Custom Heading

ডিআরএস বিতর্কে কোহলীদের সতর্ক করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে
কেপটাউন, ১৪ জানুয়ারি (হি.স.): ডিআরএস বিতর্কে মাঠে বিরাট কোহলীদের আচরণ আইসিসি শেষ পর্যন্ত কোনও শাস্তি
ডিআরএস বিতর্কে কোহলীদের সতর্ক করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে


কেপটাউন, ১৪ জানুয়ারি (হি.স.): ডিআরএস বিতর্কে মাঠে বিরাট কোহলীদের আচরণ আইসিসি শেষ পর্যন্ত কোনও শাস্তিই দিল না বিরাট কোহলীর। ভারত অধিনায়ক এবং তাঁর দলকে সতর্ক করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। সেটিও বেসরকারি ভাবে। অর্থাৎ কোহলীরা ডিআরএস নিয়ে মাঠে যে আচরণ করেছেন, তার কোনও রেকর্ড রাখছে না আইসিসি।

দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় ইনিংসের ২৭তম ওভারে রবিচন্দ্রন অশ্বিন বোলিং করছিলেন ডিন এলগারের বিরুদ্ধে। ভারতীয় অফস্পিনার ভেবেছিলেন তিনি এলগারকে আউট করে দিয়েছেন। এমনকী মাঠের আম্পায়ার মারাইস ইরাসমাসও এলগারকে আউট দিয়ে দেন। কিন্তু এলগার আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে ডিআরএস নেন এবং সফল হন। এতেই ক্ষুব্ধ হন কোহলী। ভারতীয় দলের একাধিক ক্রিকেটার স্টাম্প মাইকের কাছে গিয়ে ডিআরএস নিয়ে অভিযোগ জানাতে থাকেন। বিরাট কোহলী-সহ ভারতীয় ক্রিকেটারদের অভিযোগ ছিল পক্ষপাতিত্ব করা হয়েছে। ইচ্ছাকৃত ভাবে আউট দেওয়া হয়নি বলে মনে হয় লোকেশ রাহুলদের।

ভারত অধিনায়ক বলেন, “দারুণ ডিআরএস, খুব ভাল খেললে।” লোকেশ রাহুল বলেন, “গোটা দেশ খেলছে ১১ জনের বিরুদ্ধে।” কোহলীকে ফের বলতে শোনা যায়, “শুধু বিপক্ষ নয়, নিজের দলের দিকেও দেখো, সব সময় লোককে ধরতে চাইছে।” এক দিকের স্টাম্পে যখন এই ধরনের কথা উঠে আসছে, সেই সময় উল্টো দিকের উইকেটে কথা বলতে শোনা যায় অশ্বিনকে। তাঁর অভিযোগের তির দক্ষিণ আফ্রিকার সম্প্রচারকারী সংস্থার (সুপারস্পোর্ট) বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, “অন্য ভাবে জেতার পথ খোঁজা উচিত সুপারস্পোর্টের।” মাঠের আম্পায়ার ইরাসমাসও অবাক হন। তিনি বলেন, “এটা অস্বাভাবিক।”

এবিষয়ে ভারত অধিনায়ক এবং তাঁর দলকে বেসরকারি ভাবে সতর্ক করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। কোহলীরা ডিআরএস নিয়ে মাঠে যে আচরণ করেছেন, তার কোনও রেকর্ড রাখছে না আইসিসি।

–হিন্দুস্থান সমাচার / কাকলি


 rajesh pande