পাথর ভর্তি ব্যাগ নিয়ে থানায় মহিলারা
জলপাইগুড়ি, ১৫ মে (হি. স.) : বুধবার দুপুরে আচমকা থানার সামনে এক অভিনব ছবি দেখা যায়। এক ব্যাগ ভর্তি প
পাথর ভর্তি ব্যাগ নিয়ে থানায় মহিলারা


জলপাইগুড়ি, ১৫ মে (হি. স.) : বুধবার দুপুরে আচমকা থানার সামনে এক অভিনব ছবি দেখা যায়। এক ব্যাগ ভর্তি পাথর নিয়ে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার দ্বারস্থ হন কিছু মহিলা। বস্তার ভিতরে বড় বড় পাথর।

জানা গেল, তাঁরা জলপাইগুড়ির বাহাদুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দা। সন্ধে নামলেই যেন তাঁদের বাড়ির চারপাশে এক বিভীষিকাময় পরিস্থিতি তৈরি হয়। বিকেল গড়িয়ে সন্ধে ঘনাতেই শুরু হয় ‘পাথর বৃষ্টি’, অভিযোগ তেমনই।

থানায় আসা এক মহিলার বক্তব্য, সন্ধে থেকে শুরু হয়ে ভোর পর্যন্ত চলে এই ‘পাথর বৃষ্টি’। তিনি জানান, ‘সন্ধে সাতটা-সাড়ে সাতটা থেকে শুরু হয়। প্রায় দেড়টা-দুটো পর্যন্ত চলে। মাঝে দুই-এক ঘণ্টা বন্ধ থাকে। তারপর রাত তিনটে থেকে ভোর পর্যন্ত আবার চলে।’ তাঁদের কথায়, সারাদিন কিছু হয় না, সন্ধে ঘনালেই এটা শুরু হয়। রাত যত বাড়ে, তত পাথর বর্ষণের বহরও বাড়ে বলে অভিযোগ। কোথা থেকে এত পাথর আসছে, কারা ছুড়ছে… কিছুই বুঝে উঠতে পারছেন না তাঁরা। এমন অবস্থায় তাই গ্রামের চারটি বাড়ির মহিলারা পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন।

মহিলারা জানান, শনিবার সন্ধে থেকে এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। ঘটনাকে কেন্দ্র করে বেশ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন তাঁরা। ভয়ের চোটে এই গরমের মধ্যেও দরজা-জানলা বন্ধ করে ঘরে বসে থাকতে হচ্ছে। এখন কী করবেন, তা বুঝে উঠতে না পেরে পুলিশের কাছে ছুটে এসেছেন তাঁরা। তাঁরা চান, এর একটা বিহিত হোক। প্রতিকার চেয়ে তাই ব্যাগ ভর্তি পাথর নিয়ে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানায় আসেন চার মহিলা। লিখিত অভিযোগ জানান থানায়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

হিন্দুস্থান সমাচার / অশোক




 

 rajesh pande