Custom Heading

কংগ্রেস এখন টাইটানিক জাহাজের মতো একটি দল, বলেছেন ডিমা হাসাওয়ের নব্য-তৃণমূলি মাংগলিন
‘তৃণমূল বাঙালির দল’, অসমের মন্ত্রী পীযূষের মন্তব্য, বিরোধিতা সেতমিংথাঙের হাফলং (অসম), ১৪ মে (হি.স.)
Three leaders of the Trinamool Congress in Dima Hasao


‘তৃণমূল বাঙালির দল’, অসমের মন্ত্রী পীযূষের মন্তব্য, বিরোধিতা সেতমিংথাঙের

হাফলং (অসম), ১৪ মে (হি.স.) : কংগ্রেস এখন টাইটানিক জাহাজের মতো একটি দল। টাইটানিক জাহাজ দেখতে যেমন সুন্দর ছিল, কিন্তু মাঝ-সমুদ্রে যেমন ভেঙে পড়েছিল, ঠিক কংগ্রেসের অবস্থাও টাইটানিকের অবস্থা হয়েছে। মাঝ-পথেই ভেঙে যাচ্ছে কংগ্রেস, বলেছেন সদ্য কংগ্রেসত্যাগী নব্য-তৃণমূলি মাংগলিন হাওলাই।

এক সাক্ষাৎকারে তৃণমূলে যোগদানকারী মাংগলিন হাওলাই বলেন কংগ্রেসের আজ শোচনীয় অবস্থা। যার দরুন অনেক কংগ্রেস নেতা ও কর্মী দল ছাড়ছেন। গত ১১ মে গুয়াহাটিতে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছেন মাংগলিন। আরেক কংগ্রেস-ছুট তৃণমূল কংগ্রেসের ডিমা হাসাও জেলার আহ্বায়ক আচিং জেমি বলেন, ডিমা হাসাও কংগ্রেসে সংখ্যলঘু নেতাদের কোনও দাম নেই। কারণ কংগ্রেস নেতারা এখন সংখ্যালঘু নেতাদের কথা কানে তুলেন না। তাই কংগ্রেস দলও এখন বিজেপির মতো একটি সাম্প্রদায়িক দলে পরিনণত হয়েছে। তাই আমরা কংগ্রেস দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছি। আচিং বলেন, কংগ্রেসের ব্লক, মণ্ডল, বুথ পর্যায়ে আরও বহু নেতা কর্মী দল ছাড়তে প্রস্তুত হচ্ছেন এবং এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদানের সম্ভাবনা প্রবল। তার পরই তৃণমূল কংগ্রেসের ডিমা হাসাও জেলা কমিটি গঠন করা হবে, জানান আচিং।

এছাড়া আরেক নতুন তৃণমূল নেতা সেতমিংথাং খংসাই বলেন, বিজেপি দলের সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার মতো এখন আর কংগ্রেসের ক্ষমতা নেই। কারণ বিজেপির মতো কংগ্রেসও একটি সাম্প্রদায়িক দল, যে দল এখন বিজেপির মতো জাতপাত-ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করছে। তাই এই দলের সঙ্গ ত্যাগ করা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই। কারণ আমাদের মতো সংখ্যালঘু নেতাদের দলে কোনও দাম নেই। তিনি বলেন, চায়ের দোকানে বসে কিছু নেতা যা বলেন তা শুনেই কংগ্রেস নেতারা কাজ করেন বলে অভিযোগ তুলে সেতমিংথাং বলেন, কংগ্রেসকে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো এখন নেতা নেই। যার দরুন আজ কংগ্রেসের এই অবস্থা। তাই আমরা কংগ্রেসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে জোড়া ফুলের হাত ধরতে বাধ্য হয়েছি।

তিনি বলেন, তৃণমূল বাঙালির দল। রাজ্যের মন্ত্রী পীযূষ হাজরিকার এই মন্তব্যের বিরোধিতা করে সেতমিংথাং খংসাই বলেন, এ ধরনের মন্তব্য শুধু একটি সাম্প্রদায়িক দলের নেতা-ই করতে পারেন। তিনি বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস কলকাতা-ভিত্তিক দল হলেও এটি একটি রাষ্ট্রীয় দল। সে হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তার মানে এই নয় যে তৃণমূল বাঙালির দল। সেতমিংথাং বলেন, আমরা-তো বাঙালি নই, তা-হলে আমরা কেন তৃণমূলে যোগ দিলাম।? এ প্রশ্ন ছুঁড়ে সেতমিংথাং খংসাই বলেন, গুজরাটের ব্যবসায়ীর সঙ্গে থাকার চেয়ে বাঙালির যে দেশভক্তির উদাহরণ রয়েছে একেই অনুসরণ করা উচিত।

হিন্দুস্থান সমাচার / নিরুপম / অরবিন্দ


 rajesh pande