Custom Heading

নাগাল্যান্ডের কয়েকটি জেলায় ফের আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার-এর প্রাদুর্ভাব, সতর্কতা জারি
কোহিমা (অসম), ১৫ জানুয়ারি (হি.স.) : নাগাল্যান্ডের কয়েকটি জেলায় ফের আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার (এএসএফ)-এর
African Swine Fever outbreak in Nagaland


কোহিমা (অসম), ১৫ জানুয়ারি (হি.স.) : নাগাল্যান্ডের কয়েকটি জেলায় ফের আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার (এএসএফ)-এর প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। রাজ্যের পশুপালন ও পশু চিকিৎসা পরিষেবা বিভাগ এই খবর নিশ্চিত করে সাধারণ জনগণকে সাবধানতা অবলম্বন করতে বলেছে।

রাজ্যের পশুপালন ও পশু চিকিৎসা পরিষেবা বিভাগ এক বিবৃতি জারি জানিয়েছে, গুয়াহাটির খানাপাড়ায় অবস্থিত নর্থ-ইস্টার্ন রিজিওনাল ডিজিজ ডায়াগনস্টিক ল্যাবরেটরি (এনএইচডিআরডিডিএল) রিয়েল টাইম পলিমারেজ চেইন রিঅ্যাকশন (আরটিপিসিআর) পরীক্ষার মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। মককচং জেলার অন্তর্গত লংজংকং ও সাটির গ্রাম এবং ফেক জেলার অধীন কুজাতু গ্রাম, ওয়াজেহো ব্লক থেকে শূকরের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য গুয়াহাটির এনএইচডিআরডিডিএল-এ পাঠানো হয়েছিল।

এনএইচডিআরডিডিএল-এর কাছ থেকে রিপোর্ট আসার পর সংশ্লিষ্ট এলাকা তথা রাজ্যের জনসাধারণ, শূকর চাষি, শূকর ব্যবসায়ী, কসাইদের সতর্ক ও সজাগ থাকার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। পাশাপাশি গৃহপালিত শূকর বা খামারের শূকর বা বুনো শূকরের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটলে এর খবর জরুরি ভিত্তিত নিকটবর্তী পশুপালন ও পশু চিকিৎসা পরিষেবা বিভাগ তথা প্রাণী অধিকরণকে অবগত করতে বিভাগীয় কর্তৃপক্ষ অনুরোধ জানিয়েছেন। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘প্রাণী আইন, ২০০৯-এর সংক্রমণ এবং সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ’-এর বলে ভারত সরকার কর্তৃক জারিকৃত জাতীয় কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী বন ও পরিবেশ এবং জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত সেরো-সার্ভেইল্যান্স নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূলের জন্য পশুপালন ও পশু চিকিৎসা পরিষেবা দফতর আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার সম্পর্কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।

অধিকন্তু, মককসং এবং ফেক জেলার অধীনস্থ আক্রান্ত গ্রামগুলিতে রোগ প্রাদুর্ভাবের কেন্দ্রস্থল থেকে এক কিলোমিটার ব্যাসার্ধকে সংক্রমিত অঞ্চল এবং ১০ কিলোমিটার ব্যাসার্ধকে সার্ভেইল্যান্স অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই নির্দেশ বলবৎ থাকবে, জানানো হয়েছে বিভাগীয় বিবৃতিতে।

হিন্দুস্থান সমাচার / সমীপ / অরবিন্দ


 rajesh pande