে আমার অনুরোধ, রাজনীতির সময় রাজনীতি করুন, একইসঙ্গে মহিলাদের সম্মানও করুন|’ আজম খানের মন্তব্যের নিন্দা করে প্রবীণ কংগ্রেস নেত্রী শীলা দীক্ষিত বলেছেন, ‘খুবই নিন্দনীয়| অবিলম্বে মহিলাদের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত তাঁর| এই ধরনের মন্তব্য অসমর্থনযোগ্য, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত|’ আজম খানের ‘কুরুচিকর’ মন্তব্যের প্রেক্ষিতে সোমবার সকালে অভিনেত্রী-রাজনীতিক জয়া প্রদা বলেছেন, ‘তাকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার অনুমতি দেওয়া উচিত নয়| কারণ এই ধরনের মানুষ যদি নির্বাচনে জয়লাভ করে, তবে গণতন্ত্রের কী হবে? সমাজে মহিলাদের জন্য কোনও জায়গাই থাকবে না| আমরা সেক্ষেত্রে কোথায় যাব? আমি কি মরে যাব, তবেই আপনার শান্তি হবে? আপনি কি ভেবেছেন আমি ভয় পেয়ে রামপুর ছেড়ে চলে যাব? আমি রামপুর ছাড়ছি না|’ জয়া প্রদা আরও বলেছেন, ‘এটা আমার জন্য নতুন কিছু নয়, আপনাদের নিশ্চয়ই মনে আছে ২০০৯ সালে আমি যখন সপা দলের প্রার্থী হয়েছিলাম, সেই সময়ও তিনি (আজম খান) আমার বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্য করেছিলেন, তখনও কেউ আমাকে সমর্থন করেনি| আমি একজন মহিলা, আর তাই তিনি কি বলেছিলেন, তার পুনরাবৃত্তি করতে পারব না|’ হিন্দুস্থান সমাচার/ রাকেশ
लोकप्रिय खबरें
फोटो और वीडियो गैलरी
image