ত্রিপুরা : কৈলাসহরে নিজ বাড়িতে উদ্ধার পুলিশকর্মীর স্ত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ
কৈলাসহর, ২০ নভেম্বর (হি.স.) : নিজ বাড়িতেই ঘরের মধ্যে সিলিং ফ্যানে ফাঁসিতে ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার অবসরপ
ত্রিপুরা : কৈলাসহরে নিজ বাড়িতে উদ্ধার পুলিশকর্মীর স্ত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ


কৈলাসহর, ২০ নভেম্বর (হি.স.) : নিজ বাড়িতেই ঘরের মধ্যে সিলিং ফ্যানে ফাঁসিতে ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার অবসরপ্রাপ্ত পুলিশকর্মীর স্ত্রীর৷ ঘটনাটি ঘটেছে ঊনকোটি জেলার কৈলসহরের বিদ্যানগর এলাকায়৷ মৃতার নাম সঙ্গীতা সনিহা৷ কৈলসহর মহিলা থানার পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে৷

জানা গিয়েছে, বিদ্যানগর এলাকার বাসিন্দা অমল কুমার সিনহা পুলিশ দপ্তরে চাকরি করতেন৷ বর্তমানে তিনি অবসরপ্রাপ্ত৷ তিনি ও তার স্ত্রী সঙ্গীতা সিনহা বাড়িতেই থাকেন৷ সন্তানরা কর্মসূত্রে বহিঃরাজ্যে থাকেন৷ প্রতিদিনের মতো এদিন অমলবাবু প্রাতঃভ্রমণে যান ভোরবেলা৷ সকালে তিনি বাড়িতে ফিরে দেখেন ঘরের দরজা জানালা সব বন্ধ৷ তিনি স্ত্রীকে ডাকাডাকি করেন৷ কোন সাড়াশব্দ না পেয়ে তিনি চিৎকার চেচামেচি করেন৷ তাতে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসেন৷ দরজা ভেঙ্গে দেখা যায় ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ফাঁসিতে ঝুলে রয়েছে সঙ্গীতা সিনহা৷

সাথে সাথেই খবর দেওয়া হয় কৈলাসহর মহিলা থানায়৷ পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে৷ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা নিয়ে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে৷ মৃতার স্বামী জানিয়েছেন, সঙ্গীতা সিনহা অত্যন্ত রাগী মহিলা ছিলেন৷ তিনি কারণে অকারাণে সন্তান সহ স্বামীর সাথে ঝগড়া করেন৷ এনিয়ে বাড়িতে প্রায়সময় অশান্তির সৃষ্টি হয়৷ পুলিশের ধারনা হয়তো কোন ঝগড়া বিবাদের প্রেক্ষিতেই তিনি ফাঁসিতে আত্মহত্যা করেছেন৷ তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পরই স্পষ্ট করে কিছু বলা যাবে৷

হিন্দুস্থান সমাচার / গোবিন্দ




 

 rajesh pande