Custom Heading

৩.৪ প্রাবল্যের মৃদু ভূমিকম্প অরুণাচল প্রদেশে
ইটানগর / গুয়াহাটি, ১৩ অক্টোবর (হি.স.) : ফের ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে অরুণাচল প্রদেশ। আজ বুধবার অরুণাচল
Earthquake measuring 3.৪ magnitude jolts Arunachal Pradesh


ইটানগর / গুয়াহাটি, ১৩ অক্টোবর (হি.স.) : ফের ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে অরুণাচল প্রদেশ। আজ বুধবার অরুণাচল প্রদেশের পূর্ব কামেং জেলায় বিকেল ভারতীয় সময় ০৪-টা ১০ মিনিট ১৩ সেকেন্ডে রিখটার স্ক্যালে ৩.৪ প্রবল্যের ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। তবে সংঘটিত ভূমিকম্পে কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। ভূমিকম্পের তীব্রতা কম হওয়ায় অধিকাংশ মানুষ এর কম্পন টের পাননি।

ন্যাশনাল সেন্টার ফর সিসমোলোজি প্রকাশিত তথ্যে জানা গেছে, আজ সংঘটিত ভূমিকম্পের উৎসস্থল ছিল রাজ্যের পূর্ব কামেং জেলার ভূগৰ্ভের ১২ কিলোমিটার গভীরে ২৭.৮৯ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯২.৭৩ দ্রাঘিমাংশে।

এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে, সাম্প্রতিককালে ঘন ঘন ভূমিকম্প সংঘটিত হচ্ছে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন রাজ্যে। গতকালও অনুরূপ ভূমিকম্পে কেঁপেছে মণিপুরের চান্দেল জেলা ও সংলগ্ন এলাকা। এদিন সকাল ০৮-টা ৫০ মিনিট ১৬ সেকেন্ডে সংঘটিত ভূমিকম্পের তীব্রতা রিখটার স্ক্যালে ৩.৪ ধরা পড়েছিল।

এছাড়া গত ৪ অক্টোবর অরুণাচল প্রদেশের সিয়াং জেলায় ভোররাত ভারতীয় সময় ১২-টা ১৪ মিনিট ০৮ সেকেন্ডে রিখটার স্ক্যালে ৪.৪ প্রবল্যের ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছিল। পরেরদিন মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) সকাল ০৮-টা ০৮ মিনিট ১৬ সেকেন্ডে ৪.৪ প্রবল্যের মৃদু ভূমিকম্প সংঘটিত হয় ওই রাজ্যের সিয়াং জেলার পানগিন অঞ্চলে। এভাবে গত ২৯ সেপ্টেম্বর এবং ৩ অক্টোবর মধ্য অসমের শোণিতপুর জেলা কেঁপে উঠেছিল ভূমিকম্পে।

প্রসঙ্গত, গত প্রায় বছর-খানেকের মধ্যে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলিতে ক্রমাগত ভূমিকম্প হচ্ছে। অসমের শোণিতপুর জেলা এবং অরুণাচল প্রদেশ, মিজোরাম, মণিপুরে সবচেয়ে বেশি ভূমিকম্প হয়েছে। ২০১৯-এর ডিসেম্বর থেকে আজ পর্যন্ত উত্তর-পূর্বাঞ্চলে প্রায় ১১৮ বার ভূমিকম্প হয়েছে। উত্তরপূর্বে ঘন ঘন ভূমিকম্পের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে ন্যাশনাল সেন্টার ফর সিসমোলজির বিজ্ঞানীরা বলছেন, সিসমিক জোন ৫-এ অবস্থিত হওয়ায় উত্তর-পূর্বাঞ্চলে প্রায়ই ছোটখাটো কম্পন অনুভূত হয় এবং হবে। এতে অস্বাভাবিক এবং আতঙ্কিত হওয়ার তেমন কারণ নেই। তাঁদের কথায়, ভারতীয় প্ল্যাট প্রতি বছর উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে ৫ সেন্টিমিটার করে সরে। এতে ঘর্ষণ হয়। ফলে ভূমিকম্প অনুভূত হচ্ছে। বলা হচ্ছে, অরুণাচল প্রদেশের উত্তর দিকে আন্তর্জাতিক সীমান্তবর্তী এলাকায় বেশি ভূমিকম্প হয়। তেমনি মণিপুর ও মিজোরামের পূর্ব দিকে মায়ানমার অঞ্চলে ক্রমাগত ঘর্ষণে ভূমিকম্প হয়ে থাকে। তার প্রভাবে ওই দুই রাজ্যেও ঘন ঘন ভূকম্প অনুভূত হচ্ছে।

হিন্দুস্থান সমাচার / সমীপ / অরবিন্দ


 rajesh pande