Custom Heading

উপলব্ধিতে পরিপূর্ণ ছিল বিগত ৩ বছর : সমীর কুমার
নয়াদিল্লি, ১৪ মে (হি.স.): বিশ্বের সবচেয়ে বেশি দর্শক ও শ্রোতা রয়েছে, এমন একটি পাবলিক ব্রডকাস্টিং স
সমীর কুমার


নয়াদিল্লি, ১৪ মে (হি.স.): বিশ্বের সবচেয়ে বেশি দর্শক ও শ্রোতা রয়েছে, এমন একটি পাবলিক ব্রডকাস্টিং সার্ভিস হল প্রসার ভারতী। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রসার ভারতী দু'টি প্রধান মাধ্যম দূরদর্শন এবং আকাশবাণী-র জনপ্রিয়তা প্রসারিত করার জন্য, ২০১৯ সালের মে মাসে একটি ডিজিটাল শাখা গঠন করেছিল। প্রসার ভারতী নিউজ সার্ভিস অর্থাৎ পিবিএনএস ও ডিপি (ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম) সম্প্রতি নিজস্ব ১০০০ দিন পূর্ণ করেছে।

পিবিএনএস অ্যান্ড ডিপি-র প্রধান সমীর কুমার জানিয়েছেন, গত তিন বছর তাঁর কাছে ছিল অত্যন্ত ইতিবাচক এবং উপলব্ধিতে পরিপূর্ণ। সমীর কুমার, যিনি আইআইটি এবং আইআইএম-এ অধ্যয়ন করেছেন এবং বিদেশে শীর্ষ ব্যাঙ্কিং সংস্থাগুলিতে কাজ করেছেন। তিনি বলেছেন টুইটার, ইউটিউব, ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুক এবং টেলিগ্রামের বিস্তৃত এবং অত্যন্ত কার্যকর প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে দূরদর্শন এবং আকাশবাণীর তথ্য এবং সংবাদ মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার কাজ করেছি আমরা। তিনি বলেছেন, কোভিড-১৯-এর সময়ে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের গুরুত্ব আরও দ্রুত আবির্ভূত হয়েছে। আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার সমস্ত প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেওয়ার এবং করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মানুষকে সচেতন করার উদ্যোগ নিয়েছি। দূরদর্শন এবং অল ইন্ডিয়া রেডিও-তে দেশের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, চিকিৎসক, প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা, বিভ্রান্তি দূর করে এমন প্রচার সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে বারবার প্রচার করেছে পিবিএনএস।

সমীর কুমার বলেছেন, পরিবর্তিত সময়ে মানুষ এখন গাড়ি, বাস, ট্রেন অথবা মেট্রোতে যাতায়তের সময়ই দেশ ও বিশ্বের সঙ্গে সম্পর্কিত খবর দেখেন। সোশ্যাল মিডিয়ার সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হল এটি বৈশ্বিক। ভারতীয় সমাজ সমগ্র বিশ্বে ছড়িয়ে আছে। ভারতীয়রা সহজেই যাতে ভারত এবং ভারতীয়তা সম্পর্কিত তথ্য সহজে পেয়ে যান এবং তরুণ প্রজন্মের চাহিদাও পূরণ হয়, সেই দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। পিবিএনএস গঠনের পর দূরদর্শনের ইউটিউব চ্যানেলে ২ কোটির বেশি গ্রাহক যুক্ত হয়েছে, ডিডি ন্যাশনালের টুইটার হ্যান্ডেলে এই সংখ্যা ৭ লক্ষ থেকে বেড়ে ৫০ লক্ষের বেশি হয়েছে, পিবিএনএস-এর টুইটারেও ১.৫ লক্ষেরও বেশি মানুষ যুক্ত হয়েছেন। টেলিগ্রামে পিবিএনএস সবচেয়ে কার্যকর উপস্থিতি নিবন্ধন করছে। সমীর কুমার আরও বলেছেন, সঠিক তথ্যের অভাবের কারণে ডিজিটাল মাধ্যমের একটি জন্মগত ত্রুটি রয়েছে, এই প্ল্যাটফর্মে ভুল তথ্য দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে, যাকে ভাইরাল বলা হয়। এমতাবস্থায় শতভাগ সত্য ও মানসম্মত তথ্য জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে হবে এটাই আমাদের সংকল্প। একইভাবে ভুয়ো খবরের বিরুদ্ধে লড়াই করা এবং সঠিক এবং ভুলের মধ্যে তৈরি শূন্যতা পূরণ করা আমাদের অগ্রাধিকার।

সমীর কুমার বলেছেন, “আমাদের প্রধানমন্ত্রী সর্বদাই অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনা এবং রাজস্ব সচেতনতার ওপর জোর দিয়েছেন। সেই শিক্ষাকে মাথায় রেখে আমরা প্রথম দিন থেকেই পরিকল্পনা তৈরি করেছি এবং তা বাস্তবায়ন করেছি। আমরা খুশি যে প্রথম বছরে আমাদের ৮০ লক্ষ টাকা বাজেট দেওয়া হয়েছিল এবং ২ কোটি টাকারও বেশি আয় হয়েছে। আমাদের জনপ্রিয়তার ভিত্তি হল আকাশবাণী এবং দূরদর্শনের দীর্ঘস্থায়ী খ্যাতি এবং তা থেকে অর্জিত জনপ্রিয়তা।

হিন্দুস্থান সমাচার/ রাকেশ


 rajesh pande